channel 24

সর্বশেষ

  • চাল আমদানি নিরুৎসাহিত করতে ২৮ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে...

  • ৫৫ শতাংশ শুল্ক আরোপ করে এনবিআরের পরিপত্র জারি

বাবার আদর্শ থেকে আ. লীগ অনেক দূরে চলে গেছে: রেজা কিবরিয়া

বাবার আদর্শ থেকে আ. লীগ অনেক দূরে চলে গেছে: রেজা কিবরিয়া

আমার বাবাকে (শাহ এ এম এস কিবরিয়া) হত্যা করা হয় ২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারি। এরপর দুই বছর বিএনপি ক্ষমতায় ছিলো। ঠিক আছে তারা কাজ করতে পারেনি। ২ বছর তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছিলো। তারাও করতে পারেনি। সাড়ে নয় বছর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায়। কিন্তু সুষ্ঠু তদন্ত করার মতো তাদের কোন উদ্যোগ নেই। কার উপর আমার বেশি অসন্তুষ্ট হওয়া উচিত? আপনারাই বলেন।

রোববার (১৮ নভেম্বর) দুপুরে মতিঝিলে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন গণফোরামে আনুষ্ঠানিকভাবে যোগদান শেষে সাংবাদিকদের কাছে এই মন্তব্য করেন আওয়ামী লীগের আমলের সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়ার ছেলে রেজা কিবরিয়া।

রেজা কিবরিয়া বলেন, 'এই হত্যাকাণ্ডের সাথে বিএনপি, আওয়ামী লীগ বা বাইরের লোক জড়িত থাকতে পারে। কিন্তু আমার পরিবার একটি সুষ্ঠু এবং পরিপূর্ণ চার্জশিট আমরা পাইনি। আমরা চাই আসল খুনীদের চিহ্নিত করা হোক। শাস্তি দেয়া হোক। এটাই গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি বলেন, বাবার হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে কারো সাথে আপোষ করবো না। সে যে দলেরই হোক না কেন?’

এক প্রশ্নের জবাবে রেজা কিবরিয়া বলেন, যে আদর্শের জন্য আমার বাবা লড়াই করেছেন, সে আদর্শ থেকে আওয়ামী লীগ অনেক দূরে চলে গেছে।

আমার বাবা সরকারি কর্মচারি ছিলেন। তিনি বাংলাদেশকে সেবা দিয়েছেন। হয়তো কোন দলের প্রতি তার আনুগত্য ছিলো। কিন্তু তার প্রথম কাজই ছিলো দেশের সেবা করা। তিনি বলেন, বাবার আদর্শ থেকে আমি সরে যাইনি। ঠিক পথে বাংলাদেশেকে ফেরত নেয়া ছাড়া আর কোন বিকল্প নেই বলেও মন্তব্য করেন রেজা কিবরিয়া।

আর ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্ব ছাড়া আমার চাওয়ার বাংলাদেশ হতে পারে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

রেজা কিবরিয়া বলেন, এই মুহুর্তে দেশের জন্য, মানুষের জন্য ড. কামালের দিক নির্দেশনা দরকার এবং দাবি করেন, শিক্ষা, অর্থনীতি, আইনের শাসন সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে পথ হারিয়েছে বাংলাদেশ।

রেজা কিবরিয়া বলেন, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা খর্ব করার জন্য অনেক পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। এটা আপত্তিরকর, গ্রহণযোগ্য হতে পারে না। সুষ্ঠু ভোটের জন্য সাংবাদিকদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। বলেন, সাংবাদিকরা ব্যার্থ হলে দেশের ভবিষ্যত অন্ধকার।

তিনি বলেন, গণমাধ্যমে উপর অনেক হুমকি, নিষেধাজ্ঞা আছে। একাত্তরেও ছিলো। আমরা সেটাকে মোকাবিলা করেছি। সে ধরণের একটি সংগ্রাম করতে হবে, মানুষের ভোটের অধিকার  ফেরত দেবার জন্য।

রেজা কিবরিয়া বলেন, আওয়ামী লীগ প্রতিযোগিতামূলক নির্বাচনে আসতে রাজি হয়েছে। এতে সবাই খুশি। প্রতিযোগিতামূলক নির্বাচনই জনগণ দেখতে চায়। আমাদের টার্গেট হওয়া উচিত একশ ভাগ নির্বাচন সুষ্ঠু করার। তবে সুষ্ঠু হবে কিনা তার আশঙ্কা থেকেই যায়।

রেজা কিবরিয়া আরো বলেন, আমি এদেশের নাগরিক। অন্যকোন দেশে থাকার ইচ্ছা নাই। এখানেই থাকবো। নতুন এক বাংলাদেশ চাই। দাবি করেন বঙ্গবন্ধুর যে স্বপ্ন ছিলো, সে জায়গায় ফেরত নিতে হলে ড. কামাল হোসেন ছাড়া কেউ নাই।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর