channel 24

সর্বশেষ

  • 'সোনালী কাবিন'-এর কবি আল মাহমুদ মারা গেছেন...

  • রাজধানীর একটি হাসপাতালে রাত ১১:০৫ মিনিটে মারা যান তিনি...

  • মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৮২ বছর

অনুমোদিত সড়ক পরিবহন আইনে আতঙ্কের কিছু নেই: সেলিম মাহমুদ

অনুমোদিত সড়ক পরিবহন আইনে আতঙ্কের কিছু নেই: সেলিম মাহমুদ

মন্ত্রিসভায় অনুমোদিত সড়ক পরিবহন আইনটি যুগোপযোগী ও আন্তর্জাতিক মানের। চ্যানেল টোয়েন্টিফোরকে এ কথা বলেন, অধ্যাপক ড. সেলিম মাহমুদ। তিনি বলেন, এতে বাস চালকদের আতঙ্কিত হবার কিছু নেই। কারণ আইনে তাদের সুরক্ষা দেয়া আছে। ২৯ জুলাই রাজধানীর কুর্মিটোলায় বাসচাপায় দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যু এর জেরে নিরাপদ সড়কের দাবিতে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের আন্দোলন। এমন পরিস্থিতিতে ১৯৮৩ সালের মোটর ভেইকেলস অর্ডিন্যান্স বিবেচনায় নিয়ে সোমবার মন্ত্রিসভায় অনুমোদন পায় সড়ক পরিবহন আইন।

আইনে ১৮ বছরের নিচে কাউকে ড্রাইভিং লাইসেন্স আর ২১ বছরের নিচে পেশাদার লাইসেন্স না দেয়ার কথা বলা হয়েছে। সেইসাথে লাইসেন্স পেতে অষ্টম শ্রেণি পাস হতে হবে। উত্তীর্ণ হতে হবে নির্ধারিত পরীক্ষায়। এছাড়া গণপরিবহনে রাখতে হবে ভাড়ার তালিকা। লাইসেন্স ছাড়া কেউ হেলপার হতে পারবে না। আর দুর্ঘটনায় কেউ নিহত বা আহত হলে ক্ষতিপূরণ দিতে আর্থিক সহায়তা তহবিল গঠনের কথা বলা হয়েছে আইনে। এছাড়া প্রতিটি লাইসেন্সের বিপরীতে ১২ পয়েন্ট থাকবে, কোনো অপরাধ করলে কাটা যাবে পয়েন্ট। এভাবে ৫০ ভাগ পয়েন্ট কাটা গেলে লাইসেন্স ১ বছরের জন্য স্থগিত আর পুরো পয়েন্ট কাটা গেলে তা বাতিল হবে।

সড়ক পরিবহন আইন 

১৮ বছরের নিচে কেউ লাইসেন্স পাবে না
২১ বছরের নিচে পেশাদার লাইসেন্স নয়
লাইসেন্স পেতে অষ্টম শ্রেণি পাস হতে হবে
গণপরিবহনে রাখতে হবে ভাড়ার তালিকা
লাইসেন্স ছাড়া কেউ হেলপার হতে পারবে না

প্রতিটি লাইসেন্সের বিপরীতে ১২ পয়েন্ট অপরাধে পয়েন্ট কাটা যাবে
৫০ ভাগ পয়েন্ট কাটা গেলে লাইসেন্স ১ বছর স্থগিত, পুরো পয়েন্ট কাটা গেলে লাইসেন্স বাতিল
দুর্ঘটনায় কেউ নিহত বা আহত হলে ক্ষতিপূরণ দিতে আর্থিক সহায়তা তহবিল গঠন
তদন্তে হত্যা প্রমাণ হলে ফৌজদারি আইনে মৃত্যুদণ্ড। 

আইনে আরও বলা হয়েছে, দুর্ঘটনায় মৃত্যুর তদন্তে হত্যা প্রমাণ হলে বিচার হবে ফৌজদারি আইনে। আর এ অপরাধের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড। নতুন আইনটি নিয়ে বাস চালকদের আতঙ্কিত হবার কিছু নেই বলে মনে করেন এই বিশেষজ্ঞ। তার মতে, আইনে চালকদের যথেষ্ট সুরক্ষা দেয়া আছে। আইন অনুযায়ি কোন নিয়োগকারী ব্যক্তি বা কর্তৃপক্ষ শ্রম আইনের বিধান মোতাবেক লিখিত চুক্তিপত্র ছাড়া কাউকে মোটর যানে নিয়োগ দিতে পারবেন না। একই সাথে নিয়োগকারী স্থগিত, প্রত্যাহার বা বাতিলকৃত লাইসেন্সধারীকে মোটরযান চালানোর অনুমতি প্রদান করতে পারবেন না।

 

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর