channel 24

সর্বশেষ

  • তাজিয়া মিছিলের নিরাপত্তায় সর্বোচ্চ ব্যবস্থা: ডিএমপি কমিশনার

  • কোটা নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পাল্টাপাল্টি মিছিল

  • একুশ আগস্ট গ্রেনেড হামলার বিচার কাজ শেষ; রায় ১০ অক্টোবর

  • ইভিএম কিনতে ৪ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন একনেকে

  • বিএনপি নেতা আমীর খসরুর সম্পদ অনুসন্ধানে দুদকের অভিযান

  • ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৭.৮৬ শতাংশ: পরিকল্পনামন্ত্রী

দু'একটি বিছিন্ন ঘটনা ছাড়া নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে; মত বিশ্লেষকদের

দু'একটি বিছিন্ন ঘটনা ছাড়া নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে; মত বিশ্লেষকদের

দু'একটি ঘটনা ছাড়া, তিন সিটি নির্বাচন ছিলো অনেকটাই সুষ্ঠু ও স্বাভাবিক, এমনটা মত বেশিরভাগ বিশ্লেষকের।

যদিও এর সাথে একমত নন, সুশাসনের জন্য নাগরিক সুজন সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার। তাঁর মতে, গাজীপুর ও খুলনার মতো রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেটের নির্বাচনও ছিলো নিয়ন্ত্রণমূলক। তবে প্রায় সব বিশেষজ্ঞই মনে করেন, প্রত্যাশার মাপকাঠিতে এখনো ঢের পিছিয়ে নির্বাচন কমিশন। গেলো মে মাসে খুলনা আর জুনে গাজীপুরের, সোমবার হয়ে গেল রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেট সিটির নির্বাচন। যার মধ্যে সিলেট ছাড়া বাকি ৪টিতেই বড় ব্যবধানে জিতেছেন, আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীরা।

সরকারের শেষ সময়ে এসব স্থানীয় সরকার নির্বাচন নিয়ে আগ্রহ ছিলো সব মহলে। দেখার ছিলো, নির্বাচন কমিশনের ভূমিকাও। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এ শিক্ষকের মতে, ৫ সিটি নির্বাচন ছিলো তুলনামূলক সুষ্ঠু। যেই সাফল্যের কিছুটা হলেও, দাবিদার নির্বাচন কমিশন। তবে, একেবারের উল্টো অবস্থানে সুজন সম্পাদক। এ গণমাধ্যম ব্যক্ত্বিত মনে করেন, বিএনপির সাংগঠনিক দুর্বলতাই সিটি নির্বাচনে দলটির ভরাডুবির কারণ। যদিও অধ্যাপক মেসবাহ কামাল আওয়ামী লীগের সফলতার জন্য কৃতিত্ব দিচ্ছেন, দলটির জনপ্রিয়তাকে। তাদের সবাই একমত, গণতন্ত্রের প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামো মজবুতে অবাধ ও সুষ্ঠু করার বিকল্প নেই। এজন্য মূল ভূমিকা রাখতে হবে নির্বাচন কমিশনকেই।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর