channel 24

সর্বশেষ

  • দুর্নীতি মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য...

  • ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া নিজ বাসা থেকে গ্রেপ্তার

  • পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত কোনো ধরনের উন্নয়ন প্রকল্পের অনুমোদন...

  • ঘোষণা, ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমের ওপর...

  • নিষেধাজ্ঞা দিয়ে সরকারকে নির্বাচন কমিশনের চিঠি

  • রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সাথে সভা না করতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগসহ...

  • সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগকে চিঠি দেবে কমিশন: ইসি সচিব...

  • নির্বাচন কমিশন স্বাধীন প্রতিষ্ঠান, কারও চাপে সিদ্ধান্ত নেয় না

  • শেখ হাসিনা ২টি ও বাকিরা একটি আসনে মনোনয়ন পাচ্ছেন...

  • কক্সবাজারে বদি ও টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে আমানুর রহমান...

  • আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাচ্ছেন না: ওবায়দুল কাদের...

  • ২৪/২৫ নভেম্বর নাগাদ মহাজোটের প্রার্থিতা ঘোষণা

  • সম্পদের তথ্য গোপন: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য...

  • ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়ার ৩ বছরের কারাদণ্ড

  • এবার সব দলের অংশগ্রহণে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে...

  • কোনো পর্যবেক্ষণ সংস্থা দায়িত্ব পালনে অনিয়ম করলে ব্যবস্থা: ইসি সচিব

  • তৃতীয় দিনের মতো চলছে বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার

  • গুলশানে জাপার মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠান চলছে...

  • জাতীয় পার্টি যে জোটে তারাই ক্ষমতায় আসবে: রুহুল আমিন হাওলাদার

মেহেরপুরে স্বাস্থ্য বিভাগে অনিয়ম

মেহেরপুরে স্বাস্থ্য বিভাগে অনিয়ম

সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসক। পূর্ণ বিশ্রামের ছুটি নিয়ে রোগী দেখছেন বেসরকারি হাসপাতালে। আবার বদলির দেড় মাস পেরিয়ে গেলেও কর্মস্থলে যোগদান না করা, দীর্ঘদিন অনুপস্থিত থেকে হাজিরা খাতায় সই এরকম ঘটনাও আছে। মেহেরপুরে স্বাস্থ্য বিভাগের এই অনিয়ম ধরা পড়েছে চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের অনুসন্ধানে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন সিভিল সার্জন।

 

ডাক্তার ইব্রাহিম খলিল। কার্ডিওলোজি বিভাগের জুনিয়র কনসালটেন্ট। গত ২৫ মে বদলি হয়ে আসেন মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে। যোগ দেন, ৬ জুলাই। জেলায় ছিলেন, মাত্র একদিন। কিন্তু হাজিরা খাতায় সই করেছেন ১৩ দিনের। পরে অসুস্থতার অজুহাত দেখিয়ে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের দেয়া একটি পূর্ণ বিশ্রামের ব্যবস্থাপত্র পাঠিয়ে ছুটি নেন ১০ দিনের। অথচ এই ছুটির সময়ে তিনি কুমিল্লার একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়মিতই রোগী দেখেছেন।
অনুসন্ধান বলছে, আরও একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ও মেডিকেল অফিসারের যোগদান করার কথা ছিলো মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে। কিন্তু দেড় মাসেও যোগ দেননি তারা। অথচ হাজিরা খাতায় ঠিকই সই আছে।
এতো গেল জেলা শহরের চিত্র। মেহেরপুরের গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেও আছে এরকম ঘটনা। অর্থপেডিক্সের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডাক্তার আমিনুর রহমান ৬ মাস ধরে হাসপাতালে অনিয়মিত। কিন্তু হাজিরা খাতায় সই আছে নিয়মিত। কর্তৃপক্ষের দাবি, অনেক চেষ্টা করেও তাকে হাসপাতালে আনা সম্ভব হয়নি। গত ১০ জুলাই তিনি বদলি হয়ে গেছেন যশোরের অভয়নগরে। আরেক উপজেলা মুজিবনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২০১২ সাল থেকে অনুপস্থিত সাদিয়া শারমিন নামে একজন মেডিকেল অফিসার। তিনি কোথায় আছেন তাও জানে না হাপসাতাল কর্তৃপক্ষ।
চিকিৎসকদের সংগঠন বিএমএর জেলা সভাপতি বলছেন, সরকার ও স্বাস্থ্য বিভাগের উদাসিনতার কারণে সারাদেশেই এরকম ঘটনা আছে। আর অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন সিভিল সার্জন।
শুধু মেহেরপুর নয়, দেশের অন্যান্য সরকারি হাসপাতালেও যেসব চিকিৎসক অনিয়মিত এবং ছুটি নিয়ে বেসরকারি হাসপাতালে প্র্যাকটিস করছেন, তাদের চিহ্নিত করা উচিত বলে মনে করেন, সিভিল সার্জন।

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর