channel 24

সর্বশেষ

  • স্মার্ট এগ্রোরোবট উদ্ভাবন করেছেন ২ শিক্ষার্থী

  • টানা পাঁচদিন পর ফের পতন পুঁজিবাজারে

  • ফজলে কবিরকে গভর্নর পদে চুক্তিতে নিয়োগ

  • ময়মনসিংহে যুব বিশ্বকাপজয়ী রাকিবুলকে সংবর্ধনা

  • মোংলা বন্দরের সক্ষমতা বাড়াতে ৬ হাজার ১৪ কোটি টাকা বরাদ্দ

  • রাজধানীর ইএমকে সেন্টারে 'জীবনানন্দ উৎসব'

  • ব্যাংকগুলোতে খেলাপি ঋণ ৯৪ হাজার ৩৩১ কোটি টাকা

  • তারেক রহমানসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা

  • দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সেনাবাহিনী সবসময় প্রস্তুত: সেনাপ্রধান

  • অটোরিকশা থেকে ছুড়ে ফেলা শিশুটিকে বাঁচাতে চিকিৎসক-নার্সদের প্রাণান্ত চেষ্টা

  • চ্যাম্পিয়ন্স লিগ: নক আউটে পর্বে মাঠে নামছে লিভারপুল-অ্যাতলেটিকো, পিএসজি-বরুশিয়া

  • চ্যারিটেবল মামলা: ফের হাইকোর্টে খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন

  • নিজের সন্তান না থাকলেও ৪৪ জন শিশুর মা হাজেরা বেগম

  • গত ২৫ বছরের মধ্যে নিজেকে সফল মেয়র দাবি করলেন নাছির

  • মনোনয়ন নিয়ে আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ও অপরাজনীতি হয়েছে: আ জ ম নাছির

বিদ্যুৎ খরচ কমাতে এসি ব্যবহারের কিছু নিয়ম

বিদ্যুৎ খরচ কমাতে এসি ব্যবহারের কিছু নিয়ম

প্যাচপ্যাচে গরমে নাকাল হয়ে বাড়ি ফিরে এসি চালিয়ে খানিক স্বস্তি পাওয়া যায় ঠিকই। কিন্তু মাসের শেষে বিদ্যুতের বিল দফারফা করে দিতে পারে পকেটের। কাজেই চাই এমন কিছু দাওয়াই, যাতে সাপও মরবে লাঠিও ভাঙবে না। অর্থাৎ এসির হাওয়াও খাওয়া হল অথচ বিদ্যুতের বিলও বাঁচল।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন সতর্ক হতে হবে এসি কেনার সময়েই। যত বেশি স্টার তত কম বিদ্যুৎক্ষয়, মানতে হবে এই সহজ-সরল নিয়ম। পাশাপাশি স্টার রেটিং যত বেশি হবে, ততই বাড়বে এসির দাম। তাই অনেকেই ফাইভ স্টার এসি কেনার চেষ্টা করেন। কিন্তু সব সময় ফাইভ স্টার এসি কেনার দরকার হয় না। এসি যদি বছরে গড়ে ১০০০ ঘণ্টার কম চলে এবং বিদ্যুতের ইউনিট পিছু খরচ যদি ৫ টাকা হয় তবে ৩ স্টার স্প্লিট এসি কিনলেই চলবে। কিন্তু এসি যদি গড়ে বছরে ১০০০ ঘণ্টা থেকে ১৫০০ ঘণ্টা চলে তবে ফাইভ স্টার স্প্লিট এসি কেনাই ভাল।

এ তো গেল এসি কেনার কথা। কিন্তু প্রতিদিন কি করবেন? রইল এসি ব্যবহারের পকেট-ফ্রেন্ডলি সমাধান:

♦ এসির টেম্পারেচার অবশ্যই ২৪ থেকে ২৬ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডের মধ্যে থাকা চাই। এসি যত কম তাপমাত্রায় চালানো হবে, তত বেশি চাপ পড়বে কম্প্রেশারে। চড়চড় করে চড়বে বিল।
♦ রাতে স্লিপ মোডে চালান এসি। বিদ্যুৎ অপচয় কমবে। ভোরের দিকে এসি বন্ধ করে দেওয়ার অভ্যেস তৈরি করতে পারলে ভাল। রাতে ঘণ্টা পাঁচেক এসি চললে, পরবর্তী কিছু ক্ষণ এসি ছাড়া থাকাই যায়।
♦ এসি পুরনো হয়ে গেলে তা পালটে নেওয়া একটি ভালো কৌশল হতে পারে। পুরনো এসিগুলো সে রকম বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী নয়।
♦ এসির ফিল্টারটি নির্দিষ্ট সময় অন্তর পরিষ্কার করতেই হবে।
♦ এসিতে টাইমার ব্যবহার করুন যাতে ঘর ঠান্ডা হয়ে গেলে আপনা থেকেই বন্ধ হয়ে যায় যন্ত্রটি।
♦ আপনার সিলিং ফ্যানটিকেও ব্যবহার করুন এসির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে।
♦ দিনের বেলা ঘরে তাপ ঢোকার উৎসগুলিকে বন্ধ করুন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

লাইফস্টাইল খবর