channel 24

সর্বশেষ

  • কক্সাবাজারে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে শিক্ষার্থী নিহত

  • কক্সবাজারে জেলেদের সহায়তার দাবিতে মানববন্ধন

  • ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রির শেষদিনেও পিছু ছাড়েনি ভোগান্তি

  • বান্দরবানে বন্য হাতির আক্রমণে নিহত ১

  • ফটোশুট ও গেমসে মাতলো সাকিব-তামিম-মুশফিকরা

  • এয়ারক্রাফ্ট ছিনতাই চেষ্টা নস্যাতে: ক্রুদের সম্মাননা জানালো বিমান

  • দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর হালদায় ডিম ছেড়েছে কার্প জাতীয় মাছ

  • খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে অপরাজনীতি না করার আহ্বান তথ্যমন্ত্রীর

  • নুসরাত হত্যা: ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার অভিযোগ প্রমাণিত

  • টানাপোড়নের মধ্যেই হুয়াওয়ের নতুন স্মার্ট ডিভাইস উন্মোচন

  • ক্রেতাদের পদচারণায় মুখর চাঁদপুর, লক্ষ্মীপুর ও বি. বাড়িয়ার বিপণি বিতান

  • কেরালায় হামলার উদ্দেশ্যে নৌপথে শ্রীলঙ্কা ছেড়েছে ১৫ আইএস জঙ্গি

  • ঘন্টায় ৩৬০ কিলোমিটার গতির বুলেট ট্রেনের পরীক্ষা চালালো জাপান

  • ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির দুই যুগপূর্তি

  • নতুন টাকা: একজন সর্বোচ্চ ১৮ হাজার, পাওয়া যাচ্ছে ৩০ টি শাখায়

ধূমপায়ী? জেনে নিন ফুসফুস পরিষ্কার করার উপায়

ধূমপায়ী? জেনে নিন ফুসফুস পরিষ্কার করার উপায়

ধূমপান প্রতি ৬ সেকেন্ডে ১ টি মৃত্যু ঘটায়। গবেষণায় দেখা গেছে সিগারেটের ধূমপানে নিকোটিনসহ ৫৬টি বিষাক্ত রাসায়নিক পদার্থ বিরাজমান। ২০১০ খ্রিস্টাব্দে প্রকাশিত বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার উদ্যোগে বিশ্বের ১৯২টি দেশে পরিচালিত একটি গবেষণা প্রতিবেদনে জানানো হয়, নিজে ধূমপান না করলেও অন্যের ধূমপানের (পরোক্ষ ধূমপান) প্রভাবে বিশ্বব্যাপী প্রতিবছর প্রায় ৬,০০,০০০ মানুষ মারা যায়। এর মধ্যে ১,৬৫,০০০-ই হলো শিশু। শিশুরা পরোক্ষ ধূমপানের কারণে নিউমোনিয়া ও অ্যাজমায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর দিকে ঝুঁকে পড়ে। এছাড়া পরোক্ষ ধূমপানের কারণে হৃদরোগ, ফুসফুসের ক্যান্সার সহ শ্বাস-প্রশ্বাসজনিত রোগও দেখা দেয়।

যখন কেউ ধূমপান ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্তও নেয়, তখনও এটি তাদের পক্ষে একেবারে ছেড়ে দেওয়া কঠিন। কারণ সিগারেটে নিকোটিন থাকে। নিকোটিন এমন ড্রাগ যা মানুষকে ধূমপান চালিয়ে নিয়ে যেতে উত্তেজিত করে। যখন কেউ নিয়মিত ধূমপান শুরু করে তখন তাদের শরীর নিকোটিনে অভ্যস্ত হয়ে যায় এবং নিয়মিত এর ডোজের প্রয়োজন শুরু হয়।

যখন কোন ধূমপায়ী ধূমপান ছেড়ে দিতে চেষ্টাও করেন তখন তিনি কিছু অসুবিধার সম্মুখীন হতে শুরু করেন যা খুবই অস্বস্তিকর। লক্ষণগুলি হল:

১. ঘুমের সমস্যা
২. বমিভাব
৩. মেজাজ খিটখিটে এবং জ্বালাভাব
৪. অস্থিরতা
৫. চিন্তা ভাবনা এবং মনোনিবেশে সমস্যা

নিকোটিন প্রত্যাহারের এই লক্ষণ কয়েক দিন বা সপ্তাহে অদৃশ্য হয়ে যেতে শুরু করে। কিন্তু সিগারেটের লোভ দীর্ঘ দিন চলতে পারে। কাউন্সেলিং, নিকোটিন প্যাচ, গাম, ইনহালেটর, লজেন্স এবং মুখের স্প্রে ধূমপান ছেড়ে দেওয়ার সময় ও তারপরেও আপনার শরীরকে বিষাক্ত পদার্থ থেকে দূরে রাখতে সাহায্য করে। তবে কিছু প্রাকৃতিক উপাদানও আছে যা আপনাকে বেশ উপকার দেবে।

হলুদ-আদা-পেঁয়াজ এর রেসিপিঃ

হলুদ আদা আপনাকে ধূমপান থেকে বিরত রাখতে এবং আপনার শরীরকে সমস্ত ক্ষতিকারক বিষক্রিয়া থেকে মুক্ত করতে সহায়তা করে।

এই রেসিপির মূল উপাদান হল আদা। আদা বমি বমি ভাব কাটাতে সাহায্য করে। নিকোটিন প্রত্যাহারের প্রাথমিক উপসর্গগুলির একটি হল বমি ভাব।

অন্য উপাদানটি হল হলুদ। ধূমপান ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ায়। গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে হলুদে কারকুমিন রয়েছে, যাতে আছে অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেরেটারি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ক্যান্সার বিরোধী এবং অ্যান্টি টক্সিক বৈশিষ্ট্য। দেহের অঙ্গপ্রত্যঙ্গকে ক্ষতি থেকে রক্ষা করার সময় শরীর থেকে ক্ষতিকারক বিষাক্ত বস্তু অপসারণে এটি সাহায্য করে।

তৃতীয় খুব গুরুত্বপূর্ণ উপাদান পেঁয়াজ হয়। পেঁয়াজে আছে কোয়ার্সিটিন, যা ফুসফুসের ক্যান্সার প্রতিরোধে সহায়তা করে এবং এতে আছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটারি বৈশিষ্ট্যও।

এখানে দেখে নিন আপনি কীভাবে হলুদ আদা চা তৈরি করতে পারেন:

উপকরণ:

১. আদার ছোট টুকরো
২. ৪০০ গ্রাম কাটা পেঁয়াজ
৩. ২ চা চামচ হলুদ গুড়ো
৪. ১ লিটার পানি
৫. স্বাদ অনুযায়ী মধু

পদ্ধতি:

১. একটি পাত্রের মধ্যে পানি ফুটিয়ে নিন তারপর তাতে আদা ও পেঁয়াজ যোগ করুন।
২. আরো কিছু আদাকুচি পানিতে দিন এবং হলুদ যোগ করুন।
৩. কম আঁচে কয়েক মিনিটের জন্য উপাদানগুলিকে ফুটতে দিন।
৪. যত বেশি মিশ্রণটি ফুটবে গন্ধ আরও বেশি তীব্র হবে।

যতবার ধূমপান করবেন তার ঠিক পরেই বা দিনে দু'বার আপনার ফুসফুস পরিষ্কার করতে এটি পান করুন।

ধূমপান ছেড়ে দেওয়া কঠিন হতে পারে, কিন্তু এটি কার্যকরী। প্রথমে বিরক্তিকর বলে মনে হতে পারে এবং সফল হওয়ার জন্য বেশ কয়েকবার চেষ্টা করতে হতে পারে।

EllVume commented 13 days ago
Silagra Online Kaufen cialis without prescription Best Price Cialis

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

লাইফস্টাইল খবর