channel 24

সর্বশেষ

  • জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৩তম অধিবেশনে যোগ দিতে...

  • নিউইয়র্ক যাওয়ার পথে যাত্রাবিরতিতে লন্ডনে প্রধানমন্ত্রী

  • কক্সবাজারের উদ্দেশে সড়ক পথে আ.লীগের সাংগঠনিক সফর শুরু...

  • নির্বাচনে জনপ্রিয় ব্যক্তিদের মনোনয়ন দেয়া হবে: কুমিল্লায় সেতুমন্ত্রী

  • রেলপথের মতো সড়কপথের প্রচারণাতেও ব্যর্থ হবে আ.লীগ: রিজভী

  • ২০১৮'র শেষ অথবা ২০১৯'র শুরুতে জাতীয় নির্বাচন: সিইসি...

  • আইনগত ভিত্তি পেলেই ইভিএম ব্যবহার করা হবে

  • নরসিংদীতে ব্রহ্মপুত্র নদে নৌকাডুবি; ভাইবোনসহ ৩ জনের মৃত্যু

ট্রাম্প-কিমের বৈঠকে যৌথ ঘোষণাপত্র সই

ট্রাম্প-কিমের বৈঠকে যৌথ ঘোষণাপত্র সই

সিঙ্গাপুরে সেন্তোসা দ্বীপে, ট্রাম্প-কিমের বৈঠকে যৌথ ঘোষণাপত্র সই হয়েছে। এতে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ, ওয়াশিংটন-পিয়ংইয়ং সুসর্ম্পক স্থাপন, কোরীয় উপদ্বীপে শান্তি ফেরানো বিষয় উল্লেখ রয়েছে। কিছুক্ষণ আগে, সিঙ্গাপুরে সংবাদ সম্মেলন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জানিয়েছেন, পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ হলেই কেবল উত্তর কোরিয়ার ওপর থেকে অবরোধ প্রত্যাহার সম্ভব।   

 নানা নাটকীয়তা, বাকযুদ্ধ আর হুমকি পাল্টা হুমকি পেছনে ফেলে, ঐতিহাসিক এক মুহূর্তের সাক্ষী গোটা বিশ্ব। সিঙ্গাপুরের স্থানীয় সময়, সকাল ৯ টায় সেন্তোসা দ্বীপের কাপেলা হোটেলে মুখোমুখি হন, দুই নেতা।

‌টানা ৩৮ মিনিট চলে রুদ্ধদ্বার বৈঠক। প্রথমবারের মতো ইংরেজিতে ট্রাম্পকে অভিবাদনও জানান কিম।

পরে, দুই দেশের শীর্ষ কর্তাদের নিয়ে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বসে, যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরীয় প্রতিনিধি দল।

স্থানীয় সময় দুপুর ১২ টার পরে একটি যৌথ ঘোষণাপত্রে সই করেন, ট্রাম্প-কিম। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জানান, এর মধ্য দিয়ে তৈরি হলো দুদেশের বিশেষ বন্ধন। আর অতীত ভুলে সামনে এগিয়ে চলার প্রত্যয় ব্যাক্ত করেন উত্তর কোরীয় নেতা।

পরমাণু অস্ত্র নিরস্ত্রীকরণ, ওয়াশিংটন-পিয়ংইয়ং সুসর্ম্পক স্থাপন, কোরীয় উপদ্বীপে শান্তি ফেরানো এবং বন্দি বিনিময়ের বিষয়টি উল্লেখ রয়েছে যৌথ ঘোষণায়।

প্রায় ৭০ বছর আগে সংঘাতে বিধ্বস্ত হয়েছিলো কোরীয় উপদ্বীপ। এ বৈঠকের মধ্য দিয়ে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন সম্পর্কের সূচনা হলো। কিম, আশ্বস্ত করেছেন, দ্রুতই কোরীয় উপদ্বীপে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ শুরু হবে, বিনিময়ে উত্তর কোরিয়ার নিরাপত্তার নিশ্চয়তা দেবে যুক্তরাষ্ট্র। 

সেন্তোসা দ্বীপে কিম-ট্রাম্পের এই বৈঠক ঘিরে এরই মধ্যে খুশির জোয়ার বইছে দুই কোরিয়ায়। টেলিভিশনে চোখ ছিলো কোটি মানুষের।

সুংশিন বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক ইউন জি বলেন, ট্রাম্প-কিম বৈঠক থেকে ভালো কিছু আশা করছি। শান্তি চুক্তির মাধ্যমে বিশ্ব অর্থনীতিতে উত্তর কোরিয়ার অংশগ্রহণ দেখতে চাই।

পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের মাধ্যমে দেশটির নিরাপত্তা আরও বাড়বে।

দুই নেতাকে অভিনন্দন জানিয়েছে অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া ও চীন।

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর