channel 24

সর্বশেষ

  • জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৩তম অধিবেশনে যোগ দিতে...

  • নিউইয়র্ক যাওয়ার পথে যাত্রাবিরতিতে লন্ডনে প্রধানমন্ত্রী

  • কক্সবাজারের উদ্দেশে সড়ক পথে আ.লীগের সাংগঠনিক সফর শুরু...

  • নির্বাচনে জনপ্রিয় ব্যক্তিদের মনোনয়ন দেয়া হবে: কুমিল্লায় সেতুমন্ত্রী

  • রেলপথের মতো সড়কপথের প্রচারণাতেও ব্যর্থ হবে আ.লীগ: রিজভী

  • ২০১৮'র শেষ অথবা ২০১৯'র শুরুতে জাতীয় নির্বাচন: সিইসি...

  • আইনগত ভিত্তি পেলেই ইভিএম ব্যবহার করা হবে

  • নরসিংদীতে ব্রহ্মপুত্র নদে নৌকাডুবি; ভাইবোনসহ ৩ জনের মৃত্যু

ট্রাম্প-কিমের ঐতিহাসিক বৈঠকের অপেক্ষায় গোটা বিশ্ব

ট্রাম্প-কিমের ঐতিহাসিক বৈঠকের অপেক্ষায় গোটা বিশ্ব

সিঙ্গাপুরের সেন্তোসা দ্বীপে ট্রাম্প-কিমের ঐতিহাসিক বৈঠক কাল।

গোটা বিশ্বের নজর ধনীদের স্বর্গরাজ্য খ্যাত এই দ্বীপটিতে। বৈঠক ঘিরে নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছে গোটা দ্বীপ। স্থায়ী শান্তির আশায় বুক বেঁধেছেন দুই কোরিয়ার মানুষ। ধারণা করা হচ্ছে, দুই নেতার ঐতিহাসিক বৈঠকের পর পরমাণু নিরস্ত্রীকরণসহ দ্বিপক্ষীয় বেশ কিছু ইস্যুতে যৌথ ঘোষণা আসতে পারে। সিঙ্গাপুরে ট্রাম্প-কিমের ঐতিহাসিক বৈঠক ঘিরে আগ্রহের কমতি নেই স্থানীয় ও পর্যটকদের মাঝে। যাতে বিশ্ববাসীর নজর কেড়েছেন কিম ও ট্রাম্পের মতো চেহারার হাওয়ার্ড এক্স এবং ড্যানিশ অ্যালেন। 

বৈঠকের ভেন্যু, সেন্তোসা দ্বীপকে বলা হয় ধনীদের স্বর্গরাজ্য। সেখানকার সড়ক আর হোটেল সাজানো হয়েছে, ফুল দিয়ে। দ্বীপটিকে বিশেষ অঞ্চল ঘোষণা করে সীমিত করা হয়েছে জনসাধারণের চলাচল। ট্রাম্প-কিম বৈঠকের জন্য পাঁচ তারকা কাপেল্লা হোটেলে বুকিং দিয়েছে সিঙ্গাপুর সরকার। নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা নেয়া হয়েছে শতাধিক কক্ষের হোটেলটিতে। 

এটি নিঃসন্দেহে একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক। উত্তর পূর্ব এশিয়ার বর্তমান অবস্থা, বিশেষ কোরে কোরিয় উপদ্বীপে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ সম্ভব না হলে পুরো এশিয়াকেই নিরাপত্তা হুমকিতে ফেলে দেবে। মঙ্গলবার দু নেতার বৈঠকে মূল আলোচ্য সূচিতে রয়েছে পরমাণু ইস্যু, অর্থনৈতিক অবরোধ প্রত্যাহার ও দুই কোরিয়ার শান্তি প্রক্রিয়া।

এ বৈঠকের মধ্য দিয়ে কোরিয় উপদ্বীপ পরমাণু অস্ত্রমুক্ত হলে একটি যুদ্ধের সমাপ্তি ঘটবে। সমঝোতা না হলে ফল হবে ভয়াবহ। কয়েক দশকের চেষ্টার ফল এই বৈঠক। যেহেতু দুই নেতাই এটিকে ফলপ্রসূ করার স্বদিচ্ছা দেখিয়েছেন তাই আগের মতো এটি ভেস্তে যাওয়ার সম্ভাবনা নেই। এমন তৎপরতায় নতুন আশায় বুক বেঁধেছেন দুই কোরিয়ার মানুষও। 

ঐতিহাসিক মুহূর্তের সাক্ষী হতে পেরে কোরিয়ান কমিউনিটি খুবই খুশি। আমার বিশ্বাস কোরিয়া উপদ্বীপে শান্তি প্রতিষ্ঠার মাইলফলক এটি। বলা হচ্ছে, উত্তর কোরিয়া থেকে জাতিসংঘের অবরোধ প্রত্যাহারের বিষয়টি নির্ভর করছে এই বৈঠকের ওপর। 

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর