channel 24

সর্বশেষ

  • উন্নয়ন ধরে রাখতে অশুভ তৎপরতা রুখতে হবে: রাষ্ট্রপতি

  • ধানমন্ডিতে বৈঠকে বসেছেন ফখরুলসহ জাতীয় ঐক্যের নেতারা

  • জনগণকে নয়, বিদেশিদের আস্থায় নিতে চায় ঐক্যফ্রন্ট: সেতুমন্ত্রী...

  • নীতিহীন ঐক্যে জনগণ থাকবে না: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আইনমন্ত্রী...

  • সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সরকারকে আলোচনার আহবান নজরুলের

  • ১৭৭ রোহিঙ্গাকে রাখাইনে পুনর্বাসনের দাবি মিয়ানমারের...

  • প্রত্যাবাসন নিয়ে মিয়ানমারের দাবি মিথ্যা: পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

  • জাতীয় ঈদগাহে আইয়ুব বাচ্চুর জানাজা; কাল চট্টগ্রামে দাফন

  • প্রতিমা বিসর্জনে আজ শেষ হচ্ছে শারদীয় দুর্গোৎসব

  • প্রস্তুতি ম্যাচ: জিম্বাবুয়েকে ৮ উইকেটে হারিয়েছে বিসিবি একাদশ...

  • স্কোর: জিম্বাবুয়ে ১৭৮ (এবাদত ৫/১৯), বিসিবি ১৮১/২ (সৌম্য ১০২*)

নাগরিকত্ব আইনে বড়ো ধরনের পরিবর্তন আসছে অস্ট্রেলিয়ায়

নাগরিকত্ব আইনে বড়ো ধরনের পরিবর্তন আসছে অস্ট্রেলিয়ায়

নাগরিকত্ব আইনে বড়ো ধরনের পরিবর্তন আনতে যাচ্ছে, অস্ট্রেলিয়া। বৃহস্পতিবার এ ঘোষণা দেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ম্যালকম টার্নবুল। জানান, ইংরেজি ভাষায় দক্ষতা এবং অস্ট্রেলিয় মূল্যবোধের পরীক্ষা দিতে হবে, আবেদনকারীদের। এছাড়া, এক বছরের বদলে চার বছর বসবাসের পরই, নাগরিকত্বের আবেদন করা যাবে। দেশটির অভিবাসন বিষয়ক মন্ত্রীর দাবি, কল্যানমূলক কর্মসূচির  অপব্যবহার রোধেই নাগরিকত্ব আইন কঠোর করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

অস্ট্রেলিয়া। ইউরোপে'র পর অভিবাসন প্রত্যাশীদের শীর্ষ পছন্দের দেশ এখনো, অস্ট্রেলিয়া।

বৃহস্পতিবার, নতুন নাগরিকত্ব আইন প্রণয়নের ঘোষণা দিয়েছেন, দেশটির প্রধানমন্ত্রী ম্যাকলম টার্নবুল। এতদিন, ১ বছর বসবাসের পরই নাগরিকত্ব আবেদন করতে পারতেন যেকোন অভিবাসী। নতুন আইনে, চার বছর বসবাসের পরই নাগরিকত্ব আবেদনের সুযোগ মিলবে। অস্ট্রেলিয় মূল্যবোধে বিশ্বাসের মত বেশ কিছু শর্তও যুক্ত করা হচ্ছে, নতুন আইনে।

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী ম্যালকম টার্নবুল বলেন, 'নাগরিকত্বের পরীক্ষা মূলত প্রমাণ করবে যে, একজন বিদেশি কিভাবে অস্ট্রেলিয়ার মানুষ আর মূল্যবোধের সাথে একাত্ম হবে। এটি তাদের এই সমাজেরই অংশ হতে সাহায্য করবে। যে অস্ট্রেলিয়ার মূল্যবোধকে লালন করবে সেই অস্ট্রেলিয়ার গণতন্ত্র গঠণে ভূমিকা রাখতে পারবে। এটা শুধু একটা প্রক্রিয়া নয়, এটা নতুন পরিবেশে মানিয়ে নেয়ার একটা সহায়ক।'

দেশটির অভিবাসন বিষয়ক মন্ত্রী বলছেন, অভিবাসীরা যাতে শুধুমাত্র কল্যানমূলক সুযোগের অপব্যবহার করতে না পেরে এজন্যই এমন উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।  

অস্ট্রেলিয়ার অভিবাসন বিষয়ক মন্ত্রী পিটার ডাটন বলেন, 'আপনি যদি অস্ট্রেলিয়ায় আসতে চান তাহলে এখানকার সব আইন-কানুনও মেনে চলতে হবে। আপনার আবেদনপত্রে উল্লেখ থাকতে হবে যে, আপনি অস্ট্রেলিয় মূল্যবোধে বিশ্বাস করেন। এখানকার কল্যাননীতির সুযোগ কাজে লাগিয়ে সন্তানের উচ্চশিক্ষার সুযোগ নিতে পারেন।'

অস্ট্রেলিয়ায় ঢুকতে এখনো ঝুকিপূর্ণ সাগরপথ বেছে নেন, এশিয়া, মধ্যপ্রাচ্য আর আফ্রিকার অনেকে। বলা হয়, দেশটির প্রতি চার জন নাগরিকের একজনই অভিবাসী। গেল ক'বছর ধরেই অভিবাসন আইনে কড়াকড়ি আরোপ করছে দেশটি। বিশেষ করে সাগরপথে আসা অবৈধ অভিবাসীদের পাঠানো হচ্ছে, পাপুড়া নিউগিনি আর নাউরুর মত দুর্গম দ্বীপে। বর্তমানে, ৭০ বাংলাদেশীসহ অন্তত ১৩শ অবৈধ অভিবাসী রয়েছে অস্ট্রেলিয়ার বন্দিশালায়।


এনএস/বিএস

 

 

 

 

 

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর