channel 24

সর্বশেষ

  • কুষ্টিয়ার স্থানীয় বাজারে দুদিনে কমবে চালের দাম: জেলা প্রশাসক

  • নারী বাইকারের স্কুটি চুরি; গ্রেপ্তার জোবাইদুল দুদিনের রিমান্ডে

  • জুলহাজ-তনয় হত্যা মামলার আসামি আসাদুল্লাহ ৩ দিনের রিমান্ডে

  • নির্বাচন নিয়ে তামাশায় আ.লীগেরই বেশি ক্ষতি হয়েছে: ফখরুল

  • কমিশনে বৈঠকে পরবর্তী সিদ্ধান্ত; টিআইবির রিপোর্ট প্রত্যাখ্যান: সিইসি

  • গ্যাটকো দুর্নীতি: অভিযোগ গঠনের পরবর্তী শুনানি ২৪ জানুয়ারি...

  • খালেদা জিয়াসহ সব আসামিকে হাজির করার নির্দেশ

  • এক বছরের নিচে ও ৬৫ বছরের বেশি বয়সী নাগরিককে...

  • বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা দেবে সরকার: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  • সুষ্ঠু নির্বাচন যারা মানে না, তাদেরই ক্ষমা চাওয়া উচিত: কাদের

  • ঢাকা উত্তরের মেয়র পদে উপনির্বাচন হতে বাধা নেই: হাইকোর্ট...

  • নির্বাচন নিয়ে স্থগিতাদেশ ও রুল খারিজ

পার্টোগ্রাফ পদ্ধতি অনুসরণ করা হচ্ছে না বেশিরভাগ হাসপাতালে  

পার্টোগ্রাফ পদ্ধতি অনুসরণ করা হচ্ছে না বেশিরভাগ হাসপাতালে  

সন্তান জন্মদানের আগে জরায়ুর মুখ খুলতে শুরু করলে প্রসূতি মায়ের হৃদ স্পন্দন, রক্তচাপ, শিশুর অবস্থানের রেকর্ড রাখা হয়।

চিকিৎসাবিজ্ঞানে এ পদ্ধতির নাম পার্টোগ্রাফ। এর মাধ্যমে জানা যায়, প্রসূতির সিজারের প্রয়োজন হবে কিনা। অথচ পার্টোগ্রাফ পদ্ধতি অনুসরণ করা হচ্ছে না রাজধানীর বেশিরভাগ হাসপাতালেই। পার্টোগ্রাফ শিশু জন্ম এবং নিরাপদ মাতৃত্বের জন্য রাখা এক পরিসংখ্যান ভিত্তিক রেকর্ড। এর মাধ্যমে আগে থেকেই জানা যাবে, শিশুর জন্ম সিজারে হবে না নরমালে। 

শুধু সিজার বা নরমাল ভ্যাজাইনাল প্রসব নয় সঠিকভাবে পার্টোগ্রাফ রাখা হলে প্রয়োজনে নেয়া যাবে অন্যসব পদ্ধতিও। আর শুধু রোগীই নয় এতে সুবিধা হয় ডাক্তারেরও। সন্তানের হার্টবিট, গর্ভবতী মায়ের পালস রেটসহ আরো বেশকিছু বিষয় রেকর্ড করার নিয়ম রয়েছে প্রায় সব হাসপাতালে। কিন্তু তার কতটা রাখা হয়? শুধুমাত্র রোগীকে ভয় দেখিয়ে সিজারের এই বাণিজ্য অনেকটাই কমিয়ে আনা সম্ভব পার্টোগ্রাফের মাধ্যমে। তবে তার জন্য প্রয়োজন সচেতনতার।

 

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর