channel 24

সর্বশেষ

  • তথ্য প্রযুক্তি আইনের মামলায় গ্রেপ্তার অভিনেত্রী নওশাবার জামিন

  • ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় জিয়া পরিবার জড়িত: প্রধানমন্ত্রী...

  • বঙ্গবন্ধু ‌এভিনিউয়ে নিহতদের প্রতি অস্থায়ী বেদিতে শ্রদ্ধা

  • সড়ক দুর্ঘটনা: গোপালগঞ্জে আলাদা স্থানে ৫ জনসহ সারা দেশে নিহত ১২

  • সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যে উদযাপিত হচ্ছে ঈদুল আজহা

  • ঈদযাত্রায় সড়ক, রেল ও নৌপথে মানুষের উপচেপড়া ভিড়...

  • যানবাহন সংকটে যাত্রীদের ভোগান্তি; দেরিতে ছাড়ছে বেশিরভাগ ট্রেন

  • ঈদযাত্রা ভোগান্তিহীন ও নিরাপদ করতে ব্যর্থ সড়ক পরিবহনমন্ত্রী: রিজভী

  • পশুর হাটে চাঁদাবাজি বন্ধে তৎপর আইনশৃঙ্খলা বাহিনী: ডিএমপি

রোহিঙ্গা নিপীড়ন বন্ধে সু চির প্রতি আহ্বান ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

রোহিঙ্গা নিপীড়ন বন্ধে সু চির প্রতি আহ্বান ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

রোহিঙ্গা নিপীড়ন বন্ধে অং সান সু চির প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন। মিয়ানমারের রাজধানী নেপিদোতে সু চির সাথে বৈঠকে, বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া ১০ লাখ রোহিঙ্গাকে দ্রুত ফেরতের তাগিদ দেন তিনি। এদিকে, রাখাইনের ইনদিন গ্রামে, রোহিঙ্গা হত্যার অভিযোগে ৭ সেনাসহ মোট ১৬ জনের বিচার শুরু করেছে সু চি সরকার। 

 

গেল বছরের আগস্ট থেকে রাখাইনের কয়েকশ গ্রামে, রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় রাখাইনে চলে, রোহিঙ্গা হত্যাযজ্ঞ। প্রাণ হারান ৭ হাজারের বেশি রোহিঙ্গা। জাতিসংঘ'সহ মানবাধিকার কর্মিরা একে তুলনা করেছেন, জাতিগত নিধন হিসেবে। 

রোববার, সচক্ষে সেই রাখাইনে গেলেন, ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন। কথা বলেন, রাখাইন অ্যাডভাইজরি কমিশনের প্রধানের সঙ্গেও। 

এর আগে, দুপুরে দেশটির স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চির সঙ্গে বৈঠকে রোহিঙ্গা নিপীড়ন বন্ধের আহ্বান জানান, ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী। গণহত্যার ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের উদ্যোগ নিতে বলেন, সু চি সরকারকে। একইসঙ্গে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের দ্রুত ফেরত নেয়ারও দাবি জানান, লন্ডনের এই সাবেক মেয়র। 

ভ্যাটিকানে এক সম্মেলনে অংশ নিয়ে, মিয়ানমারের খ্রিষ্টান ধর্মীয় গুরু চার্লস বো অভিযোগ করেছেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন খুব একটা সহজ হবে না।  

<চার্লস বো, খ্রিষ্টান ধর্মীয় গুরু, মিয়ানমার>

আমার মনে হয় না, রোহিঙ্গারা যেভাবে নির্যাতিত হয়েছে, এতে করে কেউ আর বাংলাদেশ থেকে এখানে ফিরবে। কারন এখানে ফিরলে তারা আবারও কট্টর বৌদ্ধদের চক্ষুশুলে পরিণত হতে পারে। নাগরিকত্ব বঞ্চিত ২০ লাখ রোহিঙ্গার অবস্থা অনেকটা রাষ্ট্রহীন। তাই, বাংলাদেশ কিংবা মিয়ানমারের একার পক্ষে এই সংকট নিরসন কঠিন। 

এদিকে, রাখাইনের ইনদিন গ্রামে, নিরপরাধ ১০ রোহিঙ্গাকে হত্যার পর মাটিচাপা দেয়ার ঘটনায়, সেনাসহ মোট ১৬ জনের বিচার শুরু করেছে সু চি সরকার। মিয়ানমার সরকারের মুখপাত্র জ্য তে'র বরাত দিয়ে রয়টার্স জানায়, রোহিঙ্গা গণহত্যায় সেনাবাহিনীর তদন্তেই উঠে এসেছে এদের নাম। হত্যাকান্ডে সম্পৃক্ততার দায়ে আটকও হয়েছেন ৭ সেনা, ৪ পুলিশ এবং ঐ গ্রামের ৬ বৌদ্ধ।

ঐ গ্রামের গণহত্যার ঘটনা অনুসন্ধানের দায়ে কারাবন্দি রয়টার্সের দুই সাংবাদিক ওয়া লোন ও কিয়া সোয়ে ও। রয়টার্সের অভিযোগ, রোহিঙ্গা হত্যাযজ্ঞের কথা আড়াল করতেই রয়টার্সের দুই সাংবাদিককে আটক করা হয়েছে।    

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম বলছে, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে, ঢাকা-নেপিদো চুক্তির ৮০ দিন পার হলেও থেমেই নেই, বাংলাদেশমুখি রোহিঙ্গার ঢল। শনিবারও কক্সবাজারের ঢুকেছে, শতাধিক রোহিঙ্গা। আর নভেম্বরের পর থেকে বালাদেশে এসেছে ১০ হাজারের বেশি।

 

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর