রাখাইনে রোহিঙ্গা নিধনের পাশাপাশি গড়ে তোলা হচ্ছে নতুন অর্থনৈতিক অঞ্চল

রাখাইনে রোহিঙ্গা নিধনের পাশাপাশি চলছে নতুন নতুন অর্থনৈতিক অঞ্চল তৈরির কাজ। সহিংসতা কবলিত মংডুর একটি গ্রামে নির্মিত হচ্ছে 'বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল'। এতে বিনিয়োগকারীদের জন্য নামমাত্র মূল্যে ইজারা ও করমুক্ত সুবিধা রাখা হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রোহিঙ্গাদের ভিটে ছাড়া করায়; জমি অধিগ্রহণে তাদের ক্ষতিপূরণ দিতে হচ্ছে না। এই সুযোগ কাজে লাগাচ্ছে রাখাইন রাজ্য সরকার।

জ্বলছে রাখাইন; সন্ত্রাস দমনের নামে চলছে, নিরাপত্তা বাহিনীর রোহিঙ্গা নিধন। এর মাঝেই রাজ্যটির মংডু ও কিয়াপফু শহরে চলছে বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল তৈরির কাজ। মংডুতে মিয়ানমার সরকার আর কিয়াপফুর অর্থনৈতিক অঞ্চলে নির্মাণ করছে চীন।

মিয়ানমারের পত্রিকা 'ফ্রন্টিয়ার মিয়ানমার' বলছে, এ মাসেই মংডুর কানইন চ্যাঙ গ্রামে শুরু হচ্ছে, 'মংডু স্পেশাল ইকোনমিক জোন' তৈরির কাজ। পত্রিকাটির দাবি, বিশেষ ঐ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়তে 'নাফ রিভার গ্যালাক্সি ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট গ্রুপ' নামে একটি কোম্পানির সঙ্গে, রাখাইন রাজ্য সরকারের সমঝোতা স্মারক সই হবার কথা রয়েছে, ২৯ সেপ্টেম্বর। এছাড়া, নামমাত্র মূল্যে জমি ইজারা ও করমুক্ত সুবিধা রাখা হয়েছে বিনিয়োগকারীদের জন্য। বিশ্লেষকদের ইঙ্গিত, চীনা বিনিয়োগকারীরা জড়িত থাকতে পারেন, নাফ রিভার গ্যালাক্সি ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট গ্রুপের সঙ্গে।

রাখাইনের আরেক শহর কিয়াপফু। যেখানে ৪০০০ একর জমির উপর বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠা করতে চায়, চীন। সেখানকার তেল ও গ্যাস টার্মিনালেও অর্থায়ন করেছে চীনের পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন। জমি অধিগ্রহনকালে মূল্য পরিশোধ না করারও অভিযোগ রয়েছে।

মিয়ানমারের পত্রিকা ফ্রন্টিয়ার বলছে, ৫ সেপ্টেম্বর দেশটির বিনিয়োগ এবং কোম্পানি পরিচালকের দপ্তরে নিবন্ধন করেছে, গ্যালাক্সি ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট গ্রুপ। বলা হচ্ছে, মংডু ও ইয়াঙ্গুনের মোট ৭ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সমন্বিত গ্রুপ। অবশ্য কারা এতে যুক্ত তা প্রকাশ করেনি সুচি সরকার। পত্রিকাটির দাবি,  মংডুর ব্যবসায়ি নেতাদের সাথে কয়েক দফা অনানুষ্ঠানিক বৈঠকও করেছে সুচি সরকার।




চ্যানেল 24

387 South, Tejgaon I/A
Dhaka-1208, Bangladesh
Email: newsroom@channel24bd.tv
Tel: +8802 550 29724
Fax: +8802 550 19709

Save

Save

Like us on Facebook
Satellite Parameters
Webmail

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save