channel 24

সর্বশেষ

  • বিচারপতিদের শপথ ভিডিও কনফারেন্সিংয়ে; ফুল কোর্ট সভা বাতিল

  • লিবিয়ায় নিহত ২৬ বাংলাদেশির মধ্যে ২৩ জনের পরিচয় মিলেছে

  • 'আদালতের অনুমতি ছাড়া মোরশেদ খানের বিদেশ যাওয়া আইন সিদ্ধ হয়নি'

  • ছেলে সন্তানের বাবা হয়েছেন আশরাফুল

  • শ্বেতাঙ্গ পুলিশের নৃশংসতায় ৯ রাজ্যে বিক্ষোভ; ৪ পুলিশ অফিসার বরখাস্ত

  • মাটিতে পুঁতে রাখার ১১ মাস পর ব্যবসায়ীর মরদেহ উদ্ধার

  • মাঠে গড়ানোর অপেক্ষায় ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ ও সিরি আ

  • সোমবার থেকে চলবে গণপরিবহন, রোববার নৌযান

  • জন্মের মাত্র একদিনের মাথায় প্রাণঘাতী করোনার সাথে যুদ্ধ

  • লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশিসহ ৩০ জনকে গুলি করে হত্যা, আহত ১১

  • কর্মস্থলে যোগ দিতে চট্টগ্রামে ফিরছে মানুষজন

  • পার্বত্য জেলাগুলোতে সেনাবাহিনীর খাদ্য সহায়তা অব্যাহত

  • করোনা চিকিৎসায় চট্টগ্রামের বেসরকারি হাসপাতালগুলো পুরোপুরি তৎপর নয়

  • কুষ্টিয়ায় করোনা রোগীদের সেবায় একদল স্বেচ্ছাসেবী

  • চট্টগ্রামে নতুন করে ২‘শ ২৯ জন করোনায় আক্রান্ত

মুখ থুবড়ে পড়েছে কাশ্মীরের আপেল রপ্তানি

মুখ থুবড়ে পড়েছে কাশ্মীরের আপেল রপ্তানি

কাশ্মীরের আপেলের খ্যাতি রয়েছে বিশ্বজুড়ে। কিন্তু মুখ থুবড়ে পড়েছে আপেল রপ্তানি। মূলত কেন্দ্র কর্তৃক আরোপিত অবরোধের পর থেকেই আপেল ব্যবসার এ খারাপ অবস্থা। কাজের জন্য শ্রমিক পাওয়া যাচ্ছে না। ব্যবসায়ী এবং গাড়ির চালকেরা অবরোধের কারণে বাইরে বের হতে ভয় পাচ্ছে। আপেল পিকারদের স্বল্পতার কারণে অর্ধেকেরও বেশি আপেল পঁচে গেছে।

৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের পর আড়াই মাস ধরেই অবরুদ্ধ ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীর। সীমান্তে প্রায়ই ঘটছে পাক-ভারত সেনাদের গোলাগুলি। দক্ষিণ সোপিয়ানে গোলাগুলিতে প্রাণ হারান এক আপেল ব্যবসায়ী ও এক শ্রমিক।

কাশ্মীরের আপেলের খ্যাতি রয়েছে বিশ্বজুড়ে। তবে উপত্যকায় টানা অবরোধ আর ১৪৪ ধারায় চরম বিপাকে এ খাতের ব্যবসায়ীরা। এই যেমন, জামশেদ আহমেদ। টানা জরুরি অবস্থায় মুখ থুবড়ে পড়েছে কাশ্মীরের আপেল রপ্তানি।

আপেল বাগান মালিক জামশেদ আহমেদ বলেন, কোন শ্রমিক পাওয়া যাচ্ছে না। তার ওপর আপেল রপ্তানির জন্য পর্যাপ্ত গাড়ি নেই। অল্প কয়েকজন চালক যাদের ব্যক্তিগত গাড়ি রয়েছে তারাও বের হতে সাহস পাচ্ছে না। মানুষজন স্বাধীনভাবে চলাচল করতে পারে না।

আপেল ব্যবসায়ী শিরাজ আহমাদ বলেন, প্রায় তিন মাস হতে চললো। ঘর থেকেই বের হতে পারছি না। প্রায় এক মাস দেরি করে চাষাবাদ শুরু করতে হয়েছে।

আপেল বাগান মালিকরা বলছেন, পন্য পরিবহনের অভাবে লোকসানের পরিমাণ কয়েক গুন বৃদ্ধি পেয়েছে।

সরকারি কর্মকর্তা অশুল মিত্তাল বলেন, দুটো ট্রাককে যেতে দিয়েছি। অল্প সংখ্যক বিক্রেতা ও উৎপাদনকারী ফলের বাজারে এসেছেন। গড়ে দিনে ১০ জন বিক্রেতা ও উৎপাদনকারী বাজারে আসছেন।

বলা হচ্ছে, উপত্যকায় এ বছর ১.৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের আপেল বিক্রির কথা থাকলেও, এ পর্যন্ত বিক্রি হয়েছে মাত্র ৩ লাখ ডলারের আপেল। ৪ টি পাইকারি বাজার চালু রেখে আপেল ব্যবসায়ীদের সহায়তার চেষ্টা করছে কাশ্মীর প্রশাসন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর