channel 24

সর্বশেষ

  • ছাত্রলীগের এমন ঘটনা বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য লজ্জার: ভিপি নুর

  • জঙ্গিবাদ-মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রাখার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

  • শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে শোভন-রাব্বানীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা: কাদের

  • ছাত্রলীগের ভাবমূর্তি নষ্ট হলে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায়...

  • পুনরুদ্ধারে কাজ করার অঙ্গীকার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের

  • আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের জন্য সতর্কবার্তা: শেখ সেলিম

  • ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী এমন সিদ্ধান্ত: ঢাবি উপাচার্য

  • পুলিশের সেবা নিতে গিয়ে কেউ যেন হয়রানি না হয়: ডিএমপি কমিশনার

  • রংপুর-৩ উপনির্বাচনে প্রার্থিতা নিয়ে আওয়ামী লীগের সাথে...

  • আলোচনা হয়েছে, কালকের মধ্যে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত: রাঙ্গা

  • ৩ মাসের মধ্যে পুঁজিবাজারে নিবন্ধিত হতে হবে সব বিমা কোম্পানিকে...

  • অর্থমন্ত্রীর সাথে বৈঠক শেষে আইডিআরএ চেয়ারম্যান

  • ঋণ পুনঃতফসিলীকরণ নিয়ে টিআইবির বিবৃতিতে কোম্পানির ভাবমূর্তি...

  • ক্ষুণ্ন হওয়ায় প্রতিবাদ জানিয়েছে বেক্সিমকো গ্রুপ

ফরাসি প্রেসিডেন্টের সামনে টেবিলে পা তুলে সমালোচনায় ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী

ফরাসি প্রেসিডেন্টের সামনে টেবিলে পা তুলে সমালোচনায় ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী

ফরাসি প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোর সাথে প্যারিসে আলোচনার সময় টেবিলের উপর পা রাখা ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের একটি ছবি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঝড় তুলেছে।

একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে যে জনসন তার হোস্ট ফরাসী প্রেসিডেন্টের একটি কৌতুকের জবাব দিচ্ছিলেন বিবিসির খবর বলছে- এ সময় তিনি  ম্যাক্রোর সঙ্গে মজা করছিলেন।

কিন্তু দুই দেশেরই লোকজন বলছেন যে, পা উঠিয়ে কথা বলার মাধ্যমে ম্যাক্রোকে তাচ্ছিল্য করেছেন বরিস জনসন।

এক ব্রিটিশ নাগরিক বলেন, আচার-আচরণে বরিস জনসন ভালো না। ভেবে দেখেন, যদি বিদেশি কোনো প্রধানমন্ত্রী বাকিংহাম প্রাসাদে এসে এমন আচরণ করতেন, তখন ব্রিটিশ ট্যাবলয়েডগুলো কতটা ক্ষোভ প্রকাশ করত।

অন্য আরেকজন বলেন, এটনে তারা পরিষ্কারভাবে কোনো ভালো ব্যবহার শিক্ষা দিচ্ছেন না। এক ফরাসি বলেন, আমি অবাক হই- ব্রিটিশ রানি এটি কীভাবে নেবেন।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের সাথে বৈঠকের পর ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রো বলেন, চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিট হলেও যুক্তরাজ্যের সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রাখতে চায় ফ্রান্স।

ম্যাক্রো জানান, ৩১ অক্টোবরে ব্রেক্সিট কার্যকরের জন্য প্রস্তুত ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। ব্রেক্সিটের ক্ষেত্রে আয়ারল্যান্ডের মানুষের স্বার্থরক্ষা ইস্যুকেই গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে বলে দাবি করেন ম্যাক্রো।

এর আগে জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মার্কেলের সাথে বৈঠক করেন বরিস জনসন। দুই বৈঠকেই ব্রেক্সিট চুক্তি নিয়ে আবারো আলোচনা শুরুর আহ্বান জানান তিনি। আয়ারল্যান্ডে সাথে সীমান্ত উন্মুক্ত রাখার কৌশল বা ব্যাকস্টপ ব্যবস্থার বিপক্ষে নিজের অবস্থানও তুলে ধরেন জসমন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর