channel 24

সর্বশেষ

  • সেবার মনোভাব না থাকায় কমিউনিটি ক্লিনিক বন্ধ করেছিল বিএনপি...

  • স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতে ও নার্সিং পেশার মর্যাদা বাড়াতে কাজ করছে সরকার...

  • শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব নার্সিং কলেজের স্নাতক সমাপনীতে প্রধানমন্ত্রী...

  • পেশাদারিত্বের সাথে দায়িত্ব পালনে নবীন নার্সদের প্রতি আহবান

  • রোহিঙ্গা ইস্যুতে জাতিসংঘে নিজেদের অবস্থান তুলে ধরবে বাংলাদেশ: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • ডেঙ্গুতে গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি ৫৩৬ জন: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

  • ডেঙ্গু মোকাবিলায় ৫ বছর মেয়াদি প্রকল্প নিচ্ছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি...

  • সব ধরনের কারিগরি সহায়তা দেবে সিঙ্গাপুর: সাঈদ খোকন

  • দুর্নীতির সব রেকর্ড ভঙ্গ করেছে সরকার: মওদুদ

  • রাঙ্গামাটিতে জেএসএস এমএন লারমার ২ সমর্থককে গুলি করে হত্যা

  • বিকালে জাবি উপাচার্যের সাথে আন্দোলনকারীদের বৈঠক

  • র‍্যাবের সাথে 'বন্দুকযুদ্ধে' নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুরে ২ জন নিহত

  • সড়ক দুর্ঘটনায় কিশোরগঞ্জে ২, পটুয়াখালীতে ২ ও মাদারীপুরে ২ জন নিহত

  • রাঙ্গামাটিতে জেএসএস এমএন লারমার ২ সমর্থককে গুলি করে হত্যা

  • আজাদ কাশ্মীরও নিয়ন্ত্রণে নেবে ভারত: জয়শংকর; পাকিস্তানের নিন্দা

  • ত্রিদেশীয় টি টোয়েন্টি: চট্টগ্রামে মুখোমুখি বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে (সন্ধ্যা ৬:৩০)

বাড়ি ফিরতে চায় হোদা মুতানা

বাড়ি ফিরতে চায় হোদা মুতানা

হোদা মুতানা। জন্ম মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। যোগ দিয়েছিলেন জঙ্গি সংগঠন আইএসআইএস’এ। এখন থাকছেন উত্তর সিরিয়ার একটি ক্যাম্পে। যিনি এখন যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে যেতে চান।

মার্কিন গণমাধ্যম ফক্স নিউজ তাকে সেই ক্যাম্প থেকে খুঁজে বের করেছে। ফক্স নিউজকে হোদা মুতানা জানান, 'আমি বাড়ি ফিরে যেতে চাই। আমি আমার পরিবারকে দেখতে চাই। সিরিয়া নিরাপদ না। আমার সরকার যা বলবে আমি তাই করবো।'

কিন্তু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বলছে, হোদা মুতানা তাদের নাগরিক নয়। যুক্তরাষ্ট্রে যখন তার জন্ম হয়, তখন তারা বাবা ইয়েমেনি কূটনীতিক ছিলো।’ যদিও মুতানার আইনজীবী এই বিষয়ে আইনী লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী এরই মধ্যে জানিয়ে দিয়েছেন তারা মুতানাকে স্বাগত জানাবে না। ডোনাল্ড ট্রাম্প ফেব্রুয়ারিতে এক টুইটে জানান, তিনি তার পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে নির্দেশনা দিয়েছেন হুদা মুতানাকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে যেন অনুমতি না দেয়া হয়।

মুতানা আইএসআইএস’র মুখপাত্র হিসেবে কাজ করেছিলেন এবং তিনি যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক হত্যার আহ্বান জানিয়েছিলেন।
যদিও  মুতানা দাবি করেছেন, আইএসআইএস তার টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক করেছিলো। এবং সেখান থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে বিভিন্ন কথা বলা হতো।

তবে এখন মুতানা আধুনিক মানুষ হতে চায়। ফক্স নিউজকে সে জানায়, সিরিয়ায় আসার আগে সে কোনো অপরাধ করেনি এবং ফিরে যেতে পারলে ভবিষ্যতে আর কোনো অপরাধ করবে না। 

সে স্বীকার করে বলে, ইতিহাসের সবচেয়ে বর্বরতম জঙ্গি সংগঠনের সাথে সে যুক্ত হয়েছিলো। তার ব্রেন ওয়াশ করা হয়েছিলো। মুতানা জানায় সে যুক্তরাষ্ট্রকে ঘৃণা করে না।

মুতানার জন্ম যুক্তরাষ্ট্রের নিউ জার্সিতে। সে অনলাইনের মাধ্যমে মৌলবাদী হয়। ১৯ বছর বয়সে আইএসআইএস’এ যোগ দিতে প্রথমে সে বিমানে করে তুরস্কে যায়। সেখান থেকে সীমান্ত পার হয়ে সিরিয়ায় প্রবেশ করে। সেখান থেকে মুতানা তার পরিবারকে জানায় সে জঙ্গি সংগঠনের সাথে আছে।

রাকা যখন আইএসআইএস’র এর রাজধানী ছিলো তখন তাকে আটক করা হয়। তার বিয়ে না হওয়া পর্যন্ত আটকে রাখা হয়। তার প্রথম স্বামী ছিলো সুহান রহমান, যে অস্ট্রেলিয়ার যোদ্ধা হিসেবে পরিচিত ছিলো। এরপর তার একাধিক বিয়ে হয়। তবে সব স্বামী মারা গেছে। 
এখন তারা ১৯ মাস বয়সী এক সন্তান আছে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর