channel 24

ব্রেকিং নিউজ

  • রাজধানীর চকবাজারে একটি ভবনে আগুন...

  • নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ৩৭টি ইউনিট...

  • নিহত অন্তত ৬২; দগ্ধ ১৬ জনসহ আহত অর্ধশতাধিক...

  • আশপাশের লোকজনকে নিরাপদে সরিয়ে নেয়া হয়েছে

মধ্যপ্রাচ্য ও আফগান যুদ্ধের ইতি টানার ইঙ্গিত ট্রাম্পের

মধ্যপ্রাচ্য ও আফগান যুদ্ধের ইতি টানার ইঙ্গিত ট্রাম্পের

মধ্যপ্রাচ্য ও আফগান যুদ্ধের ইতি টানার ইঙ্গিত দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

দায়িত্ব নেয়ার পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দ্বিতীয় স্টেট অব দ্য ইউনিয়ন ভাষণ। যুক্তরাষ্ট্রে টানা ৩৫ দিনের অচলাবস্থা নিয়ে ডেমোক্রেটদের সঙ্গে দফায় দফায় আলোচনা ব্যর্থ হও্য়ায় ব্যাপক আলোচনা ছিলো এ ভাষণ ঘিরে।

আরও: রক্তনালীর ব্লকে সঠিক চিকিৎসার অভাবে অঙ্গহানি হচ্ছে অনেকের

রাত জাগা এবং বেশি রাতে খাবারের অভ্যাস ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ায়

রিমোট নয়, মস্তিষ্ক চালাবে টিভি!

অবশ্য যে অভিবাসী ইস্যু নিয়ে ডেমোক্রেটদের সঙ্গে তার বিরোধ, তা নিয়ে নিজ যুক্তিতে অনঢ় ট্রাম্প। মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণে দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে কংগ্রেসের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। 

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, অবৈধ অভিবাসীদের থামানোর এখনই সময়। এইসব নিষ্ঠুর নেকড়ে, মাদক ব্যবসায়ী এবং মানব পাচারকারীদের তৎপরতা থামাতে এখনই সিদ্ধান্ত নিতে হবে। এদের কারণে আমেরিকার শ্রমজীবীদের কাজের সুযোগ এবং মজুরি কমে যাচ্ছে হুমকির মুখে সামাজিক সুরক্ষা বেষ্টনি।

তিনি দাবি করেন তার দুবছরে যুক্তরাষ্ট্রে অভূতপূর্ব অর্থনৈতিক উন্নয়ন হয়েছে। মার্কিন নির্বাচনে কথিত রুশ হস্তক্ষেপের ঘটনার তদন্ত অর্থনীতিকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে-এমন সতর্কতাও দেন ট্রাম্প।

ট্রাম্প বলেন, তিনি প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত না হলে এতদিনে উত্তর কোরিয়ার সাথে বড় ধরনের যুদ্ধে জড়াতো যুক্তরাষ্ট্র। ইরাক সিরিয়ার ২০ হাজার বর্গমাইল এলাকা থেকে আইএসকে হটানোর কৃতিত্ব তার। ইরাক-সিরিয়া ও আফগানে অভিযানের আনুষ্ঠানিক ইতি টানারও ইঙ্গিত দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।  

তিনি বলেন, '১৯ বছর ধরেই মধ্যপ্রাচ্যে লড়াইয়ে মার্কিন সেনারা। আফগান ও ইরাকে প্রাণ গেছে ৭ হাজার যোদ্ধার। এ লড়াইয়ে কেবল মধ্যপ্রাচ্যেই যুক্তরাষ্ট্রের ব্যয় হয়েছে ৭ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার। আগেও বলেছি, কোন জাতি এভাবে অপ্রয়োজনীয় যুদ্ধ চালিয়ে যেতে পারে না।'

বিভাজন ভুলে ঐক্যবদ্ধ আমেরিকা গড়ে তোলারও আহ্বান জানান তিনি। বলেন, প্রতিশোধ ও বিরোধিতার রাজনীতি অবশ্যই প্রত্যাখান করতে হবে। সবার জন্য কল্যাণকর হয় এমন কাজে সহযোগিতা ও ছাড় দেয়ার মানসিকতা থাকতে হবে। 

৮২ মিনিটের এ ভাষণে অভ্যন্তরীণ রাজনীতি, অর্থনীতি ও পররাষ্ট্রনীতি নিয়েও নতুন পরিকল্পনা তুলে ধরেন রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট। ট্রাম্প জানান, উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সঙ্গে ২৭ বা ২৮ ফেব্রুয়ারি ভিয়েতনামে বৈঠক করবেন তিনি।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর