channel 24

সর্বশেষ

  • ঢাকা উত্তর সিটির মেয়র পদে উপনির্বাচন ২৮ ফেব্রুয়ারি...

  • কিশোরগঞ্জ-১ সংসদীয় আসনে উপনির্বাচন ২৮ ফেব্রুয়ারি...

  • দুই সিটির নতুন ৩৬টি ওয়ার্ডে একই দিন নির্বাচন: ইসি সচিব...

  • প্রথম দফা উপজেলা নির্বাচনে ভোট ৮ বা ৯ মার্চ...

  • সংসদে সংরক্ষিত নারী আসনে নির্বাচনের তফসিল ৩ ফেব্রুয়ারি

  • তথ্য ফাঁসের অভিযোগে দুদক পরিচালক ফজলুল হক বরখাস্ত...

  • অবৈধ সম্পদ অর্জন: মোসাদ্দেক আলী ফালুর বিরুদ্ধে চার্জশিট অনুমোদন...

  • দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযান চলবে: দুদক চেয়ারম্যান

  • চলমান প্রকল্পের কাজ নির্ধারিত সময়ে শেষ করতে...

  • নজরদারি বাড়াতে হবে: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

খাশোগির হত্যাকাণ্ডের প্রমাণ রয়েছে তুরস্কের কাছে: এরদোয়ান

খাশোগির হত্যাকাণ্ডের প্রমাণ রয়েছে তুরস্কের কাছে: এরদোয়ান

খাশোগির হত্যাকাণ্ড পূর্ব পরিকল্পিত। এর প্রমাণ রয়েছে তুরস্কের কাছে। পার্লামেন্টে দেয়া ভাষণে এমনটা দাবি করেছেন, তুরস্কের প্রেসিডেন্ট।

মরদেহ কোথায় এবং কে এ হত্যার নির্দেশনা দিয়েছে, তা সৌদিকেই স্পষ্ট করতে বলেন তিনি। সৌদিতে আটক ১৮ জনকে তুরস্কে এনে বিচারেরও ঘোষণা দেন এরদোয়ান। এদিকে রয়টার্স বলছে, স্কাইপে জামাল খাশোগিকে হত্যার নির্দেশ দিয়েছিলেন, সৌদি যুবরাজের ঘনিষ্ঠ সহযোগী সৌদ আল-কাহতানি।

গেল ২ অক্টোবর, ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটে গিয়ে নিখোঁজ হন, সাংবাদিক জামাল খাশোগি। গণমাধ্যমে খবর বের হয়, কনস্যুলেটের ভেতরেই খুন করা হয়েছে খাশোগিকে। আন্তর্জাতিক অব্যাহত চাপের মুখে সৌদি আরব খুনের কথা স্বীকার করলেও দাবি করে, জিজ্ঞাসাবাদের সময় দুর্ঘটনাবশত মৃত্যু হয়েছে তার।

এমন পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার তুরস্কের পার্লামেন্টে দেয়া ভাষণে দেশটির প্রেসিডেন্ট বলেন, সাংবাদিক খাশোগিকে পরিকল্পিতভাবে খুন করা হয়েছে। গত ২৮ সেপ্টেম্বর খাশোগি যখন প্রথমবার কনস্যুলেটে যান, তখনই তাকে হত্যার ছক কষা হয়।   

ভিয়েনা সনদ এবং আন্তর্জাতিক আইন কোনোটাই এ বর্বর হত্যাকাণ্ড সমর্থন করে না। খাশোগির মরদেহ কোথায় এবং কে তাকে হত্যার নির্দেশ দিয়েছে- সৌদিকে তার জবাব দিতে হবে। বাদশাহ সালমানের প্রতি আস্থার ঘাটতি নেই, তবে এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে, হত্যাকাণ্ডে জড়িত ১৮ সৌদি নাগরিককে তুরস্কে এনে বিচার করতে চাই।

রিয়াদে বিনিয়োগ সম্মেলনে খাশোগি হত্যার সুষ্ঠু তদন্তের আশ্বাস দিয়েছে সৌদি সরকার। উদ্বোধনী আয়োজনে ছিলেন না যুবরাজ মোহাম্মদ। এছাড়াও যোগ দেয়নি অনেক পশ্চিমা কোম্পানি।

কঠিন সময় পার করছে সৌদি আরব। তুরস্কে যে জঘন্য ও নির্মম হত্যাকাণ্ড ঘটেছে, তা অপ্রত্যাশিত। এ ঘটনার তদন্ত এবং ন্যায়বিচারের নিশ্চয়তা দিয়েছেন সৌদি বাদশাহ।

রয়টার্স বলছে, স্কাইপে জামাল খাশোগিকে হত্যার নির্দেশ দিয়েছিলেন, সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদের ঘনিষ্ঠ সহযোগী সৌদ আল-কাহতানি। তুর্কি দৈনিক ইয়েনি সাফাক বলছে, হত্যার দিন কনস্যুলেট থেকে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদের অফিসে ৪ বার ফোন করা হয়। আর তুর্কি টিভি চ্যানেল A News বলছে, খাশোগি নিখোঁজের পরদিন কনস্যুলেটে বেশ কিছু কাগজপত্র পোড়ানো হয়।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর