channel 24

সর্বশেষ

  • নয়াপল্টনে বিএনপি নেতাকর্মীদের সাথে পুলিশের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া...

  • ইটপাটকেল-টিয়ারশেল নিক্ষেপ; পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর ও আগুন

নাইন ইলেভেন হামলার ১৭ বছর পূর্তি আজ

নাইন ইলেভেন হামলার ১৭ বছর পূর্তি আজ

পৃথিবীকে বদলে দেয়া, যুক্তরাষ্ট্রের ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার ১৭ বছর আজ। ২০০১ সালের এই দিনে, টুইন টাওয়ারে আছড়ে পড়ে ছিনতাই করা দুটি বিমান। প্রাণ হারান প্রায় ৩ হাজার মানুষ; আহত হন আরো ৬ হাজার। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নাইন ইলেভেন হামলার পর শুরু হওয়া যুক্তরাষ্ট্রের ওয়ার অন টেরর নীতি আজ প্রশ্নবিদ্ধ। জঙ্গিরা এখনও নির্মূল হয়নি বরং ঘরে বাইরে শত্রু বেড়েছে যুক্তরাষ্ট্রের।

হলিউডের অ্যাকশন মুভির মতই মুহুর্তেই বিমান আছড়ে পড়ল, যুক্তরাষ্ট্রের গর্বখ্যাত সুউচ্চ টুইট টাওয়ারে।

১৭ বছর আগের ভয়াবহ এ হামলায় প্রাণ হারান প্রায় ৩ হাজার মানুষ; আহত হন আরো ৬ হাজার। এর পর থেকেই পাল্টাতে শুরু করে বিশ্ব রাজনীতির চিত্র।

তাৎক্ষনাৎ আল কায়েদা নেতা ওসামা বিন লাদেনকে দায়ি করে, আফগানিস্তানে অভিযানের সিদ্ধান্ত নেন তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ। শুরু হয় সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধ।

২০০৩ এ গণবিধ্বংসী মারণাস্ত্র রাখার অজুহাতে অভিযান চালানো হয় ইরাকে। খোদ সাবেক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টনি ব্লেয়ারও স্বীকার করেন ইরাক অভিযান ছিলো ভুল সিদ্ধান্ত। শুধু তাই নয় ২০১৪ সালে মধ্যপ্রাচ্যজুড়ে মাথাচড়া দিয়ে ওঠে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস।

বলা হচ্ছে, নাইন ইলেভেন হামলার কারণে সামরিক ও নিরাপত্তা খাতে বিনিয়োগ বাড়িয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।  

ইউএস ফরেন অ্যাফেয়ার্সের এডিটর গিডিয়ন রোজ বলেন, 'নাইন ইলেভেন হামলা নাটকীয়ভাবে মার্কিন পররাষ্ট্রনীতিকেই বদলে দিয়েছে। প্রথমত, ১৭ বছর আগেই কট্টর ইসলামিক জঙ্গিবাদি তৎপরতাকে নির্মূল করাকে মার্কিন পররাষ্ট্রনীতির অন্যতম এজেন্ডা ঘোষণা করা হয়। দ্বিতীয়ত আফগান-ইরাক অভিযানের মধ্য দিয়ে মার্কিন শক্তিমত্তার প্রদর্শন হয়। তবে, দেড় দশক পরও রয়ে গেছে সেই হুমকি। এখন ঘরে বাইরে নানা চ্যালেঞ্জের মুখে যুক্তরাষ্ট্র।'

নাইন ইলেভেন ঘটনার তদন্ত কমিশনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, টুইন টাওয়ারে হামলায় জড়িত সন্ত্রাসীদের সঙ্গে সাবেক সৌদি রাষ্ট্রদূত প্রিন্স বান্দারের যোগসূত্র ছিলো। ছিনতাইকারী ১৯ জনের ১৫ জনই সৌদি। ঘটনায় ক্ষতিপূরণ চেয়ে সৌদি কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে মামলা করেছে, হতাহতদের স্বজনরা।

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর