channel 24

সর্বশেষ

  • শ্রীলঙ্কা ট্র্যাজেডি: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৫৯; আটক ৫৮...

  • নিরাপত্তা ব্যবস্থা ঢেলে সাজানো হবে: প্রেসিডেন্ট...

  • ক্রাইস্টচার্চের ঘটনার প্রতিশোধ নিতেই শ্রীলঙ্কায় হামলা...

  • এমন কোনো গোয়েন্দা তথ্য ছিল না: নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী...

  • শেখ সেলিমের নাতি জায়ানের মরদেহবাহী বিমান ঢাকায় পৌঁছাবে...

  • দুপুর ১:১০ মিনিটে; বাদ আসর বনানী চেয়ারম্যান বাড়ি মাঠে জানাজা

  • মানবতাবিরোধী অপরাধ: নেত্রকোণার সোহরাব ফকিরসহ ২ জনের মৃত্যুদণ্ড..

  • একাত্তরের গণহত্যার স্বীকৃতি দিতে বিশ্বসম্প্রদায়ের প্রতি...

  • আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের আহবান

  • পাবনায় ৩ পুলিশ হত্যা মামলায় ৮ জনের যাবজ্জীবন; খালাস ৩

  • রাজধানীর নিউমার্কেট মোড়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত...

  • সাত কলেজ শিক্ষার্থীদের আজও অবস্থান; যান চলাচল বন্ধ

  • চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া যত্রতত্র অ্যান্টিবায়োটিক বিক্রি বন্ধ চেয়ে রিট

শরীরে ক্যান্সার আছে কিনা জানা যাবে ১০ মিনিটে

শরীরে ক্যান্সার আছে কিনা জানা যাবে ১০ মিনিটে

প্রাথমিক অবস্থায় সহজে ধরা পড়ে না ক্যান্সার। তাই এতে মৃত্যুর হারও অনেক বেশি। তবে, কুইন্সল্যান্ডের একদল গবেষকের দাবি, মাত্র ১০ মিনিটে জানা যাবে, কারো শরীরে ক্যান্সার বাসা বেঁধেছে কিনা। যাদের অন্যতম বাংলাদেশি গবেষক ড. আবু সিনা। জানালেন, কয়েক বছরের মধ্যেই এটি সহজলভ্য হবে।

সব প্রাণীর শরীর অসংখ্য ছোট ছোট কোষের মাধ্যমে তৈরী। এই কোষগুলো নির্দিষ্ট সময় পর মারা যায়। সেই জায়গা পূরণ করে নতুন কোষ। এই কোষগুলো যখন কোন কারণে অনিয়ন্ত্রিতভাবে বাড়তে থাকে তখনই ত্বকের নিচে দেখা যায় মাংসের দলা বা চাকা। যাকে টিউমার বলে। এই টিউমার হতে পারে বিনাইন বা ম্যালিগন্যান্ট। আর ম্যালিগন্যান্ট টিউমারকেই ক্যান্সার বলে।

ইন্টারন্যাশনাল এজেন্সি ফর রিসার্চ অন ক্যান্সার গবেষণা বলছে, এ বছর বিশ্বব্যাপী ক্যান্সারে মারা যেতে পারে ১ কোটি মানুষ। আক্রান্ত হতে পারে আরও ১ কোটি ৮১ লাখ।

বাংলাদেশে ক্যান্সার রোগীর সংখ্যা ১ লাখ ৫০ হাজারের বেশি। প্রাথমিক অবস্থায় ক্যান্সার রোগ সহজে ধরা পড়ে না। তাই এই রোগের মৃত্যুর হার অনেক বেশি।

তবে সম্প্রতি গবেষণার মাধ্যমে একটি পদ্ধতি আবিষ্কার করা হয়েছে, যেখানে প্রাথমিক পর্যায়ে ১০ মিনিটেই ক্যান্সার শনাক্ত করা সম্ভব। ফলে অনেক আগে থেকেই বোঝা যাবে কারো শরীরে ক্যান্সার দানা বাঁধছে কিনা। গবেষণাটি প্রকাশ হয়েছে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গণমাধ্যম এবং সাময়িকীতে। অস্ট্রেলিয়ার অধ্যাপক ম্যাক ট্রাউয়ের নেতৃত্বে এই গবেষণায় প্রধান ভূমিকা পালন করেন বাংলাদেশী গবেষক ডক্টর আবু সিনা।

অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ড ইউনিভার্সিটির রিসার্চ ফেলো আবু আলী ইবনে সিনার মতে, এটি ব্যবহার উপযোগী করতে প্রয়োজন আরো কিছু গবেষণা। যা হবে সহজলভ্য।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্বাস্থ্য খবর