channel 24

সর্বশেষ

  • মানবাধিকার কমিশনের নতুন চেয়ারম্যান নাছিমা বেগম

  • পুঁজিবাজারে ব্যাংকগুলোর বিনিয়োগ সামর্থ্য বাড়াতে...

  • সাময়িক তারল্য সুবিধা দিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রজ্ঞাপন

  • খুলনা জিআরপি থানার সাবেক ওসি উছমান গনিসহ...

  • ৫ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে আদালতে গণধর্ষণ মামলা দায়েরের আবেদন

  • ক্যাসিনো অবৈধ, কাউকে বেআইনি ব্যবসা করতে দেয়া হবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • অনিয়ম, দুর্নীতি রোধে ব্যর্থতায় সরকারের পদত্যাগ করা উচিত: ফখরুল

  • নাব্যতা সংকটে বন্ধ শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে ফেরি চলাচল

  • টেকনাফে পুলিশের সাথে কথিত বন্দুকযুদ্ধে রোহিঙ্গা দম্পতি নিহত

  • উগান্ডায় প্রশিক্ষণ নিতে যাওয়া কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অনেকেই প্রকল্প সংশ্লিষ্ট নন; অনিয়মে বারবারই অভিযুক্ত চট্টগ্রাম ওয়াসা।

  • দখল-দূষণে অস্তিত্ব সংকটে বেশিরভাগ নদী; দখলদারদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশ ও খননের দাবি পরিবেশবাদীদের।

  • গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু বিশ্ববিদ্যালয়ে চতুর্থ দিনের মতো আমরণ অনশনে শিক্ষার্থীরা; ভিসি পদত্যাগ না করা পর্যন্ত আন্দোলন চালানোর ঘোষণা

কাজ করছে না অ্যান্টিবায়োটিক!

কাজ করছে না অ্যান্টিবায়োটিক!

একবার ভাবুন তো ভান্ডারে সব অস্ত্র আছে কিন্তু একটিও কাজে আসছে না। অ্যান্টিবায়োটিকের অবস্থা এখন এমনি। যথেচ্ছ ব্যবহারে মানুষের শরীরে কাজ করছে না তা। রোগ সৃষ্টিকারী বিভিন্ন জীবাণু অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধী হয়ে পড়েছে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেলের আইসিইউতে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে ২৩ বছরের রুবেল। খুব জটিল কোনো রোগ নয়, সাধারণ নিউমোনিয়া।

কিন্তু এই অসুখই তাকে ঠেলে দিয়েছে মৃত্যুর মুখে। কেননা সংক্রমণ ঠেকাতে তার দেহে যে অ্যান্টিবায়োটিক প্রয়োগ করা হচ্ছে, কাজে আসছে না তার কোনোটিই।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ডা. এম এ হাবিব বলেন, 'এই রোগীটার ক্ষেত্রে আমরা ২০টি অ্যান্টিবায়োটিক কালচার করেছি। তাঁর মধ্যে ১৯টি অ্যান্টিবায়োটিক তাঁর রেসিস্টেন্স। একটি অ্যান্টিবায়োটিক তাঁর শরীরে কাজ করছে। তা থেকেও তাঁর শরীরে বিভিন্ন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হতে পারে।'

শুধু আইসিইউ, সিসিইউর রোগীরাই নয়, শিশু থেকে বৃদ্ধ সব বয়সি মানুষের শরীরেই এখন অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধী হয়ে উঠছে জীবাণু।

ঢাকা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. খান আবুল কালাম আজাদ বলেন, 'আমাদের দেশে ঔষধ অত্যন্ত সহজলভ্য এবং মুল্যমান অত্যন্ত কম। যার ফলে কোন ব্যাক্তি ঔষধের দোকানে গিয়ে নিজেও চাইতে পারেন অথবা তাঁর সমস্যার কথা বললে ঔষধের দোকানদার তাকে অ্যান্টিবায়োটিক দিয়ে দিচ্ছে।'

সরাসরি ওষুধ সেবন ছাড়াও, খাবারের মাধ্যমেও মানুষের শরীরে ঢুকছে অ্যান্টিবায়োটিক।

আইসিডিডিআর,বি'র জেষ্ঠ্য বিজ্ঞানী ড. মুনিরুল আলম বলেন, 'অ্যান্টিবায়োটিকের পলিসি খুব স্ট্রং করতে হবে। তা না হলে আপনি যত পাওয়ারফুল হননা কেন, ইউ উইল নট বি স্পেয়ারড।'

প্রেসক্রিপশন ছাড়া যতদিন না ওষুধ বিক্রি বন্ধ হবে, ততদিন অ্যান্টিবায়োটিকের অপব্যবহার ঠেকানো যাবে না বলে মনে করেন এই বিশেষজ্ঞরা।

বিশেষজ্ঞরা আরও বলেন, অ্যান্টিবায়োটিকের নির্বিচার ব্যবহারের লাগাম টেনে ধরতে হবে। না হলে মানুষ ফিরে যাবে অ্যান্টিবায়োটিক আবিস্কারের আগের সময়ে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্বাস্থ্য খবর