channel 24

সর্বশেষ

  • দুর্নীতি, টেন্ডারবাজ আর সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে শেখ হাসিনার অ্যাকশন শুরু: কাদের

  • জি কে শামীমকে থানায় হস্তান্তর; অস্ত্র, মাদক ও মানি লন্ডারিংয়ে মামলা...

  • অস্ত্র ও মাদক মামলায় ৭ দিন করে ১৪ দিনের রিমান্ড আবেদন

  • গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির পদত্যাগ দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়ে সহকারী প্রক্টর হুমায়ুন কবিরের পদত্যাগ

  • প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশেই দুর্নীতি ও অপকর্মের বিরুদ্ধে অভিযান চলছে...

  • তথ্য প্রমাণ পেলে শুধু সম্রাট নয়, কেউ ছাড় পাবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • আ.লীগের তৃণমূল থেকে উচ্চ পর্যায় দুর্নীতিতে নিমজ্জিত: ফখরুল

  • অস্ত্র ও মাদক আইনে গ্রেপ্তার কলাবাগান ক্লাবের সভাপতি...

  • সফিকুল ইসলাম ফিরোজের ২০ দিনের রিমান্ড আবেদন

  • ভিসির পদত্যাগ দাবি: গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা...

  • আন্দোলন ঘিরে বহিরাগতদের হামলায় আহত অন্তত ২০ শিক্ষার্থী

  • চট্টগ্রামে জিয়াদ হত্যা মামলার আসামি রাসেল 'বন্দুকযুদ্ধে' নিহত

  • ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেলে নারীর মৃত্যু...

  • গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি ৪০৮ জন: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

গর্ভধারণের ৩৯ সপ্তাহে সন্তান জন্মদান মা ও শিশুর জন্য ইতিবাচক: গবেষক

গর্ভধারণের ৩৯ সপ্তাহে সন্তান জন্মদান মা ও শিশুর জন্য ইতিবাচক: গবেষক

গর্ভধারণের ৩৯ সপ্তাহে সন্তান জন্মদান, মা ও শিশু দুজনের জন্যই ইতিবাচক। এতে সিজারের ঝুঁকি এড়িয়ে যেতে পারেন, প্রথমবার গর্ভধারণকারী মায়েরা। এক গবেষণায় এমন দাবি করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের একদল গবেষক। তবে, এতে ভিন্নমতও রয়েছে অনেক চিকিৎসকের। তাদের পরামর্শ, যেকোন সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে চিকিৎসকের সাথে আলোচনা করা উচিত মায়েদের।

বর্তমান সময়ে সন্তান জন্মদানে বাড়ছে সিজারের সংখ্যা। তবে ৩৯ সপ্তাহে ডেলিভারি করানো সম্ভব হলে, সিজার এড়িয়ে যেতে পারবেন প্রথমবার গর্ভধারণ করা নারীরা। এমনটাই দাবি যুক্তরাষ্ট্রের একদল চিকিৎসকের। ৪১টি হাসপাতালের ৬১ হাজার নারীর উপর গবেষণা চালিয়ে, এ তথ্য প্রকাশ করেছে, নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল অব মেডিসিন।

শিকাগোর নর্থওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটির ওবি-জিওয়াইএন বিশেষজ্ঞ ডা. উইলিয়াম গ্রবম্যান বলেন,
'বহু বছর ধরে ধারণা ছিলো, নির্দিষ্ট সময়ের আগে প্রসব ব্যথা হলে তা শিশুর জন্য খারাপ। আসলে এটি সত্য নয়।'

গবেষণা বলছে, ৩৯ সপ্তাহে শিশু পরিপূর্ণ হয়। এ সময়ে সন্তান জন্মদান সবচেয়ে কম ঝুঁকিপূর্ণ। কারণ এই সময়ে নারীদের মধ্যে সিজার কিংবা উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি কম থাকে। এছাড়া হাসপাতালেও কম সময় থাকতে হয়।

যারা ৩৯, ৪০, কিংবা ৪১ সপ্তাহের পর যত বেশি অপেক্ষা করা হবে, মা ও শিশুর স্বাস্থ্য ঝুঁকি তত বাড়বে।তবে অনেক চিকিৎসক বলছেন, শুধু একটি গবেষণা ফলের উপর ভিত্তি করে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত নয়। বরং কোনো জটিলতা দেখা দিলে চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া উচিত।

নিউইয়র্কের গায়নোকোলজিস্ট ডা. সিনথিয়া গিয়াম্পি-বানারম্যান বলেন, 'সব গর্ভবতী নারীর শারীরিক অবস্থা এক থাকে না। গর্ভাবস্থায় অনেকেরই শারীরিক নানা জটিলতা দেখা দেয়। এক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ নিহেত হবে।'

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্বাস্থ্য খবর