channel 24

সর্বশেষ

  • জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৩তম অধিবেশনে যোগ দিতে...

  • নিউইয়র্ক যাওয়ার পথে যাত্রাবিরতিতে লন্ডনে প্রধানমন্ত্রী

  • কক্সবাজারের উদ্দেশে সড়ক পথে আ.লীগের সাংগঠনিক সফর শুরু...

  • নির্বাচনে জনপ্রিয় ব্যক্তিদের মনোনয়ন দেয়া হবে: কুমিল্লায় সেতুমন্ত্রী

  • রেলপথের মতো সড়কপথের প্রচারণাতেও ব্যর্থ হবে আ.লীগ: রিজভী

  • ২০১৮'র শেষ অথবা ২০১৯'র শুরুতে জাতীয় নির্বাচন: সিইসি...

  • আইনগত ভিত্তি পেলেই ইভিএম ব্যবহার করা হবে

  • নরসিংদীতে ব্রহ্মপুত্র নদে নৌকাডুবি; ভাইবোনসহ ৩ জনের মৃত্যু

ব্লাড ব্রেইন ব্যারিয়ারে ওষুধ পৌঁছাতে সাময়িক ছিদ্র তৈরিতে কানাডায় গবেষণা

ব্লাড ব্রেইন ব্যারিয়ারে ওষুধ পৌঁছাতে সাময়িক ছিদ্র তৈরিতে কানাডায় গবেষণা

মস্তিষ্কে রক্ত দিয়ে তৈরি সূক্ষ্ম স্তর যা পরিচিত ব্লাড ব্রেইন ব্যারিয়ার নামে। জীবানুর প্রবেশ থেকে মস্তিষ্ককে রক্ষাকারী এই স্তরের কারণে আক্রান্ত স্থানে পৌছাতে পারে না আলঝেইমার, ব্রেইন টিউমারসহ স্নায়ুর নানা রোগের ওষুধ। তাই ওষুধ পৌছাতে সহায়তা করতে এই সূক্ষ্ম স্তরে সাময়িক ছিদ্র তৈরিতে গবেষণা চালাচ্ছেন চিকিৎসকরা।

আলঝেইমারে আক্রান্ত রিক কার। সম্প্রতি, এ রোগের চিকিৎসা গবেষণা চলে কানাডার সানিব্রুক স্বাস্থ্য বিজ্ঞান কেন্দ্র। যে গবেষণায় অংশ নেন তিনি।  
গবেষণায়, আলঝেইমার আক্রান্তদের মস্তিষ্কের ভেতরে, রক্ত দিয়ে তৈরি জীবাণু প্রতিরোধি স্তর বা ব্লাড ব্রেইন ব্যারিয়ারে সাময়িক ছিদ্র তৈরির চেষ্টা করেন চিকিৎসকরা। যাতে, এই স্তর ভেদ করে মস্তিষ্কের আক্রান্ত কোষে প্রবেশ করতে পারে আলঝেইমারের ওষুধের অতিক্ষুদ্র কণা।
ব্লাড ব্রেইন ব্যারিয়ার মূলত মস্তিষ্কের ভেতরে রক্ত দিয়ে তৈরি জীবানু প্রতিরোধি স্তর। যা যেকোন ধরণের জীবাণুর প্রবেশ ঠেকিয়ে সুরক্ষিত রাখে মস্তিস্ককে। নিশ্চিত করে পুষ্টি সরবরাহ। তবে, রক্তের অতিক্ষুদ্র কোষ দিয়ে এ স্তর তৈরি বিধায় ওষুধের কোনো কণাই এই স্তর পেরুতে পারে না। ফলে ব্যাহত হয় ক্যান্সার, আলঝেইমারসহ মস্তিষ্কের নানা রোগের চিকিৎসা।
সানি ব্রুক রিসার্চ ইনস্টিটিউটের কো-লিডার ডা. স্যান্ড্রা ব্ল্যাক বলেন, মাত্র দুটি আল্ট্রাসাউন্ড ট্রিটমেন্ট সম্পন্ন করেই ব্লাড ব্যারিয়ার খুলতে সক্ষম হয়েছি আমরা। এটা খুবই আনন্দের। কারণ এই গবেষণা সফল হলে সম্ভাবনার নতুন দার খুলবে। তবে, নিরাপত্তা বজায় রেখে ধীরেসুস্থ্যে এগুতে হবে আমাদের।
নতুন গবেষণায়, প্রথমে রোগির রক্তে বাতাসের ক্ষুদ্র বুদবুদ প্রবেশ করানো হয়। পরে সেগুলো নির্দিষ্ট স্থানে পৌঁছালে, এমআরআই স্ক্যানে অবস্থান নিশ্চিত হয়ে আল্ট্রাসাউন্ড ট্রিটমেন্ট বা বিশেষ শব্দ-তরঙ্গ ও বুদবুদের মাধ্যমে সাময়িক ছিদ্র তৈরি করা হয়। গবেষকদের দাবি, এ পদ্ধতি সফল হলে, আমুল পরিবর্তন আসবে আলঝেইমার, ব্রেইন ক্যান্সার, লোউ গেহরিগস-সহ মস্তিষ্কের নানা রোগের চিকিৎসায়।
এই পদ্ধতিতে, মানব মস্তিষ্কের ব্লাড ব্রেইন ব্যারিয়ারে ছিদ্র তৈরিতে সফল হয়েছেন গবেষকরা। আর ওষুধ প্রবেশ করানোর প্রক্রিয়া নিয়ে গবেষণা চলছে। প্রাথমিকভাবে ইঁদুরের মস্তিস্কে এটির সফল প্রয়োগও করা হয়েছে। ভবিষ্যতে এ পদ্ধতির সফলতা নিয়ে আশাবাদি গবেষকরা।

 

সর্বশেষ সংবাদ

স্বাস্থ্য খবর