channel 24

সর্বশেষ

  • জয়পুরহাটে জরাজীর্ণ বেইলি ব্রিজ দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলছে যানবাহন; যেকোনো সময় বড় দুর্ঘটনার শংকা

  • বারবার ট্রেন দুর্ঘটনা নিয়ে উদ্বেগে যাত্রীরা; রেলপথ নিরাপদ করতে কর্তৃপক্ষের কার্যকর উদ্যোগের দাবি

  • বাজারে পেঁয়াজের অস্বাভাবিক দাম নিয়ে একে অপরকে দুষছেন আমদানিকারক ও পাইকাররা

  • চট্টগ্রামের পাথরঘাটায় গ্যাস লাইনে বিস্ফোরণে নিহত ৭

রাজ্জাক অভিনীত ছবির গানগুলো ছুঁয়ে যেত দর্শকের মন

রাজ্জাক অভিনীত ছবির গানগুলো ছুঁয়ে যেত দর্শকের মন

সিনেমার চিত্রনাট্যের যেকোন চরিত্রেই নিজেকে মানিয়ে নেয়ার এক অদ্ভুত ক্ষমতা ছিলো নায়ক রাজের। সাথে গল্পের প্রয়োজনে ছবিতে ব্যবহার করা গানগুলোও ছুঁয়ে যেত দর্শকের মন। শুধু সে সময় নয় এখনো মন রোমান্টিকতায় ভরে উঠলে মন গুনগুন করে গেয়ে ওঠে সেই গানগুলো। এই সময়ে এসেও কানে বাজে সে সময়ের সেই সুর।

সবুজ শ্যামল মায়ায় নায়করাজের দৃষ্টি ঢাকা পড়লেও প্রিয় নায়ক আবছা নন বরং ভীষণ স্পষ্ট নস্টালজিক মনে। স্মৃতির খেরোখাতায় ভালোবাসার কবিতা মতো। নায়করাজ এমনওতো প্রেম হয়, যা চোখের জলে লেখা রয়। তাই বুঝি তাঁর চিরপ্রস্থানে সেই প্রেমই যেনো হয়ে উঠেছিলো বেদনার নাম।

আজও মুখ দেখি আয়নায়, আজও চোখে পড়ে কপালের কালো টিপ শুধু রিং বাজেনা টেলিফোনে আর কেউ বলেও ওঠেনা সেই আমি।  

হয়তো মেঘবাড়িতে বড্ড ব্যাস্ততা, কাজের ভীড়েও হয়তো দেরী হয়ে যাবে ফিরতি পথ ধরে ফিরে আসতে। তবু নায়করাজের জন্যই অপেক্ষা, হোকনা দেরী তবুও তিনি ফিরে আসবেন আর একটিবার-এমনটাই বলতে চায় মন বার বার।

বাংলা চলচ্চিত্রের সোনালি অধ্যায়ের প্রথম পৃষ্ঠায় শুধু নয় হৃদয়ের গহীনেও নায়করাজ রাজ্জাক চিরভাষ্মর।

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিনোদন খবর