channel 24

সর্বশেষ

  • অবসর নয়, টেস্ট দলে ফেরার চেষ্টা অব্যাহত থাকবে: মাহমুদুল্লাহ

  • ভারতের পশ্চিম ও মধ্যাঞ্চলের ৫ রাজ্যে পঙ্গপালের হানা

  • মাধবপুরে জমি দখল নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ১০

  • যমুনা নদীতে নৌকাডুবিতে দুজনের মরদেহ উদ্ধার

  • আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে মুশফিকের ১৫ বছর

  • করোনায় মানবতার সেবায় দৃষ্টান্ত চাঁদপুরের চিকিৎসক দম্পতি

  • করোনায় ডেপুটি স্পিকারের স্ত্রী আনোয়ারা রাব্বীর মৃত্যু

  • করোনা আতঙ্কে ঘর থেকেই বের হননি রাজধানীর বেশিরভাগ মানুষ

  • লাদাখে মুখোমুখি ভারত ও চীনের সেনাবাহিনী

  • দুর্যোগে জনগণের পাশে না দাঁড়িয়ে সরকারের বিরুদ্ধে বিষোদগার করছে বিএনপি: কাদের

  • করোনায় দেশে আরও ২১ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১১৬৬

  • নিজের কিট দিয়ে করোনা পজিটিভ ডা. জাফরউল্লাহ

  • মানসিক অবস্থা ভালো হলেও শারীরিকভাবে সুস্থ নন খালেদা জিয়া

  • ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত খুলনার কয়রাসহ ৫ উপজেলার মাছ চাষী

  • দেশে রেকর্ড চাল উৎপাদনের আশা, উঠে আসবে বিশ্বের তিন নম্বরে

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাড়ছে নারী ও শিশু নির্যাতন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাড়ছে নারী ও শিশু নির্যাতন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গত ৭ মাসে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন দেড় শতাধিক। এমন তথ্য দিয়েছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাড়ছে নারী ও শিশু নির্যাতন বিষয়ক মামলা। জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের দেয়া তথ্য বলছে, গত সাত মাসে ধর্ষণের অভিযোগে হাসপাতালে এসেছেন শিশু, কিশোরী ও প্রতিবন্ধীসহ ১৬৭ জন। কিন্তু মেডিকেল পরীক্ষায় মাত্র পাঁচ ভাগের শরীতে ধর্ষণের আলামত মিলেছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন মো: শাহ আলম বলেন, সময় মতো হাসপাতালে না আসায় অনেক ক্ষেত্রে ধর্ষণের আলামত পাওয়া যায় না। এতে করে ধরাছোঁয়ার বাইরে থাকছে প্রকৃত অপরাধীরা। এছাড়া প্রয়োজনীয় সাক্ষীর অভাবে এসব মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি না হওয়ায় এ ধরনের অপরাধ বাড়ছে বলেও মনে করেন তিনি।

ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, মামলা করেও প্রতিকার পাচ্ছেন না তারা। উল্টো নানা সময়ে তাদেরকে হুমকি ধমকি দিচ্ছে অভিযুক্তরা।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার পাবলিক প্রসিকিউটর বলছেন, অনেক সময় প্রয়োজনীয় সাক্ষীর অভাবে এসব মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি করা সম্ভব হয় না। ফলে জেলায় বাড়ছে নারীর প্রতি সহিংসতা।

জেলায় নারী বা শিশু নির্যাতন বাড়ার কথা স্বীকার করে পুলিশ সুপার মো: আনিসুর রহমান বলেন, এসব ঘটনায় প্রশাসন সজাগ রয়েছে। অভিযোগ পাওয়া মাত্রই গুরুত্বসহকারে অভিযুক্তকে চিন্হিত করার ক্ষেত্রে প্রশাসন সর্বদা সচেষ্ট বলে জানান ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার পুলিশ সুপার।  

তবে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের অনেক মামলাই হয় ব্যক্তিগত ও পারিবারিক বিরোধের জেরে। ফলে প্রকৃত ঘটনা তদন্ত করে দোষীদের আইনের আওতায় আনার দাবি অনেকের।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর