channel 24

সর্বশেষ

  • বৈরুত বিস্ফোরণ: পদত্যাগ করলো লেবানন সরকার

  • ট্রাম্প একই মিথ্যে বলেছেন ১৫০ বারের বেশি!

  • সীমিত পরিসরে চলবে খেলাধুলা, মানতে হবে দশ নির্দেশনা: ক্রীড়া মন্ত্রণালয়

  • ১০টি জলাশয় নিয়ন্ত্রণে নিয়ে রক্ষণাবেক্ষণ করা হবে: মেয়র তাপস

  • ৬ মাস দায়িত্ব পালনের সুযোগ পাচ্ছেন চট্টগ্রাম সিটির প্রশাসক

  • ভক্ত-অনুরাগীদের ভালোবাসায় সুরস্রষ্টা আলাউদ্দিন আলীকে শেষ বিদায়

  • বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড বন্ধের দাবি সিনহার মায়ের

  • আমি সিনহা নামে কাউকে চিনি না: ইলিয়াস কোবরা

  • অবশেষে ক্রিকেটে দলের শ্রীলঙ্কা সফর চূড়ান্ত

  • চাল আমদানির আগে পরিস্থিতি বিবেচনা করা হবে: কৃষিমন্ত্রী

  • নিজেদের তৈরি খাদ্যে মাছের উৎপাদনে সফল ফরিদপুরের মৎস্য চাষিরা

  • বাদামের পুষ্টিগুণ

  • কৃষি সংকট মোকাবেলায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পারিবারিক সবজি বাগান

  • বরগুনায় ইউএনও'র মামলায় কারাগারে যুবলীগ নেতা

  • সিনহা হত্যা: আসামিদের রিমান্ডের সময়সীমা বাড়ানোর আবেদন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাড়ছে নারী ও শিশু নির্যাতন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাড়ছে নারী ও শিশু নির্যাতন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গত ৭ মাসে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন দেড় শতাধিক। এমন তথ্য দিয়েছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাড়ছে নারী ও শিশু নির্যাতন বিষয়ক মামলা। জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের দেয়া তথ্য বলছে, গত সাত মাসে ধর্ষণের অভিযোগে হাসপাতালে এসেছেন শিশু, কিশোরী ও প্রতিবন্ধীসহ ১৬৭ জন। কিন্তু মেডিকেল পরীক্ষায় মাত্র পাঁচ ভাগের শরীতে ধর্ষণের আলামত মিলেছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন মো: শাহ আলম বলেন, সময় মতো হাসপাতালে না আসায় অনেক ক্ষেত্রে ধর্ষণের আলামত পাওয়া যায় না। এতে করে ধরাছোঁয়ার বাইরে থাকছে প্রকৃত অপরাধীরা। এছাড়া প্রয়োজনীয় সাক্ষীর অভাবে এসব মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি না হওয়ায় এ ধরনের অপরাধ বাড়ছে বলেও মনে করেন তিনি।

ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, মামলা করেও প্রতিকার পাচ্ছেন না তারা। উল্টো নানা সময়ে তাদেরকে হুমকি ধমকি দিচ্ছে অভিযুক্তরা।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার পাবলিক প্রসিকিউটর বলছেন, অনেক সময় প্রয়োজনীয় সাক্ষীর অভাবে এসব মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি করা সম্ভব হয় না। ফলে জেলায় বাড়ছে নারীর প্রতি সহিংসতা।

জেলায় নারী বা শিশু নির্যাতন বাড়ার কথা স্বীকার করে পুলিশ সুপার মো: আনিসুর রহমান বলেন, এসব ঘটনায় প্রশাসন সজাগ রয়েছে। অভিযোগ পাওয়া মাত্রই গুরুত্বসহকারে অভিযুক্তকে চিন্হিত করার ক্ষেত্রে প্রশাসন সর্বদা সচেষ্ট বলে জানান ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার পুলিশ সুপার।  

তবে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের অনেক মামলাই হয় ব্যক্তিগত ও পারিবারিক বিরোধের জেরে। ফলে প্রকৃত ঘটনা তদন্ত করে দোষীদের আইনের আওতায় আনার দাবি অনেকের।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর