channel 24

সর্বশেষ

  • খালেদা জিয়াকে দেখতে গেলেন স্বজনরা

  • চসিক নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে আ.লীগে বড় রদবদল

  • রাজধানীর কাঁচাবাজারে কমেছে প্রায় সব ধরনের সবজির দাম

  • খালেদা জিয়া উর্দুতে পাশ, বাংলায় ফেল: হাছান মাহমুদ

  • ভাষা আন্দোলনের চেতনা ভূলুণ্ঠিত করেছে সরকার: ফখরুল

  • শিশুদের পদচারণায় মুখর বই মেলা প্রাঙ্গণ

  • বাদ্যযন্ত্র ছাড়াই সুরের মুগ্ধতা ছড়ান সুজস বিশ্বাস

  • বাংলাকে জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা করতে বছরে প্রয়োজন ৬০ কোটি ডলার

  • ঢাকা টেস্টে পরাজয়ের বৃত্ত ভাঙার চ্যালেঞ্জ মুমিনুলের

  • জয় দিয়ে পিসিএলের পঞ্চম আসর শুরু করলো কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটরস

  • ইউরোপা লিগে জয় পেয়েছে আর্সেনাল-ইন্টার মিলান

  • নানা আয়োজনে বিভিন্ন দেশে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

  • আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে শহীদ মিনারে আ.লীগ-বিএনপির শ্রদ্ধা

  • বিনম্র শ্রদ্ধায় দেশব্যাপী ভাষা শহীদদের স্মরণ

  • লন্ডনে মসজিদে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে মুয়াজ্জিন আহত

খুলনায় থানায় তরুণীকে গণধর্ষণ: মামলা গ্রহণ করেননি আদালত

খুলনায় থানায় তরুণীকে গণধর্ষণ: মামলা গ্রহণ করেননি আদালত

খুলনা জিআরপি থানার বরখাস্ত ওসি ওসমান গণি পাঠানসহ ৫ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে নারী গণধর্ষণের মামলা গ্রহণ করেননি আদালত।

বাদিপক্ষের আইনজীবী মোমিনুল ইসলাম জানান, রবিবার (২২ সেপ্টেম্বর) সকালে জেলার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল৩ এ ধর্ষণ মামলার আবেদন করেন ভুক্তভোগী নারী।

পরে শুনানি বিচারক বলেন, মামলার ঘটনাস্থল তার আদালতের এখতিয়ারভুক্ত এলাকায় নয়। তাই বাদিপক্ষকে বিচারক ট্রাইব্যুনাল-২ এ যাওয়ার পরামর্শ দেন বিচারক।

এর আগে ভুক্তভোগী ওই নারী আদালতের নির্দেশে ১০ আগস্ট রাতে জিআরপি থানায় পুলিশি হেফাজতে নির্যাতনের অভিযোগ করে একটি মামলা করেন।

বাদিপক্ষের অভিযোগ, গত ২ আগস্ট ওই তরুণী যশোর থেকে ট্রেনে খুলনায় আসেন। ট্রেন থেকে নামার পর রাত সাড়ে ৭টার দিকে খুলনা রেলস্টেশনে কর্তব্যরত জিআরপি পুলিশের সদস্যরা তাকে সন্দেহজনকভাবে আটক করেন।

পরে গভীর রাতে জিআরপি থানার ওসি ওসমান গনি পাঠানসহ ৫ পুলিশ সদস্য পালাক্রমে তাকে ধর্ষণ করেন।

পর দিন শনিবার তাকে ৫ বোতল ফেনসিডিলসহ একটি মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে চালান করা হয়। আদালতে বিচারকের সামনে নেয়ার পর ওই তরুণী জিআরপি থানায় তাকে গণধর্ষণের বিষয়টি আদালতের সামনে তুলে ধরেন। এর পর বিচারক তার ডাক্তারি পরীক্ষার নির্দেশ দেন। পাশাপাশি বিষয়টি আমলে নিয়ে গত সোমবার পাকশী রেলওয়ে জেলা পুলিশের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ নজরুল ইসলামের নির্দেশে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

এর পর সোমবার খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভিকটিম তরুণীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা হয়।

ঘটনার পর বুধবার ওসমান ও নাজমুলকে খুলনা রেলওয়ে থানা থেকে পাকশী রেলওয়ে পুলিশলাইন্সে প্রত্যাহার করা হয়। ঘটনা তদন্তে গঠন করা হয় তিন সদস্যের একটি কমিটি। ওই কমিটির সুপারিশের আলোকে পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর