channel 24

সর্বশেষ

  • দিল্লিতে সহিংসতার প্রতিবাদ জানিয়েছে ছাত্র অধিকার পরিষদ

  • অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের সময় র‍্যাবের হাতে লাঞ্ছিত ম্যাজিস্ট্রেট

  • ব্যাংক খালি হয়ে গেছে: হাইকোর্ট

  • ডাকঘর সঞ্চয়ে সুদহার আগের মতোই থাকছে: অর্থমন্ত্রী

  • দুদককে নিয়ে টিআইবির প্রতিবেদন সত্য নয়: দুদক সচিব

  • একে একে বেরিয়ে আসছে পাপিয়ার নানা পাপ

  • উন্নত চিকিৎসায় সম্মত হননি খালেদা জিয়া

  • দিল্লিতে গুজরাটের ছায়া; শিশু ও গোয়েন্দা কর্মকর্তাসহ প্রাণ গেছে ২৩ জনের

  • কোনো ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ হলে গ্রাহকরা সব টাকা পাবেন

  • ঢাকা মেডিকেলে পরজীবী শিশু আলাদা করে সফল অস্ত্রোপচার

  • ভর্তি পরীক্ষা হবে ৪টি গুচ্ছ পদ্ধতিতে, থাকছে না ঢাকাসহ ৫টি বিশ্ববিদ্যালয়

  • কোনো নারী বিয়ে পড়াতে পারবেন না: হাইকোর্ট

  • কাপ্তাই হ্রদের পানি কমছে ধীরগতিতে, ফসল নিয়ে দু:চিন্তায় চাষীরা

  • দেশের পুঁজিবাজারে বড় পতন

  • অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে কঠিন পরীক্ষায় নামছে বাংলাদেশ নারী দল

গবাদি পশুর অ্যানথ্রাক্স রোগ ছড়িয়ে পড়ছে মানবদেহে

গবাদি পশুর অ্যানথ্রাক্স রোগ ছড়িয়ে পড়ছে মানবদেহে

অ্যানথ্রাক্স গবাদি পশুর মারাত্মক সংক্রামক এক রোগ। যা ছড়ায় মানবদেহেও। মেহেরপুরের গাংনীতে গত ৭ বছরে এই রোগে আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজারের বেশি মানুষ। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মাটিতে ৫০ থেকে ৬০ বছর পর্যন্ত টিকে থাকে অ্যানথ্রাক্সের জীবাণু। তাই এটি পুরোপুরি নির্মূল করা সম্ভব নয়।

গাংনীর সীমান্তবর্তী গ্রাম কাজিপুরে সর্বপ্রথম ১৯ জন অ্যানথ্রাক্সে আক্রান্ত রোগীর সন্ধান মেলে। এরপর হাড়াভাঙ্গা, নওদাপাড়া, বেতবাড়িয়া, মঠমুড়া গ্রামেও অ্যানথ্রাক্সে ছড়িয়ে পড়ে।

স্বাস্থ্য বিভাগের পরিসংখ্যান বলছে, ২০১২ সালে ৫৩ জন, ২০১৩ সালে ১৯৯ জন, ২০১৪ সালে ২০৩ জন, ২০১৫ সালে ১৫৪ জন, ২০১৬ সালে ২৪০ জন, ২০১৭ সালে ২৮১ জন, ২০১৮ সালে ৪০৮ জন, এবং চলতি বছরের আগস্ট পর্যন্ত ৫১৪ জন অ্যানথ্রাক্সে রোগীর মিলেছে এই উপজেলায়।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অ্যানথ্রাক্সে আক্রান্ত পশুর মাংস, রক্ত ও মৃত পশু যেখানে- সেখানে ফেলে রাখার মাধ্যমে এর জীবানু মাটিতে ছড়িয়ে পড়েছে। আর এ জীবানু মাটিতে থাকে ৫০ থেকে ৬০ বছর। ফলে সেই মাটিতে গজানো ঘাস খেয়েও গবাদিপশু অ্যানথ্রাক্সে আক্রান্ত হচ্ছে।

লোকসানের আশংকায় অনেক সময় অসুস্থ পশু জবাই করছেন অনেকেই । আর সেই পশুর রক্ত ও মাংস নাড়াচাড়া করে অনেকে আক্রান্ত হচ্ছেন অ্যানথ্রাক্সে। হাতে, পায়ে অথবা মুখে ছোট ছোট ফোড়া তৈরি হয়ে ক্ষতের সৃষ্টি হচ্ছে।

চিকিৎসকরা বলছেন, অসুস্থ পশুর রক্ত মাংসের স্পর্শে অ্যানথ্রাক্সে আক্রান্ত হলেও এ রোগে মৃত্যুর আশঙ্কা নেই। তেব তৈরি হয় শারীরিক নানা জটিলতা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর