channel 24

সর্বশেষ

  • ভাষা আন্দোলনের চেতনা ভূলুণ্ঠিত করেছে সরকার: ফখরুল

  • শিশুদের পদচারণায় মুখর বই মেলা প্রাঙ্গণ

  • বাদ্যযন্ত্র ছাড়াই সুরের মুগ্ধতা ছড়ান সুজস বিশ্বাস

  • বাংলাকে জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা করতে বছরে প্রয়োজন ৬০ কোটি ডলার

  • ঢাকা টেস্টে পরাজয়ের বৃত্ত ভাঙার চ্যালেঞ্জ মুমিনুলের

  • জয় দিয়ে পিসিএলের পঞ্চম আসর শুরু করলো কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটরস

  • ইউরোপা লিগে জয় পেয়েছে আর্সেনাল-ইন্টার মিলান

  • নানা আয়োজনে বিভিন্ন দেশে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

  • আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে শহীদ মিনারে আ.লীগ-বিএনপির শ্রদ্ধা

  • বিনম্র শ্রদ্ধায় দেশব্যাপী ভাষা শহীদদের স্মরণ

  • লন্ডনে মসজিদে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে মুয়াজ্জিন আহত

  • ডাকঘরে সঞ্চয় স্কিমে সুদের হার কমানোর সিদ্ধান্তে দুশ্চিন্তায় নিম্ন ও মধ্যবিত্তরা

  • গানে গানে বাংলা ভাষাকে ছড়িয়ে দিচ্ছেন দুই জাপানিজ

  • করোনা আতঙ্কে ভুতুড়ে নগরী দক্ষিণ কোরিয়ার দায়েগু

  • দৌলতদিয়াতে আরেক যৌনকর্মীর জানাজা অনু‌ষ্ঠিত

পান থেকে চুন খসলেই বহিষ্কার; সাফাই গাইলেন ভিসি

পান থেকে চুন খসলেই বহিষ্কার; সাফাই গাইলেন ভিসি

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে পান থেকে চুন খসলেই, নেমে আসে সাময়িক কিংবা স্থায়ী বহিষ্কারের খড়গ। বাকি শিক্ষাজীবন পার করতে ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজি হননি শিক্ষার্থীরা। তবে সুশীল সমাজ বলছে, শিক্ষার্থীদের সাথে উপাচার্যের এ ধরণের আচরণ কাম্য নয়। আর উপাচার্যের দাবি, ক্যাম্পাসে শৃঙ্খলা ফেরাতেই এসব সিদ্ধান্ত।

ফেসবুকে স্ট্যাটাসের জেরে শিক্ষার্থীকে শাসান বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য খন্দকার নাসির উদ্দিন।

উপাচার্য খন্দকার নাসির উদ্দিন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ কি ফেসবুকে লেখার দরকার আছে? বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ কি জানোনা? ফাজিল কোথাকার। বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ কি তোর আব্বার কাছে শুনিস।

শুধু তাই নয়, গেলো বছর এই উপাচার্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে চাকরি দেয়ার নামে নারী ধর্ষণের।

এরপরও বহাল তবিয়তে আছেন উপাচার্য খন্দকার নাসির উদ্দিন। পান থেকে চুন খসলেই সাময়িক কিংবা স্থায়ী বহিষ্কারের খড়গ নেমে আসে শিক্ষার্থীদের ওপর। গত এক বছরে গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে বহিষ্কার হয়েছেন অন্তত ৩৪ জন শিক্ষার্থী।

বহিষ্কার হওয়া শিক্ষার্থী ফাতেমা তুজ জিনিয়া বলেন, 'আমি একটি বিশেষ গ্রুপ দ্বারা হুমকির শিকার হচ্ছি। নানাভাবে হয়রানি করা হচ্ছে। ফেসবুকেও লেখালেখি হচ্ছে, যা উপাচার্য নিজেই শেয়ার দিচ্ছেন।'

এসব ঘটনায় ভয়ে ক্যামেরার সামনে মুখ খুলতে রাজি হননি শিক্ষার্থীরা। আর এ ব্যাপারে জানতে চাইলে এড়িয়ে যান রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. নুরুদ্দীন আহমেদ।

তিনি বলেন, 'তার আত্মপক্ষ সমর্থনের জন্য সময় দেয়া হয়েছিল। সে কাগজ জমা দিয়েছে। শৃঙ্খলাবোর্ড বসে পরে সিদ্ধান্ত জানাবে।'

যার সমালোচনা করেছেন সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা। তবে ভিসির দাবি, ক্যাম্পাসে শৃঙ্খলা ফেরাতেই বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত।

নিউজটির বিস্তারিত প্রতিবেদন ভিডিওতে-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর