channel 24

সর্বশেষ

  • জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪তম অধিবেশনে যোগ দিতে...

  • কাল নিউইয়র্কের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়বেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

  • অবৈধ ক্যাসিনো: আটক যুবলীগ নেতা খালেদকে গুলশান থানায় হস্তান্তর

  • রাজধানীতে জুয়ার আসর বসতে দেয়া হবে না: ডিএমপি কমিশনার...

  • ক্যাসিনো মালিক প্রভাবশালী হলেও আইনের আওতায় আনা হবে...

  • মসজিদের শহরকে ক্যাসিনোর শহরে পরিণত করেছে সরকার: ড. মঈন

  • প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি দেয়ার অভিযোগে বিএনপি নেতা...

  • শামসুজ্জামান দুদুর বিরুদ্ধে মামলা; দ্রুত আটকের দাবি ছাত্রলীগের

  • কোনো প্রক্রিয়া ছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়া...

  • ছাত্রলীগ নেতাদের ছাত্রত্ব বাতিলের দাবি ডাকসু ভিপির

  • পারিবারিক কলহ: নারায়ণগঞ্জে মা ও ২ শিশুকে ছুরিকাঘাতে হত্যা...

  • আহত আরও এক শিশুকে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি

বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিমের দশম মৃত্যু বাষিকী আজ

বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিমের দশম মৃত্যু বাষিকী আজ

মরমী সাধক, বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিমের দশম তম মৃত্যু বাষিকী আজ। ২০০৯ সালের এই দিনে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান এই মরমী কবি।

মৃত্যুবার্ষিকী ঘিরে তার গ্রামের বাড়ি উজালধলে দুপুরে আয়োজন করা হয়েছে মিলাদ মাহফিলের। রাতে বসবে বাউল আসর। বিকেলে, সুমানগঞ্জ শিল্পকলা একাডেমীকে রয়েছে আলোচনা সভা ও তার গানের অনুষ্ঠান।
বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিম মুক্তিযুদ্ধের সময় পথে পথে ঘুরে গানের মাধ্যমে মানুষকে উজ্জীবিত করেছেন। তার বিভিন্ন জনপ্রিয় গান ছুঁয়ে গেছে  তরুণসহ সকল স্তরের কোটি কোটি মানুষের প্রাণ।

শাহ আবদুল করিম ১৯১৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই উপজেলার ধলআশ্রম গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা ইব্রাহিম আলী ছিলেন একজন দরিদ্র কৃষক, মাতা নাইওরজান বিবি ছিলেন গৃহিণী। শাহ আবদুল করিম বাল্যকালে শিক্ষালাভের কোনো সুযোগ পাননি।

বারো বছর বয়সে তিনি নিজ গ্রামের এক নৈশ বিদ্যালয়ে কিছুকাল পড়াশোনা করেন। সেখানেই প্রাথমিক শিক্ষা লাভ করেন। পরে নিজের চেষ্টায় তিনি স্বশিক্ষিত হয়ে ওঠেন। দারিদ্র্র্য ও জীবন সংগ্রামের মাঝে বড় হওয়া শাহ আবদুল করিমের সঙ্গীত সাধনার শুরু ছেলেবেলা থেকেই।

শাহ আবদুল করিম শরীয়তী, মারফতি, দেহতত্ত্ব, দেশাত্মবোধক ও বাউল গানসহ গানের বিভিন্ন শাখায় সাবলীল বিচরণ করেছেন। তিনি দেড় সহস্রাধিক গান রচনা ও তাতে সুরারোপ করেছেন। দোতারা হাতে তিনি সারাটা জীবন অসাম্প্রদায়িক ও মেহনতি মানুষের পক্ষে লড়াই করে গেছেন।

যে কোনো ঘটনার প্রেক্ষাপটে তিনি যেমন তাৎক্ষণিক গান বাঁধতে পারতেন, তেমনি দক্ষ সুরকারের মতো সুরারোপ করে একতারা বা দোতারা বাজিয়ে গান গাইতেন।

এমন বিরল প্রতিভার গুণেই তিনি গ্রামবাংলার মানুষের মাঝে খুব দ্রুত জনপ্রিয়তা অর্জন করেন। তার জনপ্রিয়তা দেশের গণ্ডি পেরিয়ে সারা বিশ্বের বাঙালির কাছে ছড়িয়ে পড়ে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর