channel 24

সর্বশেষ

  • ভবিষ্যতে কেউ যাতে দেশের মানুষের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি...

  • খেলতে না পারে সে ব্যাপারে ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে সতর্ক থাকতে হবে...

  • ১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ডে জিয়াউর রহমান জড়িত ছিলেন বলেই...

  • খন্দকার মোশতাক তাকে সেনাপ্রধান করেছিলেন...

  • শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের আলোচনায় প্রধানমন্ত্রী

  • ব্রিটেনে নির্বাচনে জয়ী হওয়ায় বরিস জনসনকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন

  • শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের স্মরণে পুরো দেশ...

  • মিরপুরে শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

  • যুদ্ধাপরাধী জামায়াত নেতা কাদের মোল্লাকে 'শহীদ' বলায়...

  • দৈনিক সংগ্রামের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া উচিত: ওবায়দুল কাদের

  • জাতীয় ঐক্যের মাধ্যমে দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে হবে: ফখরুল

  • মুন সিনেমার মালিকানা নিয়ে সংবিধান সংশোধনী...

  • কতটা যৌক্তিক, প্রশ্ন সাবেক বিচারপতি আব্দুল মতিনের

  • বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী রুম্পার শরীরে ধর্ষণের আলামত মেলেনি: চিকিৎসক...

  • কাল পুলিশের কাছে দেয়া হবে প্রাথমিক প্রতিবেদন

  • সাময়িক বন্ধ থাকার পর স্বাভাবিক হয়েছে তামাবিল সীমান্তে যাত্রী চলাচল

  • সড়ক দুর্ঘটনায় পাবনার আটঘরিয়ায় জামাই-শ্বশুর নিহত

বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিমের দশম মৃত্যু বাষিকী আজ

বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিমের দশম মৃত্যু বাষিকী আজ

মরমী সাধক, বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিমের দশম তম মৃত্যু বাষিকী আজ। ২০০৯ সালের এই দিনে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান এই মরমী কবি।

মৃত্যুবার্ষিকী ঘিরে তার গ্রামের বাড়ি উজালধলে দুপুরে আয়োজন করা হয়েছে মিলাদ মাহফিলের। রাতে বসবে বাউল আসর। বিকেলে, সুমানগঞ্জ শিল্পকলা একাডেমীকে রয়েছে আলোচনা সভা ও তার গানের অনুষ্ঠান।
বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিম মুক্তিযুদ্ধের সময় পথে পথে ঘুরে গানের মাধ্যমে মানুষকে উজ্জীবিত করেছেন। তার বিভিন্ন জনপ্রিয় গান ছুঁয়ে গেছে  তরুণসহ সকল স্তরের কোটি কোটি মানুষের প্রাণ।

শাহ আবদুল করিম ১৯১৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই উপজেলার ধলআশ্রম গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা ইব্রাহিম আলী ছিলেন একজন দরিদ্র কৃষক, মাতা নাইওরজান বিবি ছিলেন গৃহিণী। শাহ আবদুল করিম বাল্যকালে শিক্ষালাভের কোনো সুযোগ পাননি।

বারো বছর বয়সে তিনি নিজ গ্রামের এক নৈশ বিদ্যালয়ে কিছুকাল পড়াশোনা করেন। সেখানেই প্রাথমিক শিক্ষা লাভ করেন। পরে নিজের চেষ্টায় তিনি স্বশিক্ষিত হয়ে ওঠেন। দারিদ্র্র্য ও জীবন সংগ্রামের মাঝে বড় হওয়া শাহ আবদুল করিমের সঙ্গীত সাধনার শুরু ছেলেবেলা থেকেই।

শাহ আবদুল করিম শরীয়তী, মারফতি, দেহতত্ত্ব, দেশাত্মবোধক ও বাউল গানসহ গানের বিভিন্ন শাখায় সাবলীল বিচরণ করেছেন। তিনি দেড় সহস্রাধিক গান রচনা ও তাতে সুরারোপ করেছেন। দোতারা হাতে তিনি সারাটা জীবন অসাম্প্রদায়িক ও মেহনতি মানুষের পক্ষে লড়াই করে গেছেন।

যে কোনো ঘটনার প্রেক্ষাপটে তিনি যেমন তাৎক্ষণিক গান বাঁধতে পারতেন, তেমনি দক্ষ সুরকারের মতো সুরারোপ করে একতারা বা দোতারা বাজিয়ে গান গাইতেন।

এমন বিরল প্রতিভার গুণেই তিনি গ্রামবাংলার মানুষের মাঝে খুব দ্রুত জনপ্রিয়তা অর্জন করেন। তার জনপ্রিয়তা দেশের গণ্ডি পেরিয়ে সারা বিশ্বের বাঙালির কাছে ছড়িয়ে পড়ে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর