channel 24

সর্বশেষ

  • উম্মুল কোরা বিশ্ববিদ্যালয় রেক্টরের সঙ্গে সৌদিতে নিযুক্ত বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

  • সিরাজগঞ্জে বাসাবাড়িতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ৬ জন দগ্ধ

  • কাল শুরু বাংলাদেশের নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অভিযান; প্রতিপক্ষ ভারত

  • চীনের বাইরে ভয়ঙ্কর রূপ নিচ্ছে করোনা; আক্রান্ত ১ হাজার ৭১২ জন

  • জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১৫ সদস্যের ওয়ানডে দল ঘোষণা

  • গাইবান্ধা-৩ ও বাগেরহাট-৪ আসনের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই সম্পন্ন

  • চাঁপাইনবাবগঞ্জে মহানন্দা নদী তীরবর্তী এলাকায় পর্যটন কেন্দ্র নির্মাণ বেআইনি

  • অর্থপাচার মামলায় আটক পাপিয়াকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার

  • স্বামীর দেয়া আগুনে দগ্ধ অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর মৃত্যু

  • দুদিনের সফরে কাল ভারত আসছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

  • নির্বাচনি প্রচারণায় আসছে নানা বিধিনিষেধ; যত্রতত্র পোস্টার-মাইকিং নয়

  • উন্নয়ন পরিকল্পনা সঠিকভাবে বাস্তবায়ন না হওয়ার কারণে দুর্ভোগে পড়তে হয় জনগণকে

  • দেশের পুঁজিবাজারে আজও সূচকের পতন

  • আন্তর্জাতিক জ্বালানি খাতে নিজেদের আধিপত্য বাড়াতে চায় সৌদি আরব

  • ভুতুড়ে বিল বন্ধ করতে প্রযুক্তি ব্যবহারের বিকল্প নেই: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

নিখোঁজের ৪দিন পর ওয়ারড্রোব থেকে মরদেহ উদ্ধার

নিখোঁজের ৪দিন পর ওয়ারড্রোব থেকে মরদেহ উদ্ধার

নিখোঁজের চারদিন পর এক গৃহবধূর মরদেহের টুকরো করা অংশ নিজ ঘরের ওয়ারড্রোব থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার (১২ আগস্ট) গাজীপুরের শ্রীপুর থেকে পুলিশ পলিথিনে মোড়ানো অবস্থায় মরদেহের অংশগুলো উদ্ধার করে।

মৃত গৃহবধূর নাম সুমি আক্তার। ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী মামুন পলাতক রয়েছে।

সুমি আক্তার নেত্রকোণার পূর্বধলা উপজেলার দেবকান্দা গ্রামের নিজাম উদ্দিনের মেয়ে। তার স্বামী মামুন গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার বড়বাড়ি গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে। দেড় বছর আগে তাদের বিয়ে হয়। সুমি গার্মেন্টস শ্রমিক ও তার স্বামী মামুন পেশায় ইলেক্ট্রিশিয়ান।

বৃহষ্পতিবার কারখানা ছুটি হলে ওই রাতেই সুমির বাবার বাড়ি যাওয়ার কথা ছিল। সে বাড়ি না যাওয়ায় শুক্রবার তার স্বামী মামুনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। সে জানায় সুমি বাড়ির উদ্দেশে রওয়ানা দিয়েছে।  

শনিবারও সুমি বাড়িতে না যাওয়ায় সুমির বোন বৃষ্টি আক্তার তাদের বাসায় খোঁজ নিতে যান। সেখানে এসে বৃষ্টি কাউকে পায়নি। এসময় মামুনের মোবাইলটিও বন্ধ ছিল।

সোমবার সন্ধ্যায় সুমির বোন আবার খোঁজ নিতে এসে ঘর থেকে পঁচা মাংসের গন্ধ পান। পরে আশপাশের লোকদের বিষয়টি জানান। স্থানীয় লোকজনের সন্দেহ হলে তারা তালা ভেঙে ঘরে ঢুকেন। পরে ওয়াড্রোবের ড্রয়ার খুলে তারা পাঁচটি পলিথিনে মোড়ানো মাথাবিহীন মরদেহের অংশ দেখতে পায়।

বৃষ্টি আক্তারের দাবি তার বোন সুমি আক্তারকে হত্যার পর মামুন মরদেহ টুকরো টুকরো করে ওয়ারড্রোবে রেখে পালিয়েছে।

নিহতের বাবা মামুনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে মঙ্গলবার শ্রীপুর থানায় একটি মামলা করেছেন। এ ঘটনায় কাউকে গ্রেফতার বা আটক করা হয়নি।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর