channel 24

সর্বশেষ

  • সড়ক দুর্ঘটনায় ফরিদপুর সদরে ৮ ও তালমায় ২ জন নিহত

  • রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সরকারের ব্যর্থতা নেই: ওবায়দুল কাদের

  • ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেলে শিশুর মৃত্যু...

  • গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি ১,১৭৯: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

  • ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণের জন্য আমাকে সম্মাননা দেয়া হয়নি: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

  • শিশু আইন নিয়ে হাইকোর্টের নির্দেশনা এখন থেকে...

  • আইন হিসেবে কার্যকর হবে: বিচারপতি ইমান আলী

  • শিশুকে অপরাধী বলা যাবে না; আসামি বা সাক্ষী হলে...

  • ছবি ও পরিচিতি দেখানো যাবে না: বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ

  • জাহালম ইস্যু: দায় স্বীকার করে হাইকোর্টে সোনালী ব্যাংকের প্রতিবেদন...

  • জড়িত ৮ জনের বিরুদ্ধে নেয়া হয়েছে বিভাগীয় ব্যবস্থা

  • সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় কমরেড মোজাফফর আহমদের জানাজা শেষে...

  • রাষ্ট্রপতির পক্ষে সামরিক সচিব, প্রধানমন্ত্রী ও স্পিকারের শ্রদ্ধা

  • রংপুরে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর ছবি ভাঙচুরের অভিযোগে...

  • ছাত্রলীগ নেতা ফয়সালসহ গ্রেপ্তার ২; অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন

সুন্নতে খতনা করার সময় শিশুর মৃত্যু

সুন্নতে খতনা করার সময় শিশুর মৃত্যু

প্রস্রাবের সমস্যায় সুন্নতে খতনা করার সময় রিসকাত হোসেন নামে এক মাস ২৫ দিন বয়সী এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (২০ জুলাই) বিকেলে ঈশ্বরদীর সাঁড়া ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটেছে। শিশুটি লালপুর থানার পাটকেবাড়ি (পশ্চিমপাড়ার) সজিব হোসেনের ছেলে।

শিশুটি মারা যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তার লাশ মায়ের কোলে দিয়ে পালিয়ে যান ডা. মো. ইকবাল হোসেন ও তার সহযোগী বাজারের ওষুধের দোকানদার জয়ন্ত।

এ সময় মায়ের আহাজারি শুনে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভিড় করেন আশপাশের লোকজন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশুটির লাশ ও ব্যবহৃত ওষুধের বোতল উদ্ধার করে।

এলাকাবাসী ডাক্তার ও তার সহযোগীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করে কয়েক ঘণ্টা স্বাস্থ্যকেন্দ্র ঘেরাও করে রাখে। একমাত্র ছেলেকে হারিয়ে বাকরুদ্ধ মা রুবি খাতুন বারবার মূর্ছা যাচ্ছিলেন।

শিশুটির ফুপু তাসলিমা খাতুন জানান, গত ৫ দিন আগে শিশুটিকে নিয়ে তারা ওই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে আসেন। তখন ডাক্তার ইকবাল বলেন, প্রস্রাবে ইনফেকশন হয়েছে, খতনা দিতে হবে। টাকা না থাকায় তারা ফিরে যান। শনিবার সকালে ডাক্তার ইকবাল শিশুটিকে খতনা দিতে হবে বলে মোবাইল ফোনে তার ভাইয়ের স্ত্রী রুবিকে ডেকে আনেন। ১৫শ টাকার চুক্তিতে দুপুর দুইটার দিকে শিশুটিকে কয়েকটি ইনজেকশন দিয়ে খতনা দেন। এ সময় শিশু রিসকাত মারা যায়।

তিনি আরও জানান, ডাক্তার শিশুটি মারা গেছে বুঝতে পেরে তার মায়ের কোলে দিয়ে সহযোগী জয়ন্তকে নিয়ে পালিয়ে যান। তিনি এ ঘটনাটিকে হত্যা হিসেবে দাবি করে ডাক্তার ইকবাল ও জয়ন্তের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

কথা বলতে পারছিলেন না মা রুবি খাতুন। বারবার মূর্ছা যাচ্ছিলেন তিনি। শুধু নির্বাক দৃষ্টিতে তাকিয়ে চোখের পানি ফেলছিলেন। তবে তিনি সন্তানের হত্যাকারীর ফাঁসি দাবি করেন।

ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কেন্দ্রের তত্ত্বাবধায়ক ডাক্তার আব্দুল বাতেন জানান, স্বাস্থ্যকেন্দ্রে শিশুর মৃত্যুর ঘটনাটি অত্যন্ত দুঃখজনক। স্বাস্থ্যকেন্দ্রে সুন্নতে খতনা দেয়ার কোনো যন্ত্রপাতি ও অনুমতি নেই।

তিনি আরও জানান, ইকবাল হোসেন একজন মেডিকেল সহকারী।

ঈশ্বরদী থানা পুলিশ জানায়, ঘটনাস্থল থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। মৃত শিশুটির পরিবার থেকে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। ডাক্তার ইকবাল হোসেন ও তার সহযোগী জয়ন্ত পলাতক রয়েছেন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর