channel 24

সর্বশেষ

  • চামড়া নিয়ে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সমাধানে বিকেলে সচিবালয়ে বৈঠক

  • ২০১৯ সালের ৩য় প্রান্তিকে কমতে পারে আন্তর্জাতিক পণ্য বাণিজ্য

  • ব্যাংক কমিশন গঠন: অর্থমন্ত্রীর সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন বিশ্লেষকরা

  • ব্যবসা সম্প্রসারণে হুয়াওয়েকে সহায়তা করেছেন ট্রাম্প

  • কাশ্মীরে শান্তি ফিরিয়ে আনতে ৪টি বিশেষ পরিকল্পনা

  • চামড়ার অস্বাভাবিক দরপতনের তদন্ত চেয়ে রিট

  • ঝিনাইদহে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগে স্বামী আটক

  • বৃষ্টি বাধার লর্ডস টেস্টের চতুর্থ দিন, চাপে ইংল্যান্ড

  • আগস্টের ১৭ দিনে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা জুলাইয়ের দ্বিগুণ

  • আবারো পরমাণু যুদ্ধের শঙ্কায় পড়তে যাচ্ছে বিশ্ব

  • ম্যানচেস্টার সিটি-টটেনহ্যাম বিগ ম্যাচে জেতেনি কেউ

  • জয়ে স্প্যানিশ লিগ শুরু ফেভারিট রিয়াল মাদ্রিদের

  • একবছরেও শেষ হয়নি খাগড়াছড়ির সাত খুন হত্যা মামলার তদন্ত

  • ভবন নির্মাণে বছর পেরোলেও চালু হয়নি আইসিইউ

  • ঈদের ছুটিতে চট্টগ্রাম বন্দরে কন্টেইনার জট, আমদানি-রপ্তানিতে নেতিবাচক প্রভাব

নারায়ণগঞ্জে স্কুল-মাদ্রাসায় ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় উদ্বিগ্ন অভিভাবকরা

নারায়ণগঞ্জে স্কুল-মাদ্রাসায় ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় উদ্বিগ্ন অভিভাবকরা

স্কুল ও মাদ্রাসায় শিক্ষকের হাতে ছাত্রী ধর্ষণের দুটি ঘটনায় উদ্বিগ্ন নারায়ণগঞ্জের বেশিরভাগ কন্যা সন্তানের অভিভাবকরা। তারা বলছেন, সন্তানকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠিয়েও চিন্তামুক্ত হতে পারছেন না। শিক্ষকরা বলছেন, কয়েকজনের অনৈতিক কাজের কারণে গোটা শিক্ষক সমাজ এখনও বিব্রত। তাই বিদ্যালয়ে নজরদারি বাড়ানোর পাশাপাশি নিয়োগের আগে চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য খতিয়ে দেখার পরামর্শ তাদের।

বাড়ি থেকে স্কুলে যাওয়ার সময় এক মুহূর্তের জন্যও মেয়ের হাত ছাড়তে চান না নারায়ণগঞ্জের নিপা রানি। গত কয়েকদিন ধরে কন্যা রূপকথাকে নিয়ে দুশ্চিন্তার মাত্রাটা যেন দ্বিগুণ হয়েছে।

ঠিক একই অবস্থা মিনা সালামের ক্ষেত্রেও। কন্যা নামিরাকে স্কুলের চেয়ে বাড়িতে বসে লেখাপড়া করানোতেই বেশি স্বস্তি বোধ করেন তিনি।

এমন সব চিত্র যেন নারায়ণগঞ্জের অধিকাংশ কন্যা সন্তানের অভিভাবকদের। এই দুশ্চিন্তার কারণ, সম্প্রতি স্কুল শিক্ষক কর্তৃক ছাত্রী ধর্ষণের দুটি ঘটনা।

শিক্ষকরা বলছেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নজরদারি আরও বাড়তে হবে। একইসাথে শিক্ষক নিয়োগে তাদের চারিত্রিক বিষয়ও খতিয়ে দেখতে হবে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী জানায়, এই ধরণের ঘটনা পুনরাই যাতে না ঘটে এ ব্যাপারে তৎপর রয়েছেন তারা। আর এরইমধ্যে বিভিন্ন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের জেলার সকল স্কুল ও মাদ্রাসা বিশেষভাবে পর্যবেক্ষণের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

গত ২৭ জুন সিদ্ধিরগঞ্জে অক্সফোর্ড স্কুলে ৫ম থেকে ১০ম শ্রেণীর ২০ ছাত্রীকে ধর্ষণ ও যৌন নিপিড়নের ঘটনায় শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম আরিফ ও ঘটনার মদদদাতা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে গ্রেপ্তার করা হয়। এর রেশ না কাটতেই ৪ জুলাই ফতুল্লায় ১২ ছাত্রীতে ধর্ষণ ও যৌন নিপিড়নের অভিযোগে মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক মাওলানা আল আমীনকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব।

নিউজটির ভিডিও-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর