channel 24

সর্বশেষ

  • চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের নতুন সভাপতি এম এ সালাম...

  • সাধারণ সম্পাদক শেখ আতাউর রহমান

  • এসএ গেমস: ভারোত্তোলনে মাবিয়া আক্তার, জিয়ারুল ইসলাম...

  • ফেন্সিংয়ে ফাতেমা মুজিব স্বর্ণ জিতেছেন; বাংলাদেশের স্বর্ণ ৭

  • কারো নির্দেশে নয়, হস্তক্ষেপমুক্ত বিচার বিভাগ চাই: বিচারপতি নুরুজ্জামান

  • রাষ্ট্রের তিনটি বিভাগের মধ্যে সমন্বয় থাকা প্রয়োজন...

  • একের কাজে অন্যের হস্তক্ষেপ ন্যায়বিচার বাধাগ্রস্ত করে: প্রধানমন্ত্রী

  • খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে নাটক করছে সরকার: ফখরুল...

  • মুক্তি দাবিতে রাজধানীসহ দেশের সব জেলায় বিক্ষোভ কাল

  • স্টামফোর্ডের শিক্ষার্থী রুম্পাকে ধর্ষণ ও হত্যার বিচার দাবিতে...

  • ধানমন্ডি ও সিদ্ধেশ্বরীতে সহপাঠীদের মানববন্ধন

  • অন্যায়ভাবে চাকরিচ্যুতি ও ছাঁটাইয়ের অভিযোগে...

  • এসএ টিভির কার্যালয়ে তালা দিয়েছেন আন্দোলনরত সাংবাদিকরা

  • এসএ গেমস: ভারোত্তোলন: ৭৬ কেজিতে স্বর্ণ জিতেছেন মাবিয়া আক্তার...

  • আসরে এটি বাংলাদেশের পঞ্চম স্বর্ণ...

  • ৮১ কেজি ওজন শ্রেণিতে রৌপ্য জিতেছেন জোহরা খাতুন...

  • ক্রিকেট: নেপালকে ৪৪ রানে হারিয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ...

  • স্কোর: বাংলাদেশ ১৫৫/৬ (নাজমুল হোসেন ৭৫*) নেপাল ১১১/৯

বেদখল হয়ে যাচ্ছে ঝিনাইদহের গঙ্গা-কপোতাক্ষ সেচ প্রকল্পের স্থাপনাগুলো

বেদখল হয়ে যাচ্ছে ঝিনাইদহের গঙ্গা-কপোতাক্ষ সেচ প্রকল্পের স্থাপনাগুলো

তদারকি আর মেরামতের অভাবে দিন দিন বেদখল হয়ে যাচ্ছে ঝিনাইদহের গঙ্গা-কপোতাক্ষ সেচ প্রকল্পের স্থাপনাগুলো।

লুটপাট হয়ে যাচ্ছে কোটি কোটি টাকার মালামাল। ফলে কার্যকারিতা হারাচ্ছে প্রকল্পটি। পানি পাচ্ছেন না কৃষকরা। যদিও লোকবল সংকটের দোহাই পানি উন্নয়ন বোর্ডের। এ চিত্রই বলে দিচ্ছে কতটা অবহেলায় আছে এক সময়ে ঝিনাইদহবাসীর স্বপ্নের গঙ্গা-কপোতাক্ষ সেচ প্রকল্প। ১৯৫৪ সালে সেচ সুবিধা ও বন্যা নিয়ন্ত্রণসহ নানা উদ্দেশ্যে প্রকল্পটি হাতে নেয় ওয়াবদা।

১৯৬২ সালে এ প্রকল্পে প্রথম সেচ দিয়ে চাষ হয়। ১৯৭০ ও ১৯৮২ সালে দুদফায় প্রায় ৭৩ কোটি ৮৯ লাখ টাকায় প্রকল্পের বাস্তবায়ন শেষ হয়। পরের বছর নির্মাণ শুরু হয় অফিস, বাসা- বাড়ি, সড়কসহ বহু স্থাপনা।

তবে কিছুদিন ভাল চললেও তদারকির অভাবে বিলীন হয়ে যাচ্ছে কোটি কোটি টাকার সম্পদ। প্রাণ হারাচ্ছে দেশের বৃহত্তম সেচ প্রকল্পটি। এতে পানি না পেয়ে চরম দুর্ভোগে কৃষকরা। বিষয়গুলো পানি উন্নয়ন বোর্ডের নজরে দিলে দোহাই দেন লোকবল সংকটের।

ঝিনাইদহের সদর হরিণাকুন্ড ও শৈলকূপা উপজেলার ৩৩ হাজার ৮শ' ৯৯ হেক্টর আবাদী জমি রয়েছে এ প্রকল্পের আওতায়।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর