channel 24

সর্বশেষ

  • ডোপটেস্টে মাদকের উপস্থিতি থাকলে সরকারি চাকরিতে নিয়োগ বাতিল: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • এবার বাজারের পাস্তুরিত দুধে আশঙ্কাজনক কিছু পাওয়া যায়নি...

  • হাইকোর্টে বিএসটিআইয়ের রিপোর্ট জমা...

  • দুধে উদ্বেগজনক হারে অ্যান্টিবায়োটিক, ফরমালিন ও ডিটারজেন্ট...

  • পাওয়া গেছে: ঢাবির বায়োমেডিকেল রিসার্চ ও ফার্মেসি অনুষদ

  • পুরানো সব রেল ও সড়ক সেতু মেরামতের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

  • ডোপটেস্টে মাদকের উপস্থিতি থাকলে সরকারি চাকরিতে নিয়োগ বাতিল: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • এবার বাজারের পাস্তুরিত দুধে আশঙ্কাজনক কিছু পাওয়া যায়নি...

  • হাইকোর্টে বিএসটিআইয়ের রিপোর্ট জমা...

  • দুধে উদ্বেগজনক হারে এন্টিবায়োটিক, ফরমালিন ও ডিটারজেন্ট...

  • পাওয়া গেছে: ঢাবির বায়োমেডিকেল রিসার্চ ও ফার্মেসি অনুষদ

  • বাসচাপায় পা হারানো রাসেলকে ক্ষতিপূরণের বাকি ৪৫ লাখ টাকা...

  • দিতেই হবে গ্রিন লাইনকে, কমানোর সুযোগ নেই: হাইকোর্ট

  • বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে প্রথমবারের মতো লিভার ট্রান্সপ্লান্ট চালু হয়েছে: উপাচার্য

খুলনায় সহকারী কর কমিশনারের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ

খুলনায় সহকারী কর কমিশনারের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ

অভিনব কায়দায় সাড়ে তিন কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে খুলনা কর অঞ্চলের সহকারী কর কমিশনার মো. মেজবাহ উদ্দিন আহমেদের বিরুদ্ধে।

করদাতাদের দেয়া পে-অর্ডার, ডিডি ও ক্রস চেক সরকারি কোষাগারে চালানের মাধ্যমে জমা না দিয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতনের অ্যাকাউন্টে জমা দিয়ে হাতিয়ে নেন তিনি। এই ঘটনায় মামলা হয়েছে। তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে পিবিআইকে।

সহকারী কর কমিশনার মেজবাহ উদ্দিন। ২০১৭ সালের মে মাস থেকে ২০১৮ সালের নভেম্বর পর্যন্ত কর্মরত ছিলেন বাগেরহাটে। এ সময় করদাতাদের কাছ থেকে আদায় করেন পে-অর্ডার, ডিডি ও ক্রস চেক।

এগুলো চালানের মাধ্যমে সরকারি কোষাগারে জমা দেয়ার কথা ছিলো। কিন্তু কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে তা জমা দিয়ে টাকা আত্মসাৎ করেন তিনি। পরবর্তীতে মাগুরা ও কুষ্টিয়ায় কর্মরত থাকাকালীনও এভাবে টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

আয়কর বিভাগের তদন্তে অর্থ আত্মসাতের প্রমাণ মেলায় গত ১৯ মে বরখাস্ত করা হয় তাকে। মামলা করা হয়েছে খুলনার মহানগর হাকিম আদালতে। মামলাটি তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়েছে পিবিআইকে। কিন্তু এখনও কোনো কাগজপত্র পায়নি পিবিআই।

বাগেরহাটের ৪টি, মাগুরার একটি ও কুষ্টিয়ার একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে উত্তোলন করা হয়েছে মোট তিন কোটি ৪৭ লাখ টাকা।

আয়কর কর্মকর্তাদের দাবি, ব্যাংক কর্মকর্তাদের সহযোগিতা ছাড়া এই কাজ সম্ভব হয়নি। আত্মসাৎ করা টাকা পুনরুদ্ধারে চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে আয়কর বিভাগ।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর