channel 24

সর্বশেষ

  • গাড়ি চাপায় বৃদ্ধকে হত্যার অভিযোগে কুশাল মেন্ডিস গ্রেফতার

  • বাংলাদেশ বিমানের আবুধাবি ফ্লাইট ৩০ জুলাই পর্যন্ত স্থগিত

  • সভাপতি ও মহাসচিবের দ্বন্দ্বে বিপর্যস্ত শ্যুটিং ফেডারেশন

  • সৌদিতে বাংলাদেশ কনস্যুলেট অফিসের সামনে ভোগান্তি বাড়ছে

  • চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের সিনিয়র রিপোর্টার আরিফুল সাজ্জাতের বাবার ইন্তেকাল

  • হারিয়ে যাওয়া গৃহকর্মী খুশিকে কাকতালীয়ভাবে পাওয়া গেল ৭ বছর পর

  • পাপুল দম্পতির ত্রাসের রাজত্ব, ভিটেমাটি ছাড়া মেঘনা পাড়ের ৫০০ পরিবার

  • নিরাপদ খাদ্য বিষয়ে স্নাতকোত্তর কোর্স চালু করতে চায় দুই কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়

  • স্পেনে ভোগান্তিতে পড়া অবৈধ বাংলাদেশিদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ

  • সিরাজগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ছাত্রলীগ নেতা বিজয় মারা গেছেন

  • গাজীপুরে বিলে গোসল করতে নেমে ডুবে ৩ তরুণের মৃত্যু

  • আসামে বন্যা ও ভূমিধসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬১ জনে

  • এ সপ্তাহে ফের কমেছে শেয়ার হাতবদলের পরিমাণ

  • খুলনার চার হাসপাতালে চালু হচ্ছে করোনা ইউনিট

  • টুঙ্গিপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসক লাঞ্ছিতের অভিযোগ

ফণীর প্রভাবে গৃহহীন মানুষ; ত্রাণ নয়, পুনর্বাসনের দাবি

ফণীর প্রভাবে গৃহহীন মানুষ; ত্রাণ নয়, পুনর্বাসনের দাবি

নোয়াখালীতে ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে গৃহহীন অনেক মানুষ এখনও খোলা আকাশের নিচে। দিনে কোনোমতে থাকলেও রাত কাটে ঝড় বৃষ্টি আতঙ্কে। ভুক্তভোগীরা বলছেন, এই কদিনে সরকারি বেসরকারিভাবে যে সহায়তা দেয়া হয়েছে, তা ফুরিয়ে গেছে। তবে ত্রাণ নয় তাদের দাবি, পুনর্বাসন। স্থানীয় প্রশাসন বলছে, রোজার ঈদের আগেই এই মানুষগুলোর পুনর্বাসনে সরকার আন্তরিক।

সরকারি হিসেবে ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে নোয়াখালী সদর, সুবর্ণচর ও কোম্পানিগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ৬৮৯টি বাড়ি সম্পূর্ণ এবং ৩৩৩টি বাড়ি আংশিক বিধ্বস্ত হয়। এরমধ্যে সদর উপজেলার ধর্মপুর ইউনিয়নের পূর্ব শূল্লকিয়া ও সুবর্ণচর উপজেলার ওয়াপদা ইউনিয়নের চর আমিনুল হক গ্রামে দুই শতাধিক ঘর সম্পূর্ণ বিধ্বস্ত হয়। ভেঙে গেছে প্রচুর গাছপালা।

আকস্মিক ঝড়ে শুধু বাড়িঘর নয়, উড়িয়ে নিয়ে গেছে খাদ্যশস্য, মুরগি ও গরুর খামারও। সব হারিয়ে দিশেহারা অনেক পরিবার। চাহিদার তুলনায় তারা সরকারি বেসরকারি যে সহায়তা পেয়েছে তাও ফুরিয়ে গেছে। এখনও খোলা আকাশের নিচে সামিয়ানা টানিয়ে থাকছে পরিবারগুলো। ৎ

নোয়াখালীর জেলা প্রশাসক তন্ময় দাসের দাবি, শুরু থেকেই সরকারিভাবে পর্যাপ্ত ত্রাণ দেয়া হয়েছে। এরইমধ্যে পুনর্বাসনেরও উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। রোজার ঈদের আগেই ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের আশ্বাস তার।

ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রণালয়ের হিসাবে, ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে দেশের বিভিন্ন খাতে ৫শ ৩৬ কোটি ৬১লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। এরমধ্যে রয়েছে বাড়িঘর, বাঁধ, রাস্তা, ফসল, মাছ, বন ও পরিবেশগত ক্ষয়ক্ষতি।

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর