channel 24

সর্বশেষ

  • করোনার প্রভাবে প্রতিদিন দুগ্ধ খামারের লোকসান ৫৭ কোটি টাকা

  • নিউইয়র্কে গত ২৪ ঘন্টায় ৫ বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নাগরিকের মৃত্যু

  • করোনায় ক্ষতির মুখে ছাপা অক্ষরের গণমাধ্যম

  • নিম্নবিত্তের প্রতিদিনের খাবার জোটাতে নীরব আর্তনাদ

  • গণমাধ্যমের জন্য জরুরি প্রণোদনা প্যাকেজ দাবি এডিটরস গিল্ড বাংলাদেশের

  • ফিলিপাইনে উড্ডয়নের পরপরই বিমানে আগুন, নিহত ৮

  • শেরপুরে জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে এক নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু

  • করোনা: বিশ্বে প্রাণহানির সংখ্যা প্রায় ৩৪ হাজার, আক্রান্ত ৭ লাখ ২০ হাজার

  • ইতালিতে গত ২৪ ঘন্টায় আরও ৭৫৬ জনের প্রাণহানি

  • দানব হয়ে উঠছে করোনা, প্রাণহানি ৩২ হাজার ১৩৭ জনের

  • চার মাসের বেতন নেবেন না রোনালদো

  • করোনা প্রতিরোধে দাতব্য সংস্থা 'দ্য সাকিব আল হাসান ফাউন্ডেশন'র আত্মপ্রকাশ

  • বাহাত্তরে বঙ্গবন্ধুর টাঙ্গাইল সফরে ১ লাখ ৪ হাজার অস্ত্র জমা দেন মুক্তিযোদ্ধারা

  • স্পেনে করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় ৮৩৮ জনের প্রাণহানি

  • কাঁচা পাট ও চিংড়ি রপ্তানি বন্ধে খুলনায় কর্মহীন ২৩ হাজারের বেশি শ্রমিক

ফণীর প্রভাবে গৃহহীন মানুষ; ত্রাণ নয়, পুনর্বাসনের দাবি

ফণীর প্রভাবে গৃহহীন মানুষ; ত্রাণ নয়, পুনর্বাসনের দাবি

নোয়াখালীতে ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে গৃহহীন অনেক মানুষ এখনও খোলা আকাশের নিচে। দিনে কোনোমতে থাকলেও রাত কাটে ঝড় বৃষ্টি আতঙ্কে। ভুক্তভোগীরা বলছেন, এই কদিনে সরকারি বেসরকারিভাবে যে সহায়তা দেয়া হয়েছে, তা ফুরিয়ে গেছে। তবে ত্রাণ নয় তাদের দাবি, পুনর্বাসন। স্থানীয় প্রশাসন বলছে, রোজার ঈদের আগেই এই মানুষগুলোর পুনর্বাসনে সরকার আন্তরিক।

সরকারি হিসেবে ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে নোয়াখালী সদর, সুবর্ণচর ও কোম্পানিগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ৬৮৯টি বাড়ি সম্পূর্ণ এবং ৩৩৩টি বাড়ি আংশিক বিধ্বস্ত হয়। এরমধ্যে সদর উপজেলার ধর্মপুর ইউনিয়নের পূর্ব শূল্লকিয়া ও সুবর্ণচর উপজেলার ওয়াপদা ইউনিয়নের চর আমিনুল হক গ্রামে দুই শতাধিক ঘর সম্পূর্ণ বিধ্বস্ত হয়। ভেঙে গেছে প্রচুর গাছপালা।

আকস্মিক ঝড়ে শুধু বাড়িঘর নয়, উড়িয়ে নিয়ে গেছে খাদ্যশস্য, মুরগি ও গরুর খামারও। সব হারিয়ে দিশেহারা অনেক পরিবার। চাহিদার তুলনায় তারা সরকারি বেসরকারি যে সহায়তা পেয়েছে তাও ফুরিয়ে গেছে। এখনও খোলা আকাশের নিচে সামিয়ানা টানিয়ে থাকছে পরিবারগুলো। ৎ

নোয়াখালীর জেলা প্রশাসক তন্ময় দাসের দাবি, শুরু থেকেই সরকারিভাবে পর্যাপ্ত ত্রাণ দেয়া হয়েছে। এরইমধ্যে পুনর্বাসনেরও উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। রোজার ঈদের আগেই ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের আশ্বাস তার।

ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রণালয়ের হিসাবে, ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে দেশের বিভিন্ন খাতে ৫শ ৩৬ কোটি ৬১লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। এরমধ্যে রয়েছে বাড়িঘর, বাঁধ, রাস্তা, ফসল, মাছ, বন ও পরিবেশগত ক্ষয়ক্ষতি।

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর