channel 24

সর্বশেষ

  • কমলাপুর স্টেশনে ট্রেনের বগি থেকে নারীর মরদেহ উদ্ধার

  • ২২ তারিখের বৈঠকে বকেয়া বিষয়ে সিদ্ধান্ত: ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশন...

  • পাওনা পরিশোধের নির্দেশনা না এলে...

  • তৈরি হবে অচলাবস্থা: হাইড অ্যান্ড স্কিন মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশন

  • জাতীয় স্কুল মিল নীতিমালার খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন...

  • প্রাথমিকে মোট ক্যালরির ৩০ ভাগ পূরণ করতে হবে স্কুলকে

  • নকশা জালিয়াতি: বনানীর এফ আর টাওয়ারের মালিক ফারুক গ্রেপ্তার

  • খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে না পেরে বিদেশে নালিশ করছে বিএনপি: সেতুমন্ত্রী

  • ডেঙ্গু: ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি ১,৬১৫ জন: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

  • ঢাকা, বরিশাল, খুলনা, ফরিদপুর ও ময়মনসিংহে ৬ জনের মৃত্যু

  • বঙ্গবন্ধু হত্যায় জিয়া নয়, আ.লীগের লোকজন জড়িত: ফখরুল

  • জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা ভিপি নুরের

  • নবম ওয়েজ বোর্ড নিয়ে রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের ওপর আদেশ কাল...

  • সাংবাদিক ছাড়া গণমাধ্যম মালিকদের অস্তিত্ব নেই: আপিল বিভাগ

  • খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ কার্যালয়ে দুদকের অভিযান চলছে

  • তিন দিনের সফরে রাতে ঢাকায় আসছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

চাকরির পেছনে না ঘুরে ৭ যুবক বদলে দিয়েছে পুরো গ্রাম

চাকরির পেছনে না ঘুরে ৭ যুবক বদলে দিয়েছে পুরো গ্রাম

দিন শুরু হতো ঝগড়া বিবাদে শেষ হতো রাতের নিরবতায়। মাদক, বেকারত্ব আর ঋণের জালে বন্দি সেই গ্রামের চেহারা বদলে দিয়েছেন সাত যুবক। প্রথমে নিজেরাই বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ নেন। পরে প্রশিক্ষণ দেন বেকার নারী-পুরুষদের।

মাত্র পাঁচ বছরে বদলে গেছে বগুড়া সদর উপজেলার শশীবদনী গ্রাম। পিচঢালা আঁকাবাঁকা পথ পেরিয়ে বগুড়া সদরের শশীবদনী গ্রাম। চাকরির পেছনে ঘুরে ব্যর্থ হয়ে ২০১৪ সালের মাঝামাঝি শশীবদনী যুব ও আত্মকর্মসংস্থান সংস্থা গড়ে তোলেন এই গ্রামেরই সাত যুবক।

শুরুতে তারা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর থেকে কম্পিউটার ও পোশাক তৈরির প্রশিক্ষণ নেন। এরপর শুরু করেন অন্যদের প্রশিক্ষণ দেয়া।

পোশাক তৈরিতে দক্ষতা অর্জন করে সবাই। দ্রুতই চমকে দেন সবাইকে। তাদের তৈরি পোশাক ব্যাপক প্রশংসা পায়। কম দামে ভালো পোশাক পেয়ে খুশি ক্রেতারাও।

অর্থনৈতিকভাবে সহায়তা করতে না পারলেও শুরু থেকেই এই সাত যুবকের কর্মকান্ডে সমর্থণ ও উৎসাহ দিয়েছে গ্রামের সাধারণ মানুষ।

সংগঠনের লাভের টাকায় এই যুবকরা বানিয়েছেন দ্বিতল পাকা ভবন। খুলেছেন একাধিক বিক্রয় কেন্দ্র। শুরুতে সংগঠনের পুঁজি ছিলো ৩৫ হাজার টাকা, এখন তা ৩৫ লাখ টাকা ছাড়িয়েছে।

এরইমধ্যে এই যুবকরা পেয়েছেন সরকারি স্বীকৃতি। যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের শীর্ষ কর্মকর্তারা বলছেন, শশীবদনী গ্রামের আদলে তারা অন্য গ্রামের বেকারত্ব দূর করার পরিকল্পনা নিচ্ছেন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর