channel 24

সর্বশেষ

  • অপরাধ করলে নিজের দলের লোককেও ক্ষমা নয়: ওবায়দুল কাদের

  • ক্যাসিনোর মূল হোতারা ধরা না পড়ায় অভিযান প্রশ্নবিদ্ধ: রিজভী

  • রোহিঙ্গাদের এনআইডি জালিয়াতি: চট্টগ্রাম ও কক্সবাজর অঞ্চলের...

  • ৭ ইসি কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে দুদকের অনুসন্ধান শুরু

  • জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় একটি বাড়িতে...

  • কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের অভিযান; বোমা তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার; আটক ৩

  • অর্থ আত্মসাৎ: পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের...

  • তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. ইউনুছ শরীফ সাময়িক বরখাস্ত

  • নওগাঁর নিয়ামতপুরে বিএনপির দুপক্ষের সংঘর্ষে ইউপি চেয়ারম্যান নিহত

  • জাতিসংঘের ৭৪তম অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্কে প্রধানমন্ত্রী...

  • এবারের অধিবেশনে রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান খোঁজা হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় একটি বাড়িতে...

  • পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের অভিযান; আটক ৩

  • আন্দোলনের মুখে কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরকে প্রত্যাহার

  • গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির পদত্যাগ দাবিতে...

  • পঞ্চম দিনের মতো অনশনে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা

বাংলা ভাষার সঠিক চর্চা নিয়ে ভাষা সৈনিক মুসার আক্ষেপ

বাংলা ভাষার সঠিক চর্চা নিয়ে ভাষা সৈনিক মুসার আক্ষেপ

মায়ের ভাষার অধিকার আদায়ে যারা রাজপথে নেমেছিলেন, জীবনের ঝুঁকি নিয়ে স্লোগানে মুখরিত করেছিলেন রাজপথ।

তাদের অধিকাংশই আজ প্রয়াত। তবে হাতেগোনা যে কজন ভাষা সৈনিক বেঁচে আছেন তাদেরই একজন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মুহাম্মদ মুসা।

এই প্রবীণের প্রশ্ন, যে ভাষার জন্য অকাতরে প্রাণ দিয়েছিল বাংলার দামাল ছেলেরা সে ভাষার চর্চা কতটুকু হচ্ছে?

ভাষা সৈনিক মুহাম্মদ মুসা। পেশাগত জীবনে শিক্ষকতার পাশাপাশি করছেন সাংবাদিকতাও। বয়সের ভারে চলার গতি শ্লথ হলেও এখনও কাজ করছেন শিক্ষার উন্নয়নে।

বায়ান্নতে ভাষা আন্দোলনের সময় নেতৃত্ব দিয়েছিলেন সামনে থেকেই। সেই সময়ের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে বললেন, উর্দুকে রাষ্ট্রভাষা করার ঘোষণা পর দেশের অন্যান্য স্থানের মতো ব্রাহ্মণবাড়িয়াতেও সর্বাত্মক ধর্মঘট পালিত হয়।

তবে তার আক্ষেপ, যে রক্তের বিনিময়ে বাংলা ভাষার অধিকার আদায় করা হলো সেই ভাষার সঠিক চর্চা হচ্ছে না। নানা বিদেশি ভাষার আগ্রাসনে বাংলা তার চরিত্র হারাচ্ছে বলেও মনে করেন তিনি।

নতুন প্রজন্মের মতে, মাতৃভাষার সুষ্ঠু ব্যবহার এবং এর প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে হবে সবাইকে। প্রয়োজনের তাগিদে ইংরেজি শিখতে হলেও তা যেন কোন অবস্থাতেই বাংলাকে দখল না করে।

নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা মনে করেন, দেশের বিভিন্ন স্থানে যেসব ভাষা সৈনিক এখনও বেঁচে আছেন তাদের খুঁজে বের করা এবং তাদের কেউ অসহায় অবস্থায় থাকলে তাঁদের পাশে দাঁড়ানো রাষ্ট্রের দায়িত্ব।

ভাষা সৈনিক মর্যাদা নিশ্চিতের পাশাপাশি উচ্চ আদালতের নির্দেশনা মেনে সর্বস্তরে বাংলা ভাষার সঠিক চর্চারও তাগিদ দিয়েছেন সবাই।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর