channel 24

সর্বশেষ

  • চ্যানেল 24 এ সংবাদ প্রচারের পর ৩০ বছর আগের...

  • সগিরা মোর্শেদ হত্যা মামলার তদন্তে নতুন মোড়...

  • তার স্বামীর বড় ভাই ও ভাবিসহ গ্রেপ্তার ৪, আদালতে স্বীকারোক্তি...

  • ভিকারুননিসা নূন স্কুল থেকে মেয়েকে আনতে গিয়ে খুন হন তিনি...

  • ছিনতাইকারীর হাতে এ হত্যাকাণ্ড বলে সেই সময় প্রচার হয় গণমাধ্যমে

  • প্রথমবারের মতো আয়কর মেলায় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে...

  • রিটার্ন দাখিল ও কর পরিশোধ করেছেন তার প্রতিনিধি

  • কলকাতায় খেলা দেখতে প্রধানমন্ত্রীকে মোদির আনুষ্ঠানিক আমন্ত্রণ...

  • প্রবাসী নারী শ্রমিক নির্যাতন বন্ধে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় রংপুর এক্সপ্রেসের ৯টি বগি লাইনচ্যুত...

  • ৩টি বগিতে আগুন, ঢাকার সাথে উত্তর ও দক্ষিণের যোগাযোগ বন্ধ...

  • আগুন নিয়ন্ত্রণে, কোনো হতাহত নেই: রেলসচিব

  • ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সংঘর্ষের আগে তূর্ণার গতি ছিল ঘণ্টায় ২০ কি.মি...

  • চালক ওভার ডিউটি করেনি: রেলমন্ত্রী

  • দেশীয় ও আন্তর্জাতিক আইন ভঙ্গ করে চলছে জাহাজভাঙা শিল্প: হাইকোর্ট

  • সাগর-রুনি হত্যা: আগামী বছরের ৪ মার্চের মধ্যে..

  • হাইকোর্টে অগ্রগতি রিপোর্ট দাখিলের নির্দেশ

  • ইন্দোর টেস্ট: প্রথম দিন প্রথম ইনিংসে ব্যাট করছে ভারত...

  • স্কোর: বাংলাদেশ ১৫০ (মুশফিক ৪৩, শামি ৩/২৭)

পাবনার শীর্ষে থাকা স্কুলের বেহাল দশা

পাবনার শীর্ষে থাকা স্কুলের বেহাল দশা

শ্রেণিকক্ষ ও বেঞ্চ সংকটসহ নানা কারণে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে, পাবনার দোলং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের। স্থান সংকুলান না হওয়ায় খোলা বারান্দায় আর গাছতলায় চলছে পাঠদান। আবার বেঞ্চ সংকটের কারণে শ্রেণিকক্ষে গাদাগাদি করে বসে, আবার কখনও দাঁড়িয়ে ক্লাস করতে হয় তাদের। রয়েছে শিক্ষক সংকটও। অথচ পরীক্ষার ফলাফলে বরাবরই উপজেলার শীর্ষে থাকে এ স্কুলটি।

পাবনার চাটমোহর উপজেলার দোলং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। শিক্ষার মান ও ফলাফলে উপজেলায় যার অবস্থান শীর্ষে। ফলে অভিভাবকদের আগ্রহে প্রতিবছর এখানে বাড়ছে শিক্ষার্থীর সংখ্যা।

কিন্তু বাড়ছে না শ্রেণিকক্ষ ও সরঞ্জাম। জরাজীর্ণ ভবনে শিশুদের ঠাসাঠাসি। বেঞ্চের অভাবে অনেক সময় দাঁড়িয়েও ক্লাস করতে হয়। ফলে স্কুলের বারান্দা আর গাছতলাই ভরসা।

আরও জানতে: বাবার সম্পত্তি হাতিয়ে নিতে সৎ মাকে হেনস্তা

আসামির মরদেহে হারকিউলিসের চিরকুট নিয়ে প্রশ্ন

উদোর পিণ্ডি বুদোর ঘাড়ে

১৯৬৬ সালে প্রতিষ্ঠিত স্কুলটি জাতীয়করণ হয় ২০১৩ সালে। ৭ জন শিক্ষকের বিপরীতে আছেন ৪ জন। ফলে হিমশিম খেতে হচ্ছে তাদের।

স্কুলের নতুন ভবন নির্মাণের জন্য উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে চাহিদা পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে, উপজেলা প্রশাসন।

নতুন ভন নির্মাণ সংকট কাটিয়ে উঠতে পারলে চাটমোহর উপজেলার শীর্ষে থাকা এই সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরিবেশ আরও উন্নত হবে বলে আশাবাদী স্থানীয়রা। বর্তমানে এই স্কুলের শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৩২৭।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর