channel 24

সর্বশেষ

  • জুলাইয়ের ২য় সপ্তাহের মধ্যে ঢাকা ওয়াসার পানি পরীক্ষার...

  • প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ হাইকোর্টের

  • কেরাণীগঞ্জে খালেদা জিয়াকে স্থানান্তর সরকারের নতুন ষড়যন্ত্র...

  • এখানে আদালত স্থাপন সংবিধান পরিপন্হি: মওদুদ

  • কুষ্টিয়ায় স্কুল শিক্ষিকাকে ধর্ষণের দায়ে প্রধান শিক্ষক...

  • শরিফুল ইসলামকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ১ লাখ টাকা জরিমানা

  • মাদারীপুরের স্কুলছাত্রী ধর্ষণচেষ্টা ও নির্যাতনের মামলায়...

  • পুলিশ সদস্য মোক্তার হোসেন মোল্লা গ্রেপ্তার

  • রিপোর্ট পাওয়ার পরেও দুধে সিসা পরীক্ষা না করায়...

  • বিএসটিআইএর কার্যক্রমে হাইকোর্টের অসন্তোষ

  • সদরঘাটে দখল করে থাকা ২৭টি দোকান উচ্ছেদ করেছে বিআইডব্লিউটিএ

  • সংরক্ষিত নারী আসনে বিএনপির রুমিন ফারহানার মনোনয়ন বৈধ: ইসি

নারায়ণগঞ্জের সাত খুন মামলায় হাইকোর্টের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ

নারায়ণগঞ্জের সাত খুন মামলায় হাইকোর্টের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ

সোমবার (১৯ নভেম্বর) বিকেলে সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইটে নারায়ণগঞ্জের আলোচিত সাত খুন মামলায় হাইকোর্টের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশিত হয়েছে।

গত ২২ আগস্ট সাত খুন মামলায় সাবেক কাউন্সিলর নূর হোসেন, র‍্যাব-১১-এর সাবেক অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল (অব.) তারেক সাঈদ মোহাম্মদ, সাবেক কোম্পানি কমান্ডার মেজর (অব.) আরিফ হোসেনসহ ১৫ জনের মৃত্যুদণ্ডের রায় বহাল রাখেন হাইকোর্ট। বাকি ১১ জনের মৃত্যুদণ্ড পরিবর্তন করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- নূর হোসেন, তারেক সাঈদ ও আরিফ হোসেন ছাড়া মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত অপর আসামিরা হলেন লে. কমান্ডার (চাকরিচ্যুত) এম মাসুদ রানা, ল্যান্স নায়েক হিরা মিয়া, ল্যান্স নায়েক বেলাল হোসেন, হাবিলদার মো. এমদাদুল হক, এ বি মো. আরিফ হোসেন, সিপাহি আবু তৈয়ব আলী, কনস্টেবল মো. শিহাব উদ্দিন, এসআই পূর্ণেন্দু বালা, সৈনিক আবদুল আলিম, সৈনিক মহিউদ্দিন মুনশি, সৈনিক আল আমিন, সৈনিক তাজুল ইসলাম।

যাবজ্জীবন পাওয়া আসামিরা হলেন- সৈনিক আসাদুজ্জামান নুর, নূর হোসেনের সহযোগী আলী মোহাম্মদ, সার্জেন্ট এনামুল কবির, মিজানুর রহমান, রহম আলী, আবুল বাশার, মোর্তুজা জামান, সেলিম, সানাউল্লাহ, শাহজাহান ও জামালউদ্দিন।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ২৭ এপ্রিল ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোড থেকে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট চন্দন সরকারসহ সাতজন অপহৃত হন। ৩০ এপ্রিল (তিন দিন পর ) শীতলক্ষ্যা নদীতে ভেসে ওঠে ছয়টি লাশ, পরদিন মেলে আরেকটি লাশ। নিহত অন্য ব্যক্তিরা হলেন নজরুলের বন্ধু মনিরুজ্জামান স্বপন, তাজুল ইসলাম, লিটন, গাড়িচালক জাহাঙ্গীর আলম ও চন্দন সরকারের গাড়িচালক মো. ইব্রাহীম। ঘটনার এক দিন পর কাউন্সিলর নজরুলের স্ত্রী সেলিনা ইসলাম বাদী হয়ে আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতা (পরে বহিষ্কৃত) নূর হোসেনসহ ছয়জনের নাম উল্লেখ করে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা করেন। আইনজীবী চন্দন সরকার ও তাঁর গাড়িচালক ইব্রাহিম হত্যার ঘটনায় ১১ মে একই থানায় আরেকটি মামলা হয়। এ মামলার বাদী চন্দন সরকারের জামাতা বিজয় কুমার পাল। পরে দুটি মামলা একসঙ্গে তদন্ত করে পুলিশ।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর