channel 24

সর্বশেষ

  • ৫০০ কোটি টাকা পরিশোধিত মূলধনের শর্তে...

  • পিপলস, বেঙ্গল ও সিটিজেন নামে ৩টি ব্যাংকের...

  • অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক

  • মাওলানা সাদ সমর্থকদের ইজতেমার আখেরি মোনাজাত...

  • মঙ্গলবার সকাল ১০টায়: গাজীপুর জেলা প্রশাসক

  • জামায়াত অন্য নামে এলেও জনগণের বুঝতে সমস্যা হবে না: অ্যাটর্নি জেনারেল

  • একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগে...

  • বিএনপির আরও ৪ প্রার্থীর মামলা হাইকোর্টে

  • হল থেকে ভোটকেন্দ্র সরানোসহ সব দাবি আজকের মধ্যে...

  • না মানলে কাল ভিসি কার্যালয় ঘেরাও: বামপন্হি ছাত্র সংগঠনের ২ জোট

  • কিশোরগঞ্জে ২ কলেজছাত্রী ধর্ষণ ও হত্যা: পুলিশ সদস্যসহ ২ জনের মৃত্যুদণ্ড

  • রাজধানীর মগবাজার ফ্লাইওভার থেকে পড়ে যুবকের মৃত্যু

  • নোয়াখালীতে বজ্রপাতে বাবা-ছেলে ও সিরাজগঞ্জে দেয়ালধসে নিহত ২

  • ২১ মে'র মধ্যে দেশের সব টেলিভিশন চ্যানেল...

  • বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ ব্যবহার করবে: অ্যাটকো...

  • আগামী ৬ মাসের মধ্যে পে চ্যানেলে যাচ্ছে দেশের সব টেলিভিশন

  • চট্টগ্রামে চাক্তাইয়ে ভেড়া মার্কেট বস্তিতে আগুন; ৯ জনের মরদেহ উদ্ধার...

  • দুই পরিবারের ৭ ও অজ্ঞাত ২ জন; তদন্তে ৪ সদস্যের কমিটি

  • সংসদে সংরক্ষিত আসনে ৪৯ জনকে সরকারিভাবে বিজয়ী ঘোষণা

  • ৫ হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের চেয়ে স্কুল গুরুত্বপূর্ণ...

  • হাইকোর্টের মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় দুদক চেয়ারম্যান

  • দুর্নীতি রোধে মানুষের মানসিকতার ইতিবাচক পরিবর্তন দরকার: আইনমন্ত্রী

  • মাদক ব্যবসায়ীদের আত্মসমর্পণের নামে সরকার তামাশা শুরু করেছে: ড. মোশাররফ

  • পরাজয়ের ভয়ে ছাত্রদল ডাকসু নির্বাচনে আসতে চাচ্ছে না: ছাত্রলীগ

  • হল থেকে ভোটকেন্দ্র সরানোসহ সব দাবি আজকের মধ্যে...

  • না মানলে কাল ভিসি কার্যালয় ঘেরাও: বামপন্থি ছাত্র সংগঠনের ২ জোট

কক্সবাজারে সন্ত্রাসী গ্রুপের কাছে জিম্মি চিংড়ি খাত

কক্সবাজারে সন্ত্রাসী গ্রুপের কাছে জিম্মি চিংড়ি খাত

চিংড়ি চাষের জন্য দেশের অন্যতম এলাকা কক্সবাজারের চকরিয়া। তবে চাঁদাবাজি, ডাকাতিতে অতিষ্ঠ ঘের মালিকরা। ৫ থেকে ৭টি সশস্ত্র সন্ত্রাসী গ্রুপের কাছে জিম্মি এখানকার চিংড়ি খাত। প্রতিমাসে দিতে হয়, কোটি টাকার ওপর চাঁদা। যাদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দিচ্ছেন স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তি।

চিংড়ি উৎপাদনের জন্য সারাদেশেই পরিচিত কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলা। সেখানকার উপকুলীয় জনপদ চরণদীপ ও সওদাগরঘোনা। যেখানে চাঁদাবাজির কারণে অনেকদিন ধরেই অতিষ্ঠ ঘের মালিকরা। নৌপথে যেতে হয় এই জনপদে। রাতের অন্ধকারে নিরিবিলি এলাকাটিতে পৌছে দেখা মিললো কয়েকজনের। যাদের সবার হাতেই অস্ত্র। মূলত তারাই জড়িত এই চাঁদাবাজি আর ডাকাতিতে। যা চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের কাছে স্বীকারও করেন তাদের কয়েকজন।

তাদের দাবি, এসব কাজে নেপথ্যে রয়েছেন এলাকার কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তি। যারা তাদের আশ্রয় যেমন দেন, তেমনি এই জগত থেকে সরে আসতে চাইলে, চালায় নির্যাতন। জড়িয়ে দেয়া হয় মামলার জালে। চকরিয়ার পুরো উপকুলজুড়েই এই অপরাধীদের দাপট। ঘের মালিকরা বলছেন, এসব সন্ত্রাসী গ্রুপের কাছে তারা এখন একপ্রকার জিম্মি। তবে এসব দুর্বৃত্তের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান জেলা পুলিশের এই কর্মকর্তা। চকরিয়ায় চিংড়ি ঘের আছে প্রায় পয়ত্রিশ হাজার একর। যেখানে চাঁদাবাজি আর ডাকাতিতে জড়িত ৫ থেকে ৭টি বাহিনী। তাদের প্রতিমাসে আদায় করা চাঁদার পরিমাণ কোটি টাকার বেশি।  

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর