channel 24

সর্বশেষ

  • দুর্নীতি মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য...

  • ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া নিজ বাসা থেকে গ্রেপ্তার

  • পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত কোনো ধরনের উন্নয়ন প্রকল্পের অনুমোদন...

  • ঘোষণা, ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমের ওপর...

  • নিষেধাজ্ঞা দিয়ে সরকারকে নির্বাচন কমিশনের চিঠি

  • রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সাথে সভা না করতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগসহ...

  • সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগকে চিঠি দেবে কমিশন: ইসি সচিব...

  • নির্বাচন কমিশন স্বাধীন প্রতিষ্ঠান, কারও চাপে সিদ্ধান্ত নেয় না

  • শেখ হাসিনা ২টি ও বাকিরা একটি আসনে মনোনয়ন পাচ্ছেন...

  • কক্সবাজারে বদি ও টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে আমানুর রহমান...

  • আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাচ্ছেন না: ওবায়দুল কাদের...

  • ২৪/২৫ নভেম্বর নাগাদ মহাজোটের প্রার্থিতা ঘোষণা

  • সম্পদের তথ্য গোপন: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য...

  • ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়ার ৩ বছরের কারাদণ্ড

  • এবার সব দলের অংশগ্রহণে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে...

  • কোনো পর্যবেক্ষণ সংস্থা দায়িত্ব পালনে অনিয়ম করলে ব্যবস্থা: ইসি সচিব

  • তৃতীয় দিনের মতো চলছে বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার

  • গুলশানে জাপার মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠান চলছে...

  • জাতীয় পার্টি যে জোটে তারাই ক্ষমতায় আসবে: রুহুল আমিন হাওলাদার

ঠাকুরগাঁওয়ের ধর্মপুরে গুচ্ছগ্রামটি ভেঙে যাওয়ার শঙ্কা

ঠাকুরগাঁওয়ের ধর্মপুরে গুচ্ছগ্রামটি ভেঙে যাওয়ার শঙ্কা

ঠাকুরগাঁওয়ের ধর্মপুরে ভূমিহীনদের জন্য নির্মিত গুচ্ছগ্রামটি যেকোনো সময় ভেঙে যাওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। বাসিন্দাদের অভিযোগ, নদীতে ড্রেজার দিয়ে বালু তুলে, সেই বালুর উপরেই নির্মাণ করা হয়েছে টিনের ঘর। ফলে একটু বৃষ্টিতেই ধুয়ে যাচ্ছে ভিটের বালু। এদিকে গুচ্ছগ্রামের স্থান নির্বাচন নিয়ে, পাল্টাপাল্টি অভিযোগ রয়েছে স্থানীয় প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের। তীব্র গরমে নাকাল জীবন।

আর বৃষ্ট হলেই ধুয়ে যায় ভিটের বালু। এমনকি, ঘর হস্তান্তরে টাকা নেয়ারও অভিযোগ করেছেন অনেকে। বন্যা হলেই ঘর তলিয়ে যাওয়াসহ প্রাণহানীর আশঙ্কা করছেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ নাগরিক সমাজ। এই গুচ্ছগ্রামের নির্মাণের সার্বিক দায়িত্বে থাকা সদ্য বিদায়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসলাম মোল্লা বলছেন, পানি উন্নয়ন বোর্ডকে সাথে নিয়েই স্থান নির্বাচন করা হয়েছে। যদিও, তাঅস্বীকার করে পানি উন্নয়ন বোর্ডের দাবি, গুচ্ছগ্রাম নির্মাণে তাদের কোনো মতামত নেয়া হয়নি।গত ফেব্রুয়রিতে টাঙ্গন নদীর চরে নির্মাণ কাজ শুরু হয় গুচ্ছগ্রামটি। ৫০টি ঘর নির্মাণে ব্যায় হয় ৭৫ লাখ টাকা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর