খাতুনগঞ্জে কমেছে বেশিরভাগ নিত্যপণ্যের দাম

চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জে কমেছে বেশিরভাগ নিত্যপণ্যের দাম। সবচেয়ে বেশি কমেছে মসলা জাতীয় পণ্যে। যদিও, বেড়েছে পেঁয়াজ ও আদার মূল্য। তবে অবাক করা বিষয় হলেও, বেশিরভাগ পণ্যের দাম কমলেও ক্রেতা নেই এই পাইকারি বাজারে। ব্যবসায়ী নেতারা বলছেন, চাহিদা ও যোগানের সঠিক তথ্য না থাকায় প্রয়োজনের অতিরিক্ত পণ্য আমদানি হয়েছে দেশে। একইসাথে আন্তর্জাতিক বাজারেও পড়ে গেছে পণ্যের দাম।

 

মাসখানেক আগেও নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন ভোগ্য পণ্যের দাম উর্ধমুখি ছিল খাতুনগঞ্জে। তবে এখন প্রায় প্রতিটি জিনিসের দামই নিম্নমুখী। সবচেয়ে বেশি কমেছে মসলা জাতীয় পণ্যের দাম। খাতুনগঞ্জে ইলিয়াস মার্কেটের ব্যবসায়ি কাজল পালিত। গেলো ২২ বছর মসলা জাতীয় পণ্যের ব্যবসা করছেন তিনি। তবে মসলা পণ্যের দামে এমন ধস দেখেননি তিনি। কয়েক দফায় এলাচ, লবঙ্গতে দাম কমেছে কেজি প্রতি একশ থেকে দুইশ টাকা। আর জিরা, দারুচিনি, গোলমরিচে দাম কমেছে কেজি প্রতি ২০ থেকে ৭০ টাকা। 

একই অবস্থা ডাল জাতীয় পণ্যে। কয়েক দফা দাম কমে এখন মসুর ডাল বিক্রি হচ্ছে কেজিপ্রতি ৫০, মুগ ডাল ৯০ টাকা এবং ছোলার ডাল ৭৮ টাকা। আর্ন্তজাতিক বাজারে দাম কমায় এমন নিম্নমুখি বাজার। তবে দাম কমলেও বাজারে নেই তেমন বেচাকেনা। আমদানিকারকদের দাবি, চাহিদার তুলনায় অতিরিক্ত পণ্যে সয়লাব বাজার। কোন পণ্যের চাহিদা এবং যোগান কত হবে-তার কোন সঠিক পরিসংখ্যান নেই কারো কাছে। ফলে অনিয়ন্ত্রিতভাবে পণ্য আমদানি করছেন ব্যবসায়িরা। 

তবে সব পণ্যের দাম কমলেও বেড়েছে পেঁয়াজ ও আদার দাম। পেয়াজ বেড়েছে কেজিতে দুই থেকে তিন টাকা। আর আদার বেড়েছে ২০ থেকে ৩০ টাকা। 

 

চ্যানেল 24

387 South, Tejgaon I/A
Dhaka-1208, Bangladesh
Email: newsroom@channel24bd.tv
Tel: +8802 550 29724
Fax: +8802 550 19709

Save

Save

Like us on Facebook
Satellite Parameters
Webmail

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save