channel 24

সর্বশেষ

  • বিচারপতিদের শপথ ভিডিও কনফারেন্সিংয়ে; ফুল কোর্ট সভা বাতিল

  • লিবিয়ায় নিহত ২৬ বাংলাদেশির মধ্যে ২৩ জনের পরিচয় মিলেছে

  • 'আদালতের অনুমতি ছাড়া মোরশেদ খানের বিদেশ যাওয়া আইন সিদ্ধ হয়নি'

  • ছেলে সন্তানের বাবা হয়েছেন আশরাফুল

  • শ্বেতাঙ্গ পুলিশের নৃশংসতায় ৯ রাজ্যে বিক্ষোভ; ৪ পুলিশ অফিসার বরখাস্ত

  • মাটিতে পুঁতে রাখার ১১ মাস পর ব্যবসায়ীর মরদেহ উদ্ধার

  • মাঠে গড়ানোর অপেক্ষায় ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ ও সিরি আ

  • সোমবার থেকে চলবে গণপরিবহন, রোববার নৌযান

  • জন্মের মাত্র একদিনের মাথায় প্রাণঘাতী করোনার সাথে যুদ্ধ

  • লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশিসহ ৩০ জনকে গুলি করে হত্যা, আহত ১১

  • কর্মস্থলে যোগ দিতে চট্টগ্রামে ফিরছে মানুষজন

  • পার্বত্য জেলাগুলোতে সেনাবাহিনীর খাদ্য সহায়তা অব্যাহত

  • করোনা চিকিৎসায় চট্টগ্রামের বেসরকারি হাসপাতালগুলো পুরোপুরি তৎপর নয়

  • কুষ্টিয়ায় করোনা রোগীদের সেবায় একদল স্বেচ্ছাসেবী

  • চট্টগ্রামে নতুন করে ২‘শ ২৯ জন করোনায় আক্রান্ত

চট্টগ্রাম ওয়াসায় গ্রাহক প্রতিনিধি নিয়োগে স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ

চট্টগ্রাম ওয়াসায় গ্রাহক প্রতিনিধি নিয়োগে স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ

নিয়ম অনুযায়ী ওয়াসা বোর্ডের সদস্য হবেন সাধারণ গ্রাহকদের একজন। কিন্তু সেই নিয়ম লঙ্ঘন করে সদস্য করা হয়েছে রাজনৈতিক নেতাকে। এরপর তার মেয়াদ শেষ হলেও নেয়া হয়নি নতুন কাউকে। বিস্ময়কর হচ্ছে বোর্ড সদস্যসহ বিভিন্ন মহলের বিরোধীতার পরও পুনরায় একই ব্যক্তিকে সদস্য করতে চান ব্যবস্থাপনা পরিচালক। গ্রাহক প্রতিনিধি নিয়োগে এমনই স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ উঠেছে চট্টগ্রাম ওয়াসায়।

নীতি নির্ধারনী সিদ্ধান্তের জন্য ১১ সদস্যের একটি বোর্ড রয়েছে চট্টগ্রাম ওয়াসার। যার সদস্যরা বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধি। এরমধ্যে নিয়ম অনুযায়ী থাকার কথা একজন গ্রাহক প্রতিনিধি।

সাধারণ গ্রাহকের প্রতিনিধি না হলেও ২০১২ সালে সেই পদে নিয়োগ পান জাতীয় পার্টির নেতা সোলাইমান আলম শেঠ। ২০১৫ সালে যার মেয়াদ শেষ হয়। কিন্তু ওয়াসা কর্তৃপক্ষ নতুন প্রতিনিধি নিয়োগ না দেয়ায় চারবছর ধরে একই পদে রয়ে যান এই তিনি।

চট্টগ্রাম ওয়াসার বোর্ড সদস্য আবিদা আজাদ বলেন, গ্রাহকদের বিভিন্ন সময় ভুতুড়ে বিল দেয়া হচ্ছে। গ্রাহকরা সঠিকভাবে পানি পাচ্ছে না বলেও জানান এই বোর্ড সদস্য।

সম্প্রতি প্রকৃত গ্রাহক প্রতিনিধির তালিকা পাঠানোর জন্য ওয়াসাকে চিঠি দেয় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। এরপর ওয়াসা যে তিনজনের নাম পাঠায় সেখানেও রয়েছেন সোলায়মান শেঠের নাম। রয়েছেন ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালকের ঘনিষ্ট হিসেবে পরিচিত এক প্রকৌশলীর নামও।

অথচ নিয়ম অনুসারে কনজ্যুমার্স অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিনিধি রাখার নির্দেশনা থাকলেও বারবারই তা এড়িয়ে গেছে ওয়াসা কর্তৃপক্ষ। তাই সম্প্রতি এর প্রতিকার চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে চিঠি দিয়েছে ক্যাব।

চট্টগ্রাম ক্যাবের সভাপতি এসএম নাজের হোসাইন বলেন, ওয়াসা সাধারণ গ্রাহকদের মাঝ থেকে প্রতিনিধি নির্বাচনে স্বেচ্ছাচারি মনোভাব পোষন করছে। তবে এই অনিয়মের বিরুদ্ধে যথাযথ প্রক্রিয়ায় আইনের আশ্রয় নেয়া হবে বলে জানান ক্যাবের সভাপতি এসএম নাজের হোসাইন।

বিভিন্ন মহলের অভিযোগ, নিজের স্বার্থ হাসিলের জন্যই বারবার একই ব্যক্তিকে বোর্ডে স্থান দিতে চান ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক। যদিও তা অস্বীকার করেন তিনি।

প্রতিনিধি নির্বাচনে বিভিন্ন মহলের অভিযোগ প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী এ কে এম ফজলুল্লাহ জানান, যেকোন বিষয়ে আলোচনা কিংবা সিদ্ধান্ত সবাই মিলে নেয়ায় কোন সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে না।

প্রায় ৭০ হাজার গ্রাহকের এই প্রতিষ্ঠানে প্রকৃত গ্রাহক প্রতিনিধি না থাকায় প্রত্যাশিত সুফল পাচ্ছেনা নগরবাসী, এমনটি মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর