channel 24

সর্বশেষ

  • ফিক্সিং অভিযোগ তদন্তে সাঙ্গাকারা ও জয়াবর্ধনকে তলব

  • প্রস্তুত হচ্ছে মিরপুর সহ দেশের আট ক্রিকেট ভেন্যু

  • করোনা পরবর্তী সময়ে সবচেয়ে বেশি চ্যালেঞ্জ পেসারদের: রুবেল

  • টয়োটাকে পেছনে ফেলে পুঁজিবাজারে শীর্ষস্থানে টেসলা

  • রোহিঙ্গাদের ৩০৪ কোটি টাকা দেবে ইউরোপীয় ইউনিয়ন

  • স্বাধীনতার পর সর্বোচ্চ রেমিট্যান্সের রেকর্ড

  • রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকদের পাওনা বুঝিয়ে দেয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

  • বাজেটের কপি ছিঁড়ে সংসদের চরম অবমাননা করেছেন: কাদের

  • যেকোনো দুর্যোগে মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছে সরকার: পরিকল্পনামন্ত্রী

  • আবারও ক্রিকেটে ফিরতে মরিয়া পেসার আল আমিন

  • স্বাস্থ্য বিভাগ শতভাগ ভূমিকা পালন করতে পারছে না: সচিব

  • অপহরণের ৩ মাস পর ড্রামে মিললো ব্যবসায়ীর মরদেহ

  • বৈধ ভিসা নিয়ে যাওয়ার পরও ভারতে দুই মাস ধরে বন্দি ২৫ বাংলাদেশি

  • বরিশাল মেডিকেলে ইন্টার্ন চিকিৎসককে উত্ত্যক্তের অভিযোগে দুই কর্মচারীকে মারধর

  • লালমনিরহাটে বজ্রপাতে ৪ জনের মৃত্যু

ঈদে আমদানি পণ্যের গাড়ি চলাচলে নিষেধাজ্ঞা শিথিলের আহ্বান

ঈদে আমদানি পণ্যের গাড়ি চলাচলে নিষেধাজ্ঞা শিথিলের আহ্বান

চট্টগ্রাম বন্দর বন্ধ থাকে কেবল ঈদের দিন। তবে অন্যান্য দিন খোলা থাকলেও মহাসড়কে আমদানি পণ্যবাহী গাড়ি চলাচল বন্ধ থাকায় বন্দর থেকে পণ্য খালাস হয় একেবারেই কম। ফলে বন্দরে সৃষ্টি হয় কন্টেইনার জট। যার রেশ টানতে হয় অনেকদিন।

সংকট সমাধানে নিষেধাজ্ঞা শিথিল করে রফতানির মতো আমদানির পণ্যও চলাচলের সুযোগ কিংবা বিকল্প ব্যবস্থায় পণ্য পরিবহন সচল রাখতে সরকারের প্রতি আবেদন জানিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। সচরাচর ঈদের দিন ছাড়া বাকি সবদিনই সচল থাকে চট্টগ্রাম বন্দর।  

তবে ঘরমুখো মানুষের যাতায়াত নির্বিঘ্ন করতে ঈদের আগে পরে ৬ দিন মহাসড়কে পণ্যবাহী যান চলাচল সীমিত রাখা হয়। এসময় ঢাকাসহ বিভিন্নস্থান থেকে রফতানির পণ্যবাহী ট্রাক, কাভার্ডভ্যান বা ট্রেইলর চট্টগ্রামের দিকে চলতে পারলেও আমদানিপণ্যের গাড়ি চলা নিষিদ্ধ মহাসড়কে।

চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে আসা আমদানি-রফতানির প্রায় ৭০ ভাগ পণ্যই ঢাকা অঞ্চলের। ফলে মহাসড়ক ব্যবহার একমুখী থাকার কারণে বিপুল  পরিমাণ কন্টেইনার বা খোলা পণ্য বন্দর থেকে খালাস না হওয়ায় কন্টেইনার জটের আশংকা করা হচ্ছে।

সিএন্ডএফ এজেন্টরা বলছেন, ঘূর্ণিঝড় ফণির প্রভাব আর রমজানে কর্মঘন্টা কমে যাওয়ার পর মহাসড়কের সীমিত ব্যবহার ঈদের পর চাপ বাড়াবে। তবে বিকল্প ব্যবস্থায় পণ্যবাহী সব যানবাহন চলাচলের উপায় খোঁজা হচ্ছে বলে জানান বন্দর কর্মকর্তারা।

প্রায় ৫০ হাজার ধারণক্ষমতার বিপরীতে বন্দরে এখন কন্টেইনার আছে ৩৫ হাজারের মতো। 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর