channel 24

সর্বশেষ

  • খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে আন্তর্জাতিক মহলকে অবহিত করা হবে: ফখরুল

  • বকেয়া পরিশোধ না হলে চামড়া বিক্রি বন্ধ: আড়তদার সমিতি

  • ধ্বংসাত্মক রাজনীতির কারণে ভুলের চোরাবালিতে বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

  • ভারতের নয়াদিল্লিতে অল ইন্ডিয়া মেডিকেল ইনস্টিটিউটের আগুন নিয়ন্ত্রণে

  • অবসর বিষয়ে মাশরাফীর সিদ্ধান্ত দুই মাস পর: বিসিবি সভাপতি

  • ক্রিকেট দলের নতুন হেড কোচ দক্ষিণ আফ্রিকার রাসেল ক্রেগ ডোমিঙ্গো...

  • দায়িত্ব নেবেন ২১ আগস্ট, চুক্তি দুই বছরের: বিসিবি সভাপতি

  • গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে ভর্তি ১ হাজার ৪শ' ৬০: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

  • ডেঙ্গুতে ঢাকা মেডিকেলে নারী ও ফরিদপুর মেডিকেলে কলেজছাত্রের মৃত্যু

  • ডেঙ্গু প্রতিরোধ: ঢাকা উত্তরের প্রতিটি ওয়ার্ডকে...

  • ১০ ভাগে ভাগ করে চিরুনি অভিযান: মেয়র আতিকুল

  • ঢাকাকে হংকং, সিঙ্গাপুর বানানোর ঘোষণা স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর

  • বকেয়া পরিশোধ না করায় ট্যানারিতে আপাতত...

  • চামড়া না দেয়ার ঘোষণা পোস্তার আড়তদারদের...

  • কাল সরকারের সাথে বৈঠকের পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত...

  • চামড়া বিক্রি করা না করা তাদের নিজস্ব ব্যাপার...

  • বকেয়া পরিশোধ হবে কেস টু কেস ভিত্তিতে: ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশন

  • সুপরিকল্পিতভাবে রাজনীতিকে শূন্য করার চক্রান্ত চালাচ্ছে সরকার: ফখরুল

  • কলকাতায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২ বাংলাদেশি নিহত

বান্দরবানে সন্ত্রাসীদের দৌরাত্ম্যে আতঙ্কিত স্থানীয়রা

বান্দরবানে সন্ত্রাসীদের দৌরাত্ম্যে আতঙ্কিত স্থানীয়রা

চাঁদাবাজি, অপহরণ, আর খুন। এ যেন নিত্য ঘটনা বান্দরবানের রাজবিলা ইউনিয়নে। সম্প্রতি বেশ কয়েকটি খুনের ঘটনায় এখন আতংকিত স্থানীয়রা। পাশাপাশি প্রতিদিনই হত্যা হুমকি দিচ্ছে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা। ফলে আতংকে ঘর ছেড়ে পালিয়েছে অনেকেই। অনেক পাড়ায় পুরুষ শূণ্য। এনিয়ে স্থানীয় রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যেও উত্তাপ ছড়িয়ে পড়েছে। যদিও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পদক্ষেপ নেয়ার কথা জানান প্রশাসন।

অস্ত্রের মুখে একের পর এক অপহরণ, গুলি করে হত্যা। বান্দরবানের রাজবিলা এলাকায় চলছে এমন সব সন্ত্রাসী ঘটনা।  

সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে চাঁদা দাবি। দিতে না পারলে দেয়া হচ্ছে হত্যার হুমকি। ফলে আতংক ছড়িয়ে পড়েছে গোটা এলাকায়। তাতে ঘর ছেড়ে পালিয়েছে অনেকেই। পুর্নবান মারমা পাড়াসহ বেশ কয়েকটি পাড়া হয়ে পড়েছে পুরুষশূণ্য।

চলতি মাসেই তিনটি খুনের ঘটনা ঘটে এই ইউনিয়নে। খোঁজ মেলেনি অপহৃত আরো দুইজনের। চাঁদা ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এসব ঘটনা ঘটে। হত্যার শিকার হয়েছেন স্থানীয় রাজনৈতিক নেতাকর্মী ও সমর্থকরা। এখন এলাকায় মুখোমুখি অবস্থানে আঞ্চলিক সংগঠন দল জনসংহতি ও নতুন সংগঠন মগ লিবারেশন পার্টি।

তবে এলাকায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সব পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে জানান জেলা পুলিশ সুপার মো. জাকির হোসেন মজুমদার।

তবে সন্ত্রাসীদের দমনে সাড়াশি অভিযান না চালালে এলাকায় শান্তি ফিরবেনা বলে মত স্থানীয়দের।

ভিডিও প্রতিবেদন-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর