channel 24

সর্বশেষ

  • চলে গেলেন সাবেক ফুটবলার এস এম সালাউদ্দিন

  • বিদেশি কোচদের সাথে চুক্তি পুর্নবিন্যাস করবে বিসিবি

  • শিক্ষা প্রতিষ্ঠান না খোলার সিদ্ধান্তে উদ্বিগ্ন শিক্ষার্থী-অভিভাবকরা

  • ট্রেনে কিছুটা মানলেও লঞ্চে উপেক্ষিত স্বাস্থ্যবিধি

  • দীর্ঘতম ছুটি শেষে স্বরূপে রাজধানী

  • সাতক্ষীরায় বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে ১ জনের মৃত্যু, আহত ২ শিশু

  • খুলনায় প্লাজমা থেরাপি দেয়া করোনা রোগীর মৃত্যু

  • বিদ্যুতের বাড়তি বিল হলে পরবর্তীতে সমন্বয় করা হবে: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

  • ২ মাস পর চালু হল পুঁজিবাজারে লেনদেন; সূচকে ইতিবাচক ধারা

  • কুষ্টিয়ায় নিজে রান্না করে অসহায় মানুষকে খাবার দিচ্ছেন কলেজ ছাত্রী

  • জিপিএ-৫ না পাওয়ায় ছাত্রীর আত্মহত্যা

  • স্বাস্থ্যবিধি মেনে ট্রেন চলাচল শুরু

  • এসএসসির ফলাফল এসএমএস ও অনলাইনে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নেই উল্লাসের রঙ

  • ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রিভলবার ও গুলিসহ যুবলীগ নেতা আটক

  • চট্টগ্রামে রাস্তায় নেমেছে বাস; বাড়তি ভাড়া আদায়

অস্ত্রের মুখে ভূমিদস্যুর কব্জায় শিক্ষকের ভিটেমাটি

অস্ত্রের মুখে ভূমিদস্যুর কব্জায় শিক্ষকের ভিটেমাটি

অস্ত্রের মুখে রেজিস্ট্রি নিয়ে যুবলীগ নামধারী সাত ভূমিদস্যু দাবি করছে তারা কিনে নিয়েছে জায়গাটি। এরপর বাড়ি ছাড়তে অনবরত হুমকি-চাপ। ফলে, চট্টগ্রামের আনোয়ারায় বাপদাদার ভিটেমাটি হারিয়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছেন সাবেক শিক্ষক, শতবর্ষী নিরঞ্জন চক্রবর্তী ও তার পরিবার। এ নিয়ে মামলা হলেও ধরা ছোঁয়ার বাইরে আসামিরা।

চট্টগ্রামের আনোয়ারা সদরের এলাকায় জীর্ণ মাটিতে পরিবার নিয়ে থাকতেন একসময়কার পন্ডিত শিক্ষক হিসেবে এলাকায় পরিচিত শিক্ষক নিরঞ্জন চক্রবর্তী। কিন্তু সেটিই এখন ভূমিলোভীদের কব্জায়।

অভিযোগ, গত ১০ এপ্রিল অস্ত্রের মুখে এই বসতভিটাসহ আশপাশের প্রায় আটগন্ডা ভূমি নিজেদের নামে লিখে নেয় যুবলীগ নামধারী কামরুল ইসলাম হেলাল, আনোয়ার, মানিকসহ কয়েকজন। পরে তাদের হুমকির মুখে স্বজনদের নিয়ে বাড়ি ছাড়তে বাধ্য হন শতবর্ষী এই মানুষটি। আশ্রয় নেন অন্যত্র।   

স্থানীয়দের অভিযোগ, তাদেরও হুমকী দিচ্ছে অভিযুক্তরা। আর নিরঞ্জনের সাবেক কর্মস্থল আনোয়ারা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের দাবি, সুষ্ঠু বিচারের।

এঘটনায় গত ১৮ এপ্রিল সাতজনকে আসামী করে মামলা মামলা হয়। এখন জড়িতদের ধরতে চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

দায়ীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার মাধ্যমে শংকামুক্ত অবস্থায় বাড়ি ফিরে যাওয়ার পরিবেশ চেয়েছেন ভূক্তভোগীরা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর