channel 24

সর্বশেষ

  • বড় জয় পেয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ

  • পাঁচ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা ঘোষণার পরও কর্মী ছাঁটাই মানবতাবিরোধী: রিজভী

  • ঢাকা দক্ষিণ সিটির স্বাস্থ্যখাত ভঙ্গুর অবস্থায় রয়েছে: তাপস

  • যারা ৭ মার্চ ও ৭ জুন পালন করে না, তাদের স্বাধীনতার চেতনা এবং মুক্তিযুদ্ধের আদর্শে বিশ্বাস নেই: কাদের

  • করোনায় মৃত্যুর নতুন রেকর্ড ৪২ জন, শনাক্ত ২৭৪৩

  • ঢাকায় স্বাস্থ্য ভবনের সামনে মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের বিক্ষোভ

  • সুনামগঞ্জে বেতনের দাবিতে স্বাস্থ্যকর্মীদের বিক্ষোভ

  • প্রকৃতির নিস্তব্ধতায় সাফারী পার্কে আফ্রিকান কমন ইলান্দ ও জেব্রা শাবকের জন্ম

  • ঢাকায় পৌঁছেছেন মন্ত্রী বীর বাহাদুর

  • বাঙালির মুক্তির সনদ ৬-দফা

  • করোনার প্রভাবে বন্ধ খুলনা থেকে মোংলা বন্দর পর্যন্ত রেললাইনের কাজ; বাড়ছে মেয়াদ ও খরচ

  • সংকটে ব্যাকওয়ার্ড লিংকেজ শিল্প, বিপাকে ব্যবসায়ীরা

  • বাজেটে ঘাটতি জিডিপির পাঁচ শতাংশ ছাড়িয়ে যাওয়ার আভাস

  • যুক্তরাষ্ট্রে বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভের ১২তম দিনে লাখো মানুষের ঢল

  • সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের অবস্থা এখনো সংকটাপন্ন

কিছুতেই থামছে না সীমান্ত এলাকায় ইয়াবা পাচার

কিছুতেই থামছে না সীমান্ত এলাকায় ইয়াবা পাচার

কঠোর নিরাপত্তা আর ক্রমাগত অভিযান কোন কিছুই দমাতে পারছে না সীমান্ত এলাকায় ইয়াবা পাচার। এতে যেমন সৃষ্টি হচ্ছে সামাজিক জটিলতা, সাথে বাড়ছে উদ্বেগও। তাই এবার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে টেকনাফে ৭০টি মাদক প্রতিরোধ কমিটি করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। যা সক্রিয় থাকবে প্রতিটি পৌরসভা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে।

প্রশাসন বলছে, এতে দ্রুত সময়ে ইয়াবা পাচার ও জড়িতদের সনাক্ত করে আইনের আওতায় আনা সম্ভব হবে। টেকনাফ পৌরসভার দক্ষিণ জালিয়াপাড়ার গৃহবধূ রোকিয়া। যিনি ইয়াবা আসক্ত স্বামীর নির্যাতনের শিকার।

শুধু রোকিয়াই নয়, ইয়াবার নেশা বা ব্যবসায় জড়িয়ে পড়া সন্তানের বিরুদ্ধে থানায় অনেক পিতা-মাতার অভিযোগ দেয়ার ঘটনা এখন নিত্যনৈমত্যিক ব্যাপার।

পুলিশ বলছে, গত ৩ মাসে বন্দুকযুদ্ধে ৬০ জনের মৃত্যু, সাড়ে ৩শ' জনকে গ্রেফতারের পরও ইয়াবা পাচার রোধ হচ্ছেনা। বাড়ছে সামাজিক সমস্যা। তাই টেকনাফের প্রতিটি ইউনিয়ন, পৌরসভার ওয়ার্ড পর্যায়ে গঠন করা হচ্ছে মাদক প্রতিরোধ কমিটি।

এখন পর্যন্ত ১০টি কমিটি গঠন করা হয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দা এবং জনপ্রতিনিধিরাও মনে করেন, ইয়াবার বিস্তার বন্ধে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের বিকল্প নেই।

তবে সামাজিক এই আন্দোলনের পাশাপাশি অভিযান জোরদার রাখার কথাও জানান পুলিশ সুপার।

মাদক প্রতিরোধ কমিটিগুলোতে কৌশলে যেন চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ীদের স্থান না হয় সেজন্য সতর্ক থাকার পরামর্শ সচেতন মহলের।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর