channel 24

সর্বশেষ

  • লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা

  • বগুড়ার ’চাষী বাজারে’ ২৫ ব্যবসায়ী করোনায় আক্রান্ত

  • গণপরিবহন চালু করতে নানা কৌশল; স্বাস্থ্যবিধি মানা নিয়ে সংশয়

  • আগুনে মুত্যুতে ইউনাইটেড হাসপাতালের গাফিলতি; মানতে নারাজ কর্তৃপক্ষ

  • ৩১ মে চালু হচ্ছে স্টক এক্সচেঞ্জে শেয়ার লেনদেন

  • ক্রিকেটের বাইরে সাকিব আল হাসানের জানা-অজানা গল্প

  • অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলবে ট্রেন, নৌপথে সিদ্ধান্ত কাল

  • করোনায় বাংলাদেশে আটকে পড়া ১০৯ নাগরিককে ফিরিয়ে নিয়েছে ভারত

  • রান্না খারাপ হওয়ায় স্ত্রীকে গাছের সাথে বেধে নির্যাতন

  • ডলফিনসহ মৎস্যসম্পদ রক্ষায় সরকারের পদক্ষেপ জানতে চেয়েছে হাইকোর্ট

  • যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স ও ইতালিসহ সাত দেশের সঙ্গে বিমান চলাচল শুরু করছে চীন

  • চট্টগ্রামে সিটি কর্পোরেশনের এক কাউন্সিলরসহ ২'শ ১৫ জন করোনায় আক্রান্ত

  • যুক্তরাষ্ট্রে প্রাণহানি এক লাখ দুই হাজার ১০৭

  • যুক্তরাষ্ট্রে চিকিৎসা নিরাপত্তা সরঞ্জাম তৈরির ফ্যাক্টরি নির্মাণে বেক্সিমকো গ্রুপের অর্থায়ন

  • করোনায় দেশে একদিনে শনাক্তের রেকর্ড, ১৫ জনের মৃত্যু

চট্টগ্রামে সোহেল হত্যায় নেতৃত্ব দেন জাপা নেতা ওসমান খান

চট্টগ্রামে সোহেল হত্যায় নেতৃত্ব দেন জাপা নেতা ওসমান খান

চট্টগ্রামে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মহিউদ্দিন সোহেলকে হত্যায় সরাসরি নেতৃত্ব দিয়েছেন, জাতীয় পার্টির নেতা ওসমান খান। যারা অংশ নিয়েছে তাদের বেশিরভাগই তার ঘনিষ্ট। চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের হাতে আসা ঘটনার কয়েকটি ভিডিও ফুটেজে মিলেছে এ তথ্য। যা নিশ্চিত করেছে পুলিশও। এসব ফুটেজ দেখে হত্যায় অংশ নেয়া দুর্বৃত্তদের শনাক্ত করা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত আটক হয়েছে ওসমানসহ ১৯ জন।

গত ৭ জানুয়ারী। চট্টগ্রাম নগরীর পাহাড়তলী রেলওয়ে বাজারের পাশে পাওয়ার হাউজ কলোনীতে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মহিউদ্দিন সোহেলকে হত্যার সময়কার ছবি। যা ধারণা করা মুঠোফোনে।

এটি ছাড়াও হত্যা ঘটনার বেশ কয়েকটি ভিডিও ফুটেজ এসেছে চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের কাছে। যেখানে দেখা যায় সোহেলকে মাটিতে ফেলে লাঠি ও ইট দিয়ে বর্বরভাবে আঘাতের পাশাপাশি উপর্যুপরি ছরিকাঘাত করছে কিছু লোকজন।

ঘটনার পরদিন স্থানীয় জাতীয়পার্টি নেতা ওসমান খান চ্যানেল টোয়েন্টিফোরকে জানিয়েছিলেন, তিনি নিজেই হামলার শিকার। সোহেল মারা গেছে গণপিটুনিতে।  

তবে ঘটনার সময়কার ফুটেজ বলছে, ওসমান খান নিজেই নেতৃত্ব দিয়েছেন এই নৃশংস হত্যার। এছাড়া তার ছোটভাই তাহের খান, এলাকার যুবক ইকবাল, জুয়েল মির্জাসহ পনের থেকে বিশজনকে চিহ্নিত করা গেছে। যারা সবাই ওসমানের কাছের লোক।

সোহেলের শরীরে ২৬টি ছুরিকাঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়। তাকে হত্যা করেই ক্ষান্ত হয়নি দুর্বৃত্তরা। আগুন দেয়া হয় তার ব্যক্তিগত কার্যালয়ে। এসব ফুটেজ দেখে শনাক্তের পর এখন ধরা হচ্ছে হত্যায় অংশ নেয়া দুর্বৃত্তদের।  

চাঞ্চল্যকর এ হত্যা ঘটনায় এখন পর্যন্ত ধরা পড়েছে ওসমানসহ ১৯ জন। তবে উচ্চ আদালত থেকে জামিনে আছেন প্রধান আসামী, স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাবের আহম্মেদ।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর