channel 24

সর্বশেষ

  • বান্দরবানের তারাছা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি...

  • মংমং থোয়াই সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত

  • ছেলেধরা গুজবে বাড্ডায় নারীকে পিটিয়ে হত্যা মামলায়...

  • গ্রেপ্তার ৩ আসামি ৪ দিনের রিমান্ডে

  • শেখ হাসিনা কখনোই ৩ কোটি ৭০ লাখ মিসিং বলেননি: কাদের...

  • প্রিয়া সাহার বক্তব্যের পেছনে কারও ইন্ধন আছে কিনা...

  • দেশে ফেরার পর খতিয়ে দেখা হবে

  • ছেলেধরা গুজবে নৃশংসতা: মোবাইলে ধারণ করা ফুটেজ দেখে...

  • রাজধানীর বাড্ডায় নারীকে পিটিয়ে হত্যায় চারজন গ্রেপ্তার...

  • শনাক্ত অন্যান্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে: ডিবি...

  • কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে মানসিক ভারসাম্যহীন নারীকে পিটিয়ে আহত...

  • দক্ষিণখানে আটকে রাখা কিশোরকে উদ্ধার করেছে পুলিশ

  • ডেঙ্গুতে হবিগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. শাহাদৎ হোসেনের মৃত্যু

  • আমিনবাজারের সালেহপুর ব্রিজ থেকে নদীতে পড়ে যাওয়া...

  • প্রাইভেটকারের সন্ধান মেলেনি এখনও; উদ্ধারকাজ চলছে

  • সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে আজও...

  • ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ও একাডেমিক ভবনে তালা

  • মাগুরার পারনান্দুয়ালিতে মা-ছেলের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার...

  • গুরুতর অবস্থায় বাবাকে হাসপাতালে ভর্তি

চট্টগ্রামে সোহেল হত্যায় নেতৃত্ব দেন জাপা নেতা ওসমান খান

চট্টগ্রামে সোহেল হত্যায় নেতৃত্ব দেন জাপা নেতা ওসমান খান

চট্টগ্রামে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মহিউদ্দিন সোহেলকে হত্যায় সরাসরি নেতৃত্ব দিয়েছেন, জাতীয় পার্টির নেতা ওসমান খান। যারা অংশ নিয়েছে তাদের বেশিরভাগই তার ঘনিষ্ট। চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের হাতে আসা ঘটনার কয়েকটি ভিডিও ফুটেজে মিলেছে এ তথ্য। যা নিশ্চিত করেছে পুলিশও। এসব ফুটেজ দেখে হত্যায় অংশ নেয়া দুর্বৃত্তদের শনাক্ত করা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত আটক হয়েছে ওসমানসহ ১৯ জন।

গত ৭ জানুয়ারী। চট্টগ্রাম নগরীর পাহাড়তলী রেলওয়ে বাজারের পাশে পাওয়ার হাউজ কলোনীতে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মহিউদ্দিন সোহেলকে হত্যার সময়কার ছবি। যা ধারণা করা মুঠোফোনে।

এটি ছাড়াও হত্যা ঘটনার বেশ কয়েকটি ভিডিও ফুটেজ এসেছে চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের কাছে। যেখানে দেখা যায় সোহেলকে মাটিতে ফেলে লাঠি ও ইট দিয়ে বর্বরভাবে আঘাতের পাশাপাশি উপর্যুপরি ছরিকাঘাত করছে কিছু লোকজন।

ঘটনার পরদিন স্থানীয় জাতীয়পার্টি নেতা ওসমান খান চ্যানেল টোয়েন্টিফোরকে জানিয়েছিলেন, তিনি নিজেই হামলার শিকার। সোহেল মারা গেছে গণপিটুনিতে।  

তবে ঘটনার সময়কার ফুটেজ বলছে, ওসমান খান নিজেই নেতৃত্ব দিয়েছেন এই নৃশংস হত্যার। এছাড়া তার ছোটভাই তাহের খান, এলাকার যুবক ইকবাল, জুয়েল মির্জাসহ পনের থেকে বিশজনকে চিহ্নিত করা গেছে। যারা সবাই ওসমানের কাছের লোক।

সোহেলের শরীরে ২৬টি ছুরিকাঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়। তাকে হত্যা করেই ক্ষান্ত হয়নি দুর্বৃত্তরা। আগুন দেয়া হয় তার ব্যক্তিগত কার্যালয়ে। এসব ফুটেজ দেখে শনাক্তের পর এখন ধরা হচ্ছে হত্যায় অংশ নেয়া দুর্বৃত্তদের।  

চাঞ্চল্যকর এ হত্যা ঘটনায় এখন পর্যন্ত ধরা পড়েছে ওসমানসহ ১৯ জন। তবে উচ্চ আদালত থেকে জামিনে আছেন প্রধান আসামী, স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাবের আহম্মেদ।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর