channel 24

সর্বশেষ

  • ২৮ মে জাপান যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

  • ফরিদপুরের মেধাবী দুই শিক্ষার্থীকে প্রতি বছর বৃত্তি দেবে হা-মিম গ্রুপ

  • বগুড়ায় ডাকসুর ভিপি নুরের ওপর হামলা

  • বাংলাদেশ দলে ধারাবাহিকতার প্রতীক মুশফিক

  • প্রিয় ডটকমের সহকারী সম্পাদক ফাগুনের মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় মামলা

  • বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন ভারতের পরিসংখ্যান

  • অন্যায়ের সঙ্গে আপস করেননি বলেই খালেদা জিয়া কারাগারে বন্দি: ফখরুল

  • বিশ্বকাপে বাংলাদেশর শুভেচ্ছাদূত আব্দুর রাজ্জাক

  • বিশ্বকাপে সাকিব হতে পারে প্রতিপক্ষের জন্য ভয়ঙ্কর: রিকি পন্টিং

  • চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরলেন রাষ্ট্রপতি

  • বৃষ্টি বাধায় বাংলাদেশ-পাকিস্তান প্রস্তুতি ম্যাচ পরিত্যক্ত

  • 'আদর্শিক ও রাজনৈতিকভাবে জঙ্গিবাদকে মোকাবিলা করতে হবে'

  • শূন্য থেকে শুরু; এখন ২শ' বিঘা জমিতে গড়া বাগানের মালিক আলফাজুল

  • কক্সাবাজারে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে শিক্ষার্থী নিহত

  • কক্সবাজারে জেলেদের সহায়তার দাবিতে মানববন্ধন

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের অনুমোদনে খুশি কক্সবাজারের মানুষ

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের অনুমোদনে খুশি কক্সবাজারের মানুষ

সম্প্রতি মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন পাওয়ায়, খুশি ইয়াবা চোরাচালানের মূল পয়েন্ট কক্সবাজারের মানুষ। নাগরিক সমাজ বলছে, এটা যুগোপযোগী উদ্যোগ। যা ইয়াবা পাচার রোধে ভূমিকা রাখবে। তবে, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ইয়াবা দিয়ে কাউকে যেন ফাঁসাতে না পারে, সেজন্য শাস্তির বিধান রাখা উচিত নতুন আইনে- এমন মতও দেন তারা।

মাদকের ভয়াবহ বিস্তার রোধে কঠোর অবস্থানে সরকার। এমন প্রেক্ষাপটে সোমবার মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৮ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। 
যাতে প্রথমবারের মতো অন্তর্ভূক্ত হয়েছে সর্বনাশা মাদক ইয়াবা। কারো কাছে ৫ গ্রামের বেশি ইয়াবা পাওয়া গেলে সর্বোচ্চ শাস্তি রাখা হয়েছে মৃত্যুদণ্ড।
মিয়ানমার থেকে দেশে ইয়াবা আসে কক্সবাজার সীমান্ত হয়ে। যেখানে তালিকাভুক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ী আছে প্রায় ১২শ। তাই নতুন আইন তৈরির এই উদ্যোগে সবচেয়ে বেশি খুশি এখানকার মানুষ।
আইনজীবী ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের মতে, ইয়াবা দিয়ে নিরীহ মানুষকে ফাঁসিয়ে দেয়ার বহু অভিযোগ আছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিরুদ্ধে। তাই নতুন আইনে এমন বিধান যুক্ত করা দরকার, যাতে নিরাপরাধ কাউকে ফাঁসালে তার কঠোর শাস্তি পায় অভিযুক্তরা।
তবে আইনের পাশাপাশি ইয়াবা চোরাচালান বন্ধে সীমান্তে আরও কড়াকড়ি প্রয়োজন বলে মত নাগরিক সমাজের।

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর