channel 24

সর্বশেষ

  • বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরকে অব্যাহতি

  • দানবীর রণদা প্রসাদ হত্যা মামলার রায় বৃহস্পতিবার

  • দুদক কার্যালয়ে সাংবাদিক তলবের প্রতিবাদে মানববন্ধন

  • নিয়ম মানা না হলে তদন্ত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা: দুদক চেয়ারম্যান

  • ২৮ বছর পর সচল হল সগিরা মোর্শেদ হত্যা মামলা ২ মাসের মধ্যে অধিকতর তদন্ত শেষ করার নির্দেশ

  • নারায়ণঞ্জে নারী ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা

  • নরসিংদীর দগ্ধ কলেজছাত্রীর মৃত্যু

  • প্রথম দল হিসেবে বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়া

  • হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ব্রায়ান লারা

  • ভুল ইনজেকশনে এক মাসের বেশি সময় ধরে অজ্ঞান গোপালগঞ্জের মুন্নি

  • চট্টগ্রামে মাইক্রোবাসে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ, দগ্ধ ১৫

  • অবশেষে ডিআইজি মিজান সাময়িক বরখাস্ত

  • খুলনা শিশু হাসপাতালকে ১৫ কোটি টাকা অনুদান দিলেন প্রধানমন্ত্রী

  • সাম্প্রদায়িক শক্তি এখনও সক্রিয়, বড় নাশকতার পরিকল্পনা করছে: কাদের

  • স্বামীকে হত্যার অভিযোগে স্ত্রী আটক

সিসিটিতে আবারও অপারেটর নিয়োগ করতে যাচ্ছে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ

সিসিটিতে আবারও অপারেটর নিয়োগ করতে যাচ্ছে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ

চিটাগং কন্টেইনার টার্মিনালে (সিসিটি) আবারও অপারেটর নিয়োগ করতে যাচ্ছে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ। এজন্য উন্মুক্ত দরপত্র আহবান করেছে কর্তৃপক্ষ। যা জমা দেয়ার শেষদিন ২৪ সেপ্টেম্বর।

তবে অভিযোগ উঠেছে, দরপত্রের শর্ত এমনভাবে ঠিক করা হয়েছে, যেন বিশেষ কোন প্রতিষ্ঠান কাজ পায়। তাই, পুরো প্রক্রিয়াটি স্বচ্ছতার মাধ্যমে করার তাগিদ বন্দর ব্যবহারকারীদের।

দরপত্রে বলা হয়, চট্টগ্রাম বা অন্য কোন বন্দরে কর্মরত বা অভিজ্ঞ টার্মিনাল অপারেটররাই এ প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে পারবে। উল্লেখ নেই বার্থ অপারেটরের কথা। যদিও আগেরবার দুইধরনের প্রতিষ্ঠানই দরপত্রে অংশ নেয়ার সুযোগ পেয়েছিল।

তাছাড়া অতীতে একাধিক প্রতিষ্ঠান যৌথভবে অংশ নেয়ার সুযোগ পেলেও এবার যে কোন প্রতিষ্ঠানকে এককভাবেই দর দিতে হবে।

এছাড়াও আগে দেশি-বিদেশি সবার জন্য উন্মুক্ত থাকলেও এবার কেবল দেশি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখা হয়েছে।   

গেল মে মাসে বন্দরের কর্মবিধি সংশোধন করা হয়। যাতে আলাদাভাবে বার্থ এবং টার্মিনাল অপারেটরের সংজ্ঞা নিরূপণ করা হয়। চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন চেম্বার সহ-সভাপতি এ এম মাহবুব চৌধুরী ও চট্টগ্রাম চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম বলছেন, বার্থ হচ্ছে একটি জাহাজ ভেড়ার স্থান। আর কয়েকটি বার্থ মিলেই হয় টার্মিনাল। যা পরিচালনায় অভিজ্ঞতা রয়েছে মূলত সিসিটিতে কর্মরত সাইফ পাওয়ারটেকেরই।

তবে সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন নৌপরিবহনমন্ত্রী  শাজাহান খান ও সাইফ পাওয়ারটেকের এমডি তরফদার রুহুল আমিন।

সিসিটির পর এনসিটির অপারেটর নিয়োগেরও প্রক্রিয়া চলছে। এক্ষেত্রেও স্বচ্ছতা বজায় রাখার তাগিদ বন্দর সংশ্লিষ্টদের।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর