channel 24

সর্বশেষ

  • দুর্নীতি মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য...

  • ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া নিজ বাসা থেকে গ্রেপ্তার

  • পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত কোনো ধরনের উন্নয়ন প্রকল্পের অনুমোদন...

  • ঘোষণা, ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমের ওপর...

  • নিষেধাজ্ঞা দিয়ে সরকারকে নির্বাচন কমিশনের চিঠি

  • রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সাথে সভা না করতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগসহ...

  • সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগকে চিঠি দেবে কমিশন: ইসি সচিব...

  • নির্বাচন কমিশন স্বাধীন প্রতিষ্ঠান, কারও চাপে সিদ্ধান্ত নেয় না

  • শেখ হাসিনা ২টি ও বাকিরা একটি আসনে মনোনয়ন পাচ্ছেন...

  • কক্সবাজারে বদি ও টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে আমানুর রহমান...

  • আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাচ্ছেন না: ওবায়দুল কাদের...

  • ২৪/২৫ নভেম্বর নাগাদ মহাজোটের প্রার্থিতা ঘোষণা

  • সম্পদের তথ্য গোপন: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য...

  • ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়ার ৩ বছরের কারাদণ্ড

  • এবার সব দলের অংশগ্রহণে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে...

  • কোনো পর্যবেক্ষণ সংস্থা দায়িত্ব পালনে অনিয়ম করলে ব্যবস্থা: ইসি সচিব

  • তৃতীয় দিনের মতো চলছে বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার

  • গুলশানে জাপার মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠান চলছে...

  • জাতীয় পার্টি যে জোটে তারাই ক্ষমতায় আসবে: রুহুল আমিন হাওলাদার

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পরিবেশগত ঝুঁকি চিহ্নিত করতে সমীক্ষা হবে

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পরিবেশগত ঝুঁকি চিহ্নিত করতে সমীক্ষা হবে

কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ক্যাম্প ও আশেপাশের এলাকায় পরিবেশগত ঝুঁকি চিহ্নিত করতে সমীক্ষা চালাবে, আন্তর্জাতিক দুটি সংস্থা। সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, রোহিঙ্গাদের কারণে স্থানীয়ভাবে কী ধরনের পরিবর্তন হচ্ছে, তা নিরসনে কেমন কৌশল নেয়া দরকার- আগামী সাত মাসে এসব বিষয়ই অনুসন্ধান করা হবে সমীক্ষায়। এজন্য বুধবার সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোকে নিয়ে সেমিনারের আয়োজন করেন উদ্যোক্তারা।

নতুন-পুরনো মিলে কক্সবাজারের উখিয়া এবং টেকনাফে এখন বসবাস প্রায় ১১ লাখ রোহিঙ্গার।
বিপুল এই রোহিঙ্গার জন্য আশ্রয় শিবিরসহ নানা ধরনের স্থাপনা গড়ে তোলা হয়েছে সমতল এবং পাহাড়ে। তাতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বন, জীববৈচিত্রসহ পরিবেশগত নানা খাত। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এ ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে হলে দরকার দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা।
এখন এই ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে, রোহিঙ্গা এবং স্থানীয়দের পরিবেশগত ঝুঁকি নিরসনের কৌশল প্রণয়নে সমীক্ষা চালাতে যাচ্ছে দুটি সংস্থা। এজন্য মতামত নেয়া হচ্ছে সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোর। তাতে রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি স্থানীয়দের সম্পৃক্ত করার কথা বলছেন সংশ্লিষ্টরা।
এই সমীক্ষা রোহিঙ্গা এবং স্থানীয়দের জীবনমান ব্যবস্থাপনায় বড় ভূমিকা রাখবে বলে মনে করেন এই বিশেষজ্ঞ।
আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা ও ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর ক্লঅইমেট চেঞ্জ এন্ড ডেভেলপমেন্ট যৌথভাবে এ সমীক্ষা চালাবে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চট্টগ্রাম 24 খবর